অনলাইনে যারা কাজ করতে চান তাদের জন্য এই পোস্ট।

3 132

computer-money-internet-transaction-16390684

আপনি কি শুধু টাইপিং করতে জানেন? আপনার কাছে কি ইন্টারনেট কানেকশন যুক্ত কমপিউটার বা ল্যাপটপ আছে? আপনি কি দৈনিক ৩-৪ ঘণ্টা অনলাইনে কাজ করতে ইচ্ছুক?আপনি কি পড়াশোনা বা চাকরির পাশাপাশি কিছু করতে চাচ্ছেন? তাহলে পোস্ট টি ভালো করে পড়ুন ও কাজে নেমে পড়ুন।

আপনার যদি উপরের নুন্নতম যোগ্যতা থাকে তাহলে আপনিও অনলাইনে উপার্জন করতে পারবেন , হয়ে উঠতে পারেন সফল ফ্রিলাঞ্চার দের মধ্য একজন।ইনকাম করতে পারেন প্রতি মাসে ১৫-২০ হাজার টাকা বা তারও বেশি।শুধু মাত্র টাইপিং করে প্রতি মাসে এমন কিছু ফ্রিলাঞ্ছার আছেন যারা ১০০০ ডলার ইনকাম করছেন। আপনিও পারবেন পোস্ট টি ভালো ভাবে পড়ুন ও মনবল অর্জন করুন।

আসুন জেনে নিন শুধু মাত্র টাইপিং যোগ্যতা দ্বারা কি কি কাজ করা যায়

আপনি শুনে হয়ত অবাক হবেন যে বিশ্বে অনলাইনে যত কাজ সম্পন্ন হয় তার ৭০ শতাংশ কাজই টাইপিং।ঘাবড়াবেন না শুধু টাইপিং শক্তি দ্বারাই অনেক দুর এগিয়ে যেতে পারবেন।আসুন এক ঝলক দেখে নিন টাইপিং দ্বারা কি কি কাজ করা যায়

ডাটা এন্ট্রি(ডাটা এন্ট্রির ভিতর অনেক ধরনের কাজ আছে),পারসনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট বা ভারচুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট,ওয়েব রিচার্চ(গগলে সার্চ করা),ব্যাক লিঙ্কিং, ব্লগ কমেন্তিং,ইমেজ আপলোড ডাউনলোড করা, অ্যাড পোষ্ট করা ইত্যাদি।কাজ গুলো খুবই সহজ যা আপনি একটু চেষ্টা করলেই পারবেন।

অনলাইন মার্কেট গুলোতে প্রতিদিন কয়েক লক্ষ ডলারের কাজ সম্পন্ন হয় যার অধিকাংশ কাজই এই ধরনের।

আপনাকে কি করতে হবে?

আপনি যদি অনলাইনে কাজ করার জন্য মানসিক ভাবে প্রস্তুত হয়ে থাকেন তাহলে দুটো কাজ করতে হবে। প্রথম টি হোল মনবল অর্জন করা দ্বিতীয়টি হোল একটি আকর্ষণীয় বায়ো প্রফাইল তৈরি করা।অনলাইনে কোন বায়ার আপনাকে কাজ দেওয়ার আগে আপনার প্রফাইল চেক করে সেজন্য অনলাইনে কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রফাইল বিরাট ভুমিকা রাখে। আপনার প্রফাইলে কে আকর্ষণীয়, চমৎকার ও প্রোফেসনাল করে তুলুন আর কাজে নেমে পড়ুন।

কাজ কোথাই পাবেন?

এখন কাজ করবেন কোথাই?হ্যাঁ,অনলাইনে কাজ করার জন্য বর্তমানে চারটি জনপ্রিয় সাইট আছে Odesk.com,Freelancer.com,Guru.com,Elance.com. এর মাঝে ওডেস্ক সবচেয়ে জনপ্রিয়। কাজের জন্য আরও অনেক সাইট আছে কিন্তু না জেনে যেকোনো সাইটে কাজ করা ঠিক না কারন তাতে প্রতারিত হবার সম্ভাবভনা থাকে।

ওডেস্কে কাজ করা

অনলাইন জব মার্কেটপ্লেস হিসাবে ওডেস্কের অবস্থান শীর্ষে। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা এই মার্কেটপ্লেসটির স্বচ্ছ লেনদেন ও প্রচুর বাহারি কাজের সমাবেশের জন্য জনপ্রিয়তা ক্রমশ আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে।জনপ্রিয় এই এই মার্কেটপ্লেসটির সাথে যুক্ত আছে দশ লাখ কোম্পানি ও পঞ্চাশ লাখ ফ্রিলাঞ্চার।সাম্প্রতি ইলাঞ্চ ও ওডেস্ক এক চুক্তির মাধ্যমে এক হয়ে গেলেও প্রত্যেক সাইট নিজস্ব স্টাইলে কাজ চালিয়ে যেতে থাকবে।ফলে ফ্রিলাঞ্চারদের কাজের জন্য আরও বিশাল বাজার উন্মুক্ত হোল। জনপ্রিয় এই জব মার্কেটপ্লেস(ওডেস্ক)থেকে কাজ পেতে শুরুতে অনেকেরই হিমসিম খেতে হয়। অনেকে কাজ না পেয়ে হতাশ হয়ে আশা ছেড়ে দেয়।আজকের পোস্ট টি তাদের জন্য যারা ওডেস্কে নতুন বা কাজ পাচ্ছেননা।আপনি যদি ওডেস্কে নিচের সমস্যা গুলো সমাধান করতে পারেন তাহলে আপনার কাজ পাওয়ার নিশ্চয়তা শত ভাগ।

 

আসুন জেনে নেই ওডেস্ক থেকে কাজ না পাওয়ার কিকি কারন

১। প্রোফাইল কমপ্লিটনেস ১০০% না করা

ওডেস্ক থেকে কাজ পাওয়ার পূর্ব শর্ত হোল প্রোফাইল কমপ্লিটনেস ১০০% করা। আমরা অনেকেই আমাদের প্রোফাইল ১০০% পূর্ণ না করেই জবে বিড করতে শুরু করি ফলে বায়াররা আমাদের শুরুতেই আমাদের অ্যাপ্লিকেশন বাতিল করে দেয়। সে জন্য আপনার প্রোফাইল ১০০% পূর্ণ করুন তারপর জবে বিড করুন।

২। পোর্টফলিও যুক্ত না করা।

আপনি যে বিষয়ে কাজের জন্য বিড করবেন সেই ধরনের একটি কাজ আগে করে আপনার পোর্টফলিওটে যুক্ত করে রাখুন। কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে পোর্টফলিও ভালো ভুমিকা রাখে। এটি ছাড়া অনেক সময় কাজ পেতে দেরি হয়।

৩।স্কিল টেস্ট না দেওয়া।

স্কিল টেস্ট না দিয়ে ওডেস্ক থেকে কাজ পাওয়া একেবারেই অসম্ভব।আমরা ওডেস্ক স্কিল টেস্ট না দিয়েই কাজে বিড করার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ি ফলে আমরা কাজ পাই না। ধরুন আপনি এক্সেলের একটি কাজের জন্য বিড করতে যাচ্ছেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই এক্সেলের উপর স্কিল টেস্ট দিতে হবে ও এভারেজ মার্কস পেয়ে পাস করতে হবে।

৪।কভার লেটার প্রাসাঙ্গিক না হয়া।

কভার লেটার দ্বারাই একজন বায়ার প্রথমেই আকৃষ্ট হয়, তারপর প্রোফাইল চেক করে। আমরা অনেকেই জানি না কিভাবে কভার লেটার লিখতে হয়, ফলে আমরা কাজ উল্টো-পাল্টা কভার লেটার লিখে কাজ পাওয়ার বৃথা চেস্টা করি। কভার লেটার হবে পরিমিত, মার্জিত ও সংক্ষেপ।

আপনি উপরের সমস্যা গুলো সমাধান করতে পারেন তাহলে তাহলে আপনি কাজ পাবেনই।

অনেকে ওডেস্কে কাজ করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন কিন্তু উপরের সমস্যা গুলো কোন ভাবে সমাধান করতে পারছেন না।কিভাবে প্রফাইল ১০০% করতে হবে, কিভাবে স্কিল টেস্টে পাস করতে হবে, কি ভাবে সুন্দর করে কভার লেটার লিখতে হবে,কি ভাবে ওডেস্কে বিড করতে হবে কোন গাইড লাইন পাচ্ছেননা তাদের জন্য নিচের পোস্ট টি পড়ার জন্য  অনুরধ করা হোল।

পোস্টটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

3 মন্তব্য
  1. নাঈম প্রধান বলেছেন

    খুবই সুন্দর পোস্ট । শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ ।

  2. হামিদ খান বলেছেন

    ধন্যবাদ, কাজের বিষয়গুলো তুলে ধরার জন্য

  3. Simply Apon বলেছেন

    খুব সুন্দর করে তুলে ধরেছেন!
    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ!

উত্তর দিন