অক্টোবরেই শুরু বাংলালিংক গ্রামীণফোন টেলিটক এয়ারটেল ও রবির থ্রিজি যুদ্ধ

4 122

অক্টোবরের ভিতরেই অক্টোবরেই শুরু বাংলালিংক গ্রামীণফোন টেলিটক এয়ারটেল ও রবির থ্রিজি যুদ্ধ শুরু হয়ে যাবে বাংলাদেশে
মোবাইল অপারেটর বাংলালিংক গ্রামীণফোন টেলিটক এয়ারটেল ও রবির থ্রিজি যুদ্ধের আগে গ্রাহকদের বিভ্রান্ত না হতে অনুরোধ জানালেন জনপ্রিয় বাংলা ব্লগার জ্বনাব মামুন বিল্লাহ্ ।
মামুন বিল্লাহ পিসিহেল্পলাইনবিডি ডটকমকে বলেনঃ
থ্রিজি নিয়ে বিভ্রান্ত হবার আগেই কিছু টার্ম ক্লিয়ার
হওয়া দরকার
# ২জি আর থ্রিজির ইন্টারনেট
কি একই রকম ?
-না টুজি থ্রিজির অভিজ্ঞতা এক
না কারণ ২জি মুলত ভয়েস মানে কল
করার ব্যাপারটার উপরে ডিজাইন
করা হয়েছে মানে এখানে কথা বলাটাকে
গুরুত্ব দিয়ে নেটওয়ার্ক ডিজাইন
করা হয়েছে আর
ডাটা সার্ভিসকে একদমই কম গুরুত্ব
দেওয়া হয়েছে এজন্য
২জিতে ডাটা অভিজ্ঞতা বাজে ,নেটওয়া
এক্সপার্টরা বলে ২জিতে ডাটা সার্
অনেক ব্যয়বহুল এজন্য
অপারেটররা এতটা আগ্রহী হয়না ।
আমাদের কথাই ধরুন জিপি ভয়েস
সার্ভিসে অতুলনীয় কিন্তু
ডাটাতে জিপির অবস্হা খারাপ আর
বাকীরাতো এক প্রকার ভয়েই বড়
আকারে ডাটা সার্ভিসে প্রবেশই
করেনি
আর থ্রিজি পুরোপুরি ডাটা সার্ভিস
মানে ইন্টারনেট কে অগ্রাধিকার
দিয়ে ডিজাইন করা হয়েছে এজন্য
২জিতে যেখানে সর্বোচ্চ ৩৮৪ kbps
পর্যন্ত স্পিড পাওয়া সম্ভব
সেখানে থ্রিজিতে ২১mbps
বা হায়ার থ্রিজিতে ১০০ এমবিপিএস
স্পিড পাওয়াও সম্ভব । মানে টু জির
ডাটা অভিজ্ঞতা আর থ্রিজির
ডাটা অভিজ্ঞতা আকাশ পাতাল
প্রার্থক্য । যারা অন্তত টেলিটক
ইউজ করেছেন তারা বলতে পারবেন
উপরের কথাগুলো সত্য কিনা ।
আমি টেলিটক থ্রিজিতে ৫১২
স্পিডের প্যাকেজ ইউজ
করে পুরো স্পিড
পেয়েছি সেটা নিশ্চয় একটা নতুন
অভিজ্ঞতা পেয়েছি যেটা টু
জিতে সম্ভব না
সুতরাং অযথা ২জির
সাথে থ্রিজি মিলাবেন
না দয়া করে ২জিতে আমরা যে ধরনের
ভয়েস কলের উপরে পাচটা অপারেটর এর
প্রতিযোগীতা দেখিছি এখন সেটাই
থ্রিজিতে ডাটা সার্ভিস নিয়ে হবে
# আমরা তাহলে কি ধরনের সার্ভিস
পাবো ?
না টেকনলজি মাত্র
মার্কেটে আসছে দাম এবং স্পিড
স্ট্যাবল হতে সময়
নিবে আপনি যদি আজকেই আশা করেন দশ
এমবি একশো এমবি স্পিড পাবেন
তাহলে আপনি বোকা ,২জির চেয়ে চার
পাচগুণ বেশি স্পিড
দিয়ে হয়তো দেশে থ্রিজি শুরু
হবে এবং আস্তে আস্তে এটা উপরে উঠত
তিন বছর পরে আপনি আট দশ
এমবি স্পিড পাবেন অথবা তার চেয়েও
বেশি । স্পিড
কতটা বেশি হবে তা কিন্তু সরকারের
উপরও নির্ভর করে ।
অনেকে ভাবছে কোন কোন অপারেটর
অধিক মুল্যে ডাটা সার্ভিস চালু
করবে এটাও অনেক কঠিন কারণ
মার্কেটে পাচটা অপারেটর
একসাথে থ্রিজি চালু করবে কেউ
অধিক মুল্য রাখলে নিশ্চয় গ্রাহক
খোজে পাবেনা । ২জির ভয়েস কলের
কথাই ধরুন অপারেটরগুলো কিন্তু
প্রতিযোগীতা করে অণেক কমেই কল
রেট রেখেছে এবং কেউই কিন্তু
বেশি কলরেট রাখতে পারছেনা কারণ
প্রতিযোগীতা এই ২জির ভয়েস
প্রতিযোগীতাটাই এখন শুরু
হবে ডাটা সাভিসে তাই চাইলেই
জিপির মতো অপারেটররা আকাশ পাতাল
দাম রাখতে পারবেনা কারণ মার্কেট
অনেক প্রতিযোগীতা পূর্ণ
হয়তো প্রথমদিকে কেউ কেউ
উচ্চমুল্য রাখবে কিন্তু সেটা খুব
দ্রুতই কমে আসবে তবে কেউ কেউ
যদি ৫০০ টাকায় আনলিমিটেড
একশো এমবি আশা করেন তাহলে আপনার
স্বপ্ন কখনোই পূরণ হবেনা এ ধরনের
আজগুবি স্বপ্ন আপাতত বাস্তবয়নের
সুযোগ কম ।
অনেক জ্ঞানগর্ভ কথা বলে ফেললাম
থ্রিজি ইউজ না করে আর টার্ম
না বুঝে দয়া করে কথা বলবেন
না শুরু হোক ডাটার যুদ্ধ

এক নজর দেখে নিন ইন্টারনেটের সকল ব্যান্ডের গুরুত্বপূর্ন তথ্য
2G = GSM
2.5G = GPRS
2.75G = EDGE
3G = WCDMA, UMTS (384kbps)
3.5G = HSDPA (7.2-14mbps),
HSUPA
(1.4-5.8mbps)
3.75G = HSPA (combination of
HSDPA and
HSUPA) [21-28mbps]
3.8G = HSPA+ (HSPA
Enhancements)
3.85G = ‘HSPA+’ + MIMO
3.9G(Pre-4G)= HSPA+ (168mbps),
HSOPA
(320mbps)
4G = LTE
Let’s see in real which network
we can use

4 মন্তব্য
  1. দিপু রায়হান বলেছেন

    ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

  2. আকাশ বলেছেন

    আকর্ষণীয় পোস্ট উপহার দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।

  3. Nafiz Ur Rahman বলেছেন

    পোস্টটি শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ

  4. নাঈম প্রধান বলেছেন

    শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

উত্তর দিন