ওডেস্কে কাজ করতে চান? কি শিখবেন? কিভাবে শিখবেন?

3 114

odeskফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে আয় করা এখন যে আর কাল্পনিক কিছু নয় সেটি ইতিমধ্যেই প্রমাণিত হয়েছে।

হাজার হাজার ছেলে মেয়ে এখন ফ্রিল্যান্সিংয়ের সঙ্গে যুক্ত। এ কাজটি করার মাধ্যমে তারা নিজেকে স্বাবলম্বী করে তুলেছে সেই সঙ্গে দেশকেও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পথে। অনলাইনে বেশ কয়েকটি ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম রয়েছে তন্মধ্যে ওডেস্ক রয়েছে সবার উপরে। ওডেস্কে প্রতিদিন বিভিন্ন বিষয়ের উপর হাজার হাজার কাজ জমা পড়ছে। আর সে কাজগুলি করেই বিভিন্ন বিষয়ের দক্ষ ফ্রিল্যান্সারগণ নিজেদেরকে করে তুলেছে অর্থনৈতিকভাবে স্বাধীন। এ কথা থেকে সহজেই অনুমেয় যে ওডেস্কে কাজ পেতে হলে দক্ষতার কোন বিকল্প নেই।কিন্তু এখন প্রশ্ন হচ্ছে আপনি কি কাজ করবেন বা কোন বিষয়ে দক্ষ হবেন। এটি আসলে নির্ভর করে কোন ব্যক্তির কোন বিষয়ের কাজ ‍করার যোগ্যতা রয়েছে। যেমন কোন ব্যক্তি যদি শুধু টাইপিংয়ের কাজ জানে তাহলে তার উচিত হবে ডাটা এন্ট্রির কাজের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করা।তো বন্ধুগণ এমনিভাবে আজ আমরা আলোচনা করব ফ্রিল্যান্সিংয়ের সফল হওয়ার জন্য কী কাজ শিখবেন এবং সেটি কীভাবেই বা শিখবেন?

কাজ পাওয়ার জন্য কী শিখবেন

কাজ পেতে হলে কিছু বিষয় অবশ্যই আপনার আয়ত্তে আনতে হবে। তো চলুন দেখে নেওয়া যাক কী শিখবেন?

● ইংরেজীর গুরুত্ব নিশ্চয় আপনাকে বোঝানো লাগবে না। সুতরাং ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফলতার জন্য ইংরেজী শিখুন।

● ৩) এরপর নিচের যেকোনটা  বেছে নিন , তবে যত বেশি জানবেন ততই লাভ,

ডাটা এন্ট্রির জন্য-অফিস প্যাকেজ, ওয়েব রিসার্চ, আর্টিক্যাল রাইটিং, ইউটিউব ডিটেইলস ইত্যাদি।

গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর জন্য- ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর,কোরেল ড্র, ইনডিজাইন শিখুন।

ওয়েব ডিজাইনিং এর জন্য-ফটোশপ, HTML, CSS, Javascript, JQuery,

ওয়েব ডেভেলপিং এর জন্য-HTML, CSS,পিএইচপি

কনটেন্ট ম্যানেজমেন্টের জন্য – ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা (ব্যাসিক ও আ্যডভান্স)

কাজ কীভাবে শিখবেন, কোথা থেকে শিখবেন?

● অনলাইনে যেকোন কাজ আপনি খুব সহজেই শিখতে পারেন বিভিন্ন টিউটোরিয়ালের মাধ্যমে। টিউটোরিয়াল খুজে পেতে গুগলের সহায়তা নিন।

●  ভিডিও দেখে শিখবেন। ইউটিউব ছাড়াও লিন্ডা ইত্যাদির ভিডিও টিউটোরিয়াল রয়েছে। বাংলায় আল-হেরা মাল্টিমিডিয়ার ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখেও শিখতে পারেন।

কিছু স্যাম্পল কাজ আগেই করে রাখুন

আপনি কোন কাজ করতে পারেন সেটি বায়ারকে শুধু মুখে বললেই তো আর কাজ পাওয়া যাবে না। বরং ঐ ধরনের কিছু কাজ আগে থেকে করে রেডি রাখুন এবং বায়ারকে দেখান। তবে আপনার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। তাছাড়া বাংলা প্রবাদটি তো আপনারও জানা যে “শুকনো কথায় চিড়া ভিজে না”।

কাজ পাওয়ার পূর্বশর্ত

ফ্রিল্যান্সিং ই এখন অনেকের মূল পেশা। আবার অনেকেই রয়েছেন অল্প কিছুদিন কাজ পাওয়ার চেষ্টা করে কাজ না পেয়ে হতাশাগ্রস্থ হয়ে ফ্রিল্যান্সিং-ই ছেড়ে দিয়েছেন।বিপরীতভাবে অনেকেই রয়েছেন যারা ধৈর্যের সাথে নিয়মিত চেষ্টা করে গেছেন এবং পরবর্তীতে কাজও পেয়ে গেছেন। এখন তারাই সফল ফ্রিল্যান্সার। সুতরাং একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিম্নোক্ত কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে।

● আপনাকে আত্মবিশ্বাসী হতে হবে। খুব সহজেই হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়া চলবে না।

● আপনি যে ধরনের কাজ করতে চান সেসব কাজের কিছু স্যাম্পল আগেই তৈরী করে পোর্টফোলিওতে রাখতে হবে।

● আপনার দক্ষতাগুলি প্রকাশ পায় এমনভাবে সুন্দর একটি কাভার লেটার তৈরী করতে হবে।

● আপনি যে ধরনের কাজ করেন সে কাজের নিত্য নতুন ট্রেন্ডের সঙ্গে পরিচিত হতে হবে এবং সেগুলি শিখে আপনার আয়ত্তে রাখতে হবে।

আসুন জেনে নেই ওডেস্ক থেকে কাজ না পাওয়ার কিকি কারন

১। প্রোফাইল কমপ্লিটনেস ১০০% না করা

ওডেস্ক থেকে কাজ পাওয়ার পূর্ব শর্ত হোল প্রোফাইল কমপ্লিটনেস ১০০% করা। আমরা অনেকেই আমাদের প্রোফাইল ১০০% পূর্ণ না করেই জবে বিড করতে শুরু করি ফলে বায়াররা আমাদের শুরুতেই আমাদের অ্যাপ্লিকেশন বাতিল করে দেয়। সে জন্য আপনার প্রোফাইল ১০০% পূর্ণ করুন তারপর জবে বিড করুন।

২। পোর্টফলিও যুক্ত না করা।

আপনি যে বিষয়ে কাজের জন্য বিড করবেন সেই ধরনের একটি কাজ আগে করে আপনার পোর্টফলিওটে যুক্ত করে রাখুন। কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে পোর্টফলিও ভালো ভুমিকা রাখে। এটি ছাড়া অনেক সময় কাজ পেতে দেরি হয়।

৩।স্কিল টেস্ট না দেওয়া।

স্কিল টেস্ট না দিয়ে ওডেস্ক থেকে কাজ পাওয়া একেবারেই অসম্ভব।আমরা ওডেস্ক স্কিল টেস্ট না দিয়েই কাজে বিড করার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ি ফলে আমরা কাজ পাই না। ধরুন আপনি এক্সেলের একটি কাজের জন্য বিড করতে যাচ্ছেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই এক্সেলের উপর স্কিল টেস্ট দিতে হবে ও এভারেজ মার্কস পেয়ে পাস করতে হবে।

৪।কভার লেটার প্রাসাঙ্গিক না হয়া।

কভার লেটার দ্বারাই একজন বায়ার প্রথমেই আকৃষ্ট হয়, তারপর প্রোফাইল চেক করে। আমরা অনেকেই জানি না কিভাবে কভার লেটার লিখতে হয়, ফলে আমরা কাজ উল্টো-পাল্টা কভার লেটার লিখে কাজ পাওয়ার বৃথা চেস্টা করি। কভার লেটার হবে পরিমিত, মার্জিত ও সংক্ষেপ।

আপনি উপরের সমস্যা গুলো সমাধান করতে পারেন তাহলে তাহলে আপনি কাজ পাবেনই।

অনেকে ওডেস্কে কাজ করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন কিন্তু উপরের সমস্যা গুলো কোন ভাবে সমাধান করতে পারছেন না।কিভাবে প্রফাইল ১০০% করতে হবে, কিভাবে স্কিল টেস্টে পাস করতে হবে, কি ভাবে সুন্দর করে কভার লেটার লিখতে হবে,কি ভাবে ওডেস্কে বিড করতে হবে কোন গাইড লাইন পাচ্ছেননা তাদের জন্য নিচের পোস্ট টি পড়ার জন্য  অনুরধ করা হোল।

আগে কাজ করুন, টাকা এমনিতেই পাবেন

আমাদের দেশ থেকে এখন লক্ষ লক্ষ ফ্রিল্যান্সার ওডেস্কে কাজ করছে এবং কোন ঝামেলা ছাড়াই তাদের টাকা হাতে পেয়ে যাচ্ছে। সুতরাং টাকা পাওয়ার ব্যাপারে দুঃচিন্তা না করলেও চলবে। তবে আপনাকে যেটি নিয়ে চিন্তা করতে হবে সেটি হচ্ছে বায়ারের রেটিং এবং কাজটি কিভাবে পাওয়া যায়। কারণ বায়ারের রেটিং ভালো হলে টাকা পাওয়ার ব্যাপারটি নিয়ে বিন্দুমাত্র ঝামেলার আশঙ্কাও নেই। আর কাজটি পেয়ে আপনি সঠিকভাবে করে দিতে পারলে পেওনার, মানিবুকার, চেক, ওয়ার ইত্যাদি অনেক উপায়েই আপনি টাকা তুলতে পারবেন। সুতরাং টাকা কিভাবে পাবেন সে চিন্তা না করে বরং কোন কাজ কীভাবে পাবেন এবং সেটি কীভাবে করবেন সেটি চিন্তা করাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

আমাদের সেবা

আপনি ইচ্ছা করলে আমাদের মাধ্যমেও সেবা পেতে পারেন। যেমন আপনার প্রোফাইল তৈরী করা, প্রোফাইল ১০০% করা, পরীক্ষা দিয়ে দেওয়া, কিভাবে কাজের জন্য সঠি উপায়ে বিড করবেন তা দেখানো এবং আরো । আমাদের সেবা পেতে এখানে ক্লিক করুন প্লিজ।

পূর্বে প্রকাশিত এখান থেকে দেখে নিতে পারেন

3 মন্তব্য
  1. লিটন হাফিজুর বলেছেন

    ভাল লাগল। শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ —

  2. নাঈম প্রধান বলেছেন

    ধন্যবাদ

  3. Simply Apon বলেছেন

    চমৎকার পোস্ট!
    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।।

উত্তর দিন