যেকোনো মডেমেই ওয়াইফাই চালু

6 92

আগে একটি মডেমেই একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ব্যবহার করা হতো কিন্তু এখন ওই একটি যেকোন মডেমেই ওয়াইফাই চালু করতে পারবেন খুব সহজেই। তাই যেকোন ব্রান্ডের মডেমকে ওয়াইফাই চালু করে একাধিক ডেস্কটপ, ল্যাপটপ বা মোবাইল চালানো যায়।

‘কানেক্টিফাই-মি’ হটস্পট নামের একটি সফটওয়্যার দিয়ে নিজের ডিভাইসকে হটস্পট বানিয়ে খুব সহজে নিজের যেকোন মডেমকে ইন্টারনেট কানেকশন শেয়ার করা যায়।

কোন ওয়াইফাই সংযোগের হটস্পট বলতে বোঝায় ওই সংযোগ কতটুকু জায়গায় কার্যকর। উদাহরণ হিসেবে ধরা যেতে পারে মোবাইল ফোন। যদি মোবাইল নেটওয়ার্কের আওতায় থাকা হয় তাহলে আপনি সহজেই ফোন কল করতে পারবেন, মেসেজ পাঠাতে পারবেন। কিন্তু যেখানে নেটওয়ার্ক নেই সেখান থেকে কিছুই করার থাকবে না।

এখানে মোবাইল ফোনের জন্য ব্যবহৃত নেটওয়ার্ককে ওয়াইফাই হটস্পটের সঙ্গে তুলনা করা যায়। কোনো ওয়াইফাই রাউটারের মাধ্যমে প্রেরিত রেডিও তরঙ্গ যতটুকু জায়গা জুড়ে বিস্তৃত, ঠিক ততটুকু জায়গার মধ্যে থাকলে ওই সংযোগ উপভোগ করা যাবে।

মূল নেটওয়ার্কে এ শাখা বিস্তৃতকেই প্রযুক্তির ভাষায় ‘হটস্পট’ বলে। অর্থাৎ সফটওয়্যারটি ইন্টারনেট সংযোগকে বিস্তৃত করে একাধিক ডিভাইসের সঙ্গে ডাটা শেয়ার করে। হোস্ট ডিভাইসের ঠিক করে দেওয়া ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড অনুসরণ করে গেস্ট ডিভাইগুলোও তখন ওই সংযোগের আওতায় চলে আসে।

এ মুহূর্তে দেশের বাজারে তিনটি ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেট অপারেটর বাংলালায়ন, কিউবি ও ওলো গ্রাহকদের জন্য উচ্চমূল্যে আলাদা ওয়াইফাই রাউটার বিক্রি করছে। তবে এখন থেকে আলাদা করে এসব সংযোগের প্রয়োজন হবে না।

যেকোনো মোবাইল অপারেটর অথবা ইন্টারনেট অপারেটরেরা সাধারণ মডেমে সফটওয়ারটি ইন্সটল দিয়েই এখন ওয়াইফাই জোন তৈরি করে একাধিক ডিভাইসে ইন্টারনেট ব্যবহার করা সম্ভব।

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হওয়া সফটওয়্যারটি ২০১১ সালে বিশ্বজুড়ে ব্যাপক সাড়া তোলে। বিজ্ঞাপন ছাড়াই ২ বছরের মাথায় ১০ লাখের বেশি ডাউনলোড হয় এ সফটওয়্যার।

এ ধরনের সফটওয়্যারটি দিয়ে নিজের পছন্দসই যেকোনো নামে ওয়াইফাই জোন তৈরি করতে পারবেন। চাইলে পাসওয়ার্ড দিয়ে লক করে যাবে হটস্পট। আপনি দেখতে পারবেন কে কে আপনার হটস্পট থেকে কানেকশন নিয়েছে, কী পরিমাণ ব্যান্ডউইথ খরচ হয়েছে কিংবা কী পরিমাণ আপলোড-ডাউনলোড হয়েছে এসব তথ্যই।

যারা নিজের ডেস্কটপ কিংবা ল্যাপটপকে ইন্টারনেট সার্ভার বানাতে চান তারা নিচের দেওয়া ধাপে কাজগুলো করুন। কাজটি খুবই সহজ। প্রথমে (http://www.connectify.me/download) এ লিঙ্কে গিয়ে সফটওয়্যারটি ইন্সটল করতে হবে।

ইন্সটলের পর সফটওয়্যারের সেটিংস অপশনে গিয়ে পছন্দমত হটস্পট নেম দিতে হবে। এর ঠিক নিচেই সেট করতে হবে পাসওয়ার্ড। পাসওয়ার্ডের নিচে ইন্টারনেট টু শেয়ার অপশনে গিয়ে নিজের মডেমটি বাছাই করতে হবে যেমন গ্রামীণফোন থ্রিজি।

এরপর এডভান্স সেটিংয়ে শেয়ার ওভার অপশনে গিয়ে ‘ওয়াইফাই’ বাছাই করতে হবে। শেয়ারিং মোড অপশনেও ওয়াইফাই অপশন বাছাই করে ‘এলাও ইন্টারনেট এক্সেস’ ও ‘এলাও লোকাল নেটওয়ার্ক এক্সেস’ এর ঘরে চেকমার্ক দিতে হবে।

তারপর স্টার্ট হটস্পট বোতামে চাপ দিলে চালু হয়ে যাবে ওয়াইফাই হটস্পট। নিজের মোবাইল কিংবা ল্যাপটপে ওয়াইফাই অপশন চালু করলে হটস্পটের জন্য ঠিক করা ইউজার নেম প্রদর্শিত হবে। নির্দিষ্ট পাসওয়ার্ড দিয়ে খুব সহজেই যেকোনো মডেম দিয়েই তৈরি করা যাবে পার্সোনাল ওয়াইফাই জোন।

বিস্তারিত আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন।

6 মন্তব্য
  1. Nafiz Ur Rahman বলেছেন

    ভাই ডাউনলোড হই না তো

  2. হামিদ খান বলেছেন

    একদম অজানা বিষয় জানালেন, ধন্যবাদ ভাই

  3. দিপু রায়হান বলেছেন

    ধন্যবাদ।

  4. নাঈম প্রধান বলেছেন

    খুবই সুন্দর পোস্ট । শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

  5. Ashraf Khan বলেছেন

    আমার গ্রামীণ মডেমে কিভাবে ব্যালেন্স/মেগাবাইট চেক করতে পারি পিসিতে লাগানো অবস্থায়।

  6. মোঃ আসলাম পারভেজ বলেছেন

    জানি না কাজ হবে কি ? ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য ।

উত্তর দিন