গেমস জোন :: The Saboteur (2009/এডভেঞ্চার/Core 2 Dual)

1 100

হাই! নিয়ে এলাম গেমস জোনের আরেকটি নতুন এপিসোড। আজকের এপিসোডে থাকছে একটি একশন এডভেঞ্চার গেম। আজকের গেম দ্যা সাবোটেওর।

দ্যা সাবোটেওর একটি ওপেন ওয়ার্ল্ড 3rd পারসন একশন এডভেঞ্চার ভিডিও গেম যার পটভূমি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের Germany এর শাসিত ফ্রান্সতে। গেমটি প্যানমেডিক স্টুডিও এর শেষ গেম। গেমটি প্রকাশ করেছে ইলেকট্রনিক আটস।

The Saboteur

নির্মাতা:

প্যানডেমিক স্টুডিওস

প্রকাশ করেছে:

ইলেকট্রনিক আটস

ডিজাইন করেছেন:

টম ফ্রেঞ্চ

ইঞ্জিণ:

ওডিন,

হ্যাভোখ

খেলা যাবে:

মাইক্রোসফট উইন্ডোজ,

প্লে-স্টেশন ৩ এবং

এক্সবক্স ৩৬০ গেমস কনসোলে

মুক্তি পেয়েছে:

ডিসেম্বর, ২০০৯ সালে

ধরণ:

একশন এডভেঞ্চার,

ওপেন ওয়ার্ল্ড,

3rd পারসন

খেলার ধরণ:

সিঙ্গেল প্লেয়ার

ট্রেইলার ভিডিও:

www.youtube.com/watch?v=KqmiVuS_AGo

www.youtube.com/watch?v=JGDIUtOO2Qg

www.youtube.com/watch?v=BcVG_bcUF60

সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টস:

মিনিমাম:

কোর ২ ডুয়াল ২.৪ গিগাহাটস গতির প্রসেসর,

২ গিগাবাইট র‌্যাম,

২৫৬ মেগাবাইট এনভিডিয়া জিফোস ৭৮০০ জিটিএক্স অথবা এটিআই রাডিয়ন এইচডি ২৬০০ প্রো সিরিজের গ্রাফিক্স Card,

উইন্ডোজ এক্সপি সাথে সার্ভিস প্যাক ৩,

৭ গিগাবাইট HardDisk ফ্রি জায়গা,

ডাইরেক্ট এক্স ৯.০সি সাথে শেডার মডেল ৩.০ সার্পোট।

ভাল ভাবে খেলতে হলে:

কোর্য়াড কোর ২.৮ গিগাহাটস গতির প্রসেসর,

৪ গিগাবাইট র‌্যাম,

এনভিডিয়া ৮৮০০ জিটি সিরিজের ৫১২ মেগাবাইট গ্রাফিক্স Card,

উইন্ডোজ ৭ অথবা ৮,

৭ গিগাবাইট HardDisk এর খালি জায়গা,

ডাইরেক্ট এক্স ১০/১১ সাথে শেডার মডেল ৪.০।

***গেমটি ১৮+ রেটিং প্রাপ্ত***

গেমটি 3rd পারসন ভিউতে তোমায় খেলতে হবে। গেমটিতে তোমাকে আইরিশ রেসকার মেকানিক শণ ডেভলিন এর ভূমিকায় খেলতে হবে। সে খুউবই মদ্যপ। সে প্যারিস এর একটি রেসিং গ্রুপে কাজ করতো। একজন নাজি কর্ণেল Kurt Dieker প্রতারণা করে ১৯৪০ Saarbrucken Grand Prix জয় করে। শণ ডেভলিন এবং তার বেস্ট ফ্রেন্ড জুলিস সেই ১৯৪০ মডেলের গাড়িটি চুরি করে। তবে তারা ধরাও পড়ে। তবে শণ পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। আসলে পড়ে কর্ণেল জানতে পারে যে তার পিছিনে ব্রিটিশ স্পাই লাগানো রয়েছে এবং কর্ণেল শণকে স্পাই হিসেবে ভাবে।

গেমটির কাহিনী এগিয়ে যায় জুলিসকে হত্যার মাধ্যমে। এরপর শণ তার ফ্রেন্ড জুলিস এর হত্যার প্রতিশোধ নিতে কর্ণেলকে মারতে যায় এবং জুলিস এর বোন ভিরোনিকিউ কে রক্ষা করে। গেমটির পটভূমি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে হলেও দ্বিতীয় বিশ্বযু্দ্ধ গেমটির ব্যাকটপ হিসেবে রয়েছে।

গেমটিতে তুমি নাজি কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত পারিস এর বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাঘুরি করতে পারবে। সাথে কিছু ফ্রেঞ্চ সীমান্তবর্তী অঞ্চল এবং জামার্নির কিছু অংশে যেতে পারবে। গেমটিতে রং এর ব্যবহার গেমটিকে আরো মজাদার করে তুলেছে। যেসব জায়গা নাজিদের হেভি পাহারায় রয়েছে সেসব জায়গা গেলে সাদাকালো রং এর ক্রিণ পাবে তুমি। ফ্রেঞ্চ রেজিটেন্স এবং জার্মান এর আবাস স্থলের আশেপাশে গেলে রং হবে লাল।

সাদাকালো অঞ্চলে জার্মান সেনাদের উপস্থিতি প্রবল থাকবে এবং এইসব অঞ্চলে তোমাকে স্থেল্থ মোডে খেলতে হবে। অন্যান্য রঙিণ অঞ্চলে সেনাদের উপস্থিতি ১০% এর মতো থাকবে। তবে রঙিণ অঞ্চলের মিলিটারি বেইস এর আশেপাশের এলাকা, ব্যারিকেইড, পুলিশ স্টেশন, এইচকিউস সহ অন্যান্য স্থানে সেনাদের উপস্থিতি ৬০% এরমতো হবে।

বলা বাহুল্য, ফ্রেঞ্চ লোকজন তোমাকে বিভিন্ন কার্যে সাহায্য করবে। যেমন ধরো তুমি কালার এরিয়াতে কোনো জার্মাল সেনার সাথে লড়াইতে জড়িয়েছো, তখন আশেপাশের সাধারণ মানুষও তোমার পক্ষ হয়ে সেনার বিরুদ্ধে লড়বে!

গেমটি খেলতে খেলতে তোমাকে ক্যারেক্টার রেংকিং বাড়াতে হবে / আপগ্রেড করতে হবে। এইসব আপগ্রেড এ রয়েছে একুরেসি, গুলির সংখ্যা, ডেমেজ, এবিলিটিস সহ আরো অনেককিছু। এই আপগ্রেড গুলো তোমাকে পেতে হলে কিছু নিয়ম মেনে গেমটি খেলতে হবে, যেমন Alarms সমূহ এরিয়ে যাওয়া, স্নাইপিং, জার্মান সৈন্য ঘাঁটি বোমার সাহায্যে উড়িয়ে ফেলা, গাড়ি চুরি ইত্যাদি। তুমি গেমটিতে বিল্ডিং চড়তে পারবে এবং ছাদে যেতে পারবে।

এছাড়াও গেমটিতে শত্রুর পোষাক পড়ে ধোকা দেওয়া যাবে। যা হিটম্যান সিরিজের গেমগুলো অহরহ হয়ে থাকে।

গেমটিতে একবার মরে গেলে তুমি তোমার যাবতীয় অস্ত্র, গ্রেণেড এবং কিছু পরিমাণ টাকাও উধাও হয়ে যাবে। তবে তুমি স্থানীয় কালো বাজার থেকে যাবতীয় অস্ত্র, গুলি বক্স, এক্সপ্লোসিভ, ম্যাপ ইত্যাদি কিনতে পারো, যা দ্যা গডফাদার সিরিজের গেমসগুলোতে রয়েছে।

দ্যা মিডনাইট সো (ডাউনলোডেবল প্যাচ – ১৮+ রেটিং মোড):

গেমটির একটি ডাউনলোডেবল প্যাচ রয়েছে যা দ্যা মিডনাইট সো নামে পরিচিত। এটি মাইক্রোসফট উইন্ডোজ এর জন্য আগে থেকেই ডিভিডিতে আলাদা ফোল্ডারে দেওয়া থাকে। তবে প্লে-স্টেশন ৩ এবং এক্সবক্স ৩৬০ এর জন্য আলাদা ২.৯৯ মার্কিন ডলার খরচ করে প্লে-স্টেশন ৩ তে এবং ২৪০ মাইক্রোসফট পয়েন্ট খরচ করে এক্সবক্স এর জন্য খরিদ করা যায়।

এই মোডটিতে রয়েছে এক্সট্রা হাইডিং স্পট এবং হোটেলস। এছাড়াও একটি মিনিগেম রয়েছে যার সাহায্যে গেমটির বিভিন্ন আইটেম খেলে জয় করা যায় যা গেমটিতে পাওয়া কঠিন। তবে এই মোডটি ইন্সটল করলে সকল হোটেলর মহিলারা “টপলেস” হয়ে যাবে!!!

তবে এই নুড অন এবং অফ করা যায় সুইচ এর মাধ্যমে।

গেমটি রিলিজের পর অনেক গেমার অভিযোগ করেন যে গেমটি এটিআই গ্রাফিক্স কার্ডে খেলা যাচ্ছে না। এছাড়াও গেমটি অন্যান্য পিসিতে চালালে পিসি মারাত্মক স্লো হয়ে যেতো। এই সব সমস্যার সমাধান করা হয় ডিসেম্বর ১৯, ২০০৯ সালে রিলিজ কৃত একটি বেটা প্যাচ এর সাহায্যে। এরপর হতে গেমটি খেলতে মিনিমাম Quad Core পিসি দরকার হয়।

গেমটি মুক্তির পর হতে পজিটিভ রিভিউ পেতে থাকে। মেটারিটিক এর জানুয়ারী ২০১০ তে গেমটি ৭৩/১০০ রেটিং পায় এক্সবক্স ৩৬০ এর জন্য।

আইজিএন গেমটিকে ৭.৫/১০ রেটিং দেয় গেমটির সাউন্ড, সাদাকালো রং এর বাহার এবং সিলি গেমপ্লে এর জন্য।

গেমট্রেইলারস গেমটিকে ৭.৬/১০ রেটিং, এক্স-প্লে গেমটিতে ৩/৫ রেটিং দেয়।

ডাউনলোড: (৭.৬ গিগাবাইট)

http://cramit.in/7pdu32dp0lw7

or

http://www.mediafire.com/?sharekey=46cb425e95c5318124a64199ac7f73e5d5af23b1fdbcd22f935cbde7375ca78c

মাফিয়া ৩ আসছে ২০১৫ সালে। তৈরি থাকো!!

www.facebook.com/games.zone.bd

1 টি মন্তব্য
  1. অভি মজুমদার বলেছেন

    ভাই আপনার কি মানুষরে পাগল করা ছাড়া কোন কাজ নাই ? একটাই এখনও খেলার নাম নাই আর বতেগুলো কেমনে হজম করুম । Thanks ……..Thanks…….Thanks

উত্তর দিন