আসুন চলতি সমায়ের জনপ্রিয় একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল এর সাথে পরিচিত হই

6 98

চমৎকার ট্যাব Android Tablet PC যা গোটা চাইনিজ ট্যাব জগতে একটি ভালো অবস্থান করে নিয়েছে। দেখে নেয়া যাক কী আছে এই ট্যাবে
z1unxLOb
এই ট্যাবটি অন্য সবগুলো ট্যাব থেকে আলাদা এর বিল্ড কোয়ালিটির কারণে। অসাধারণ বডি, ডিজাইন, ফিচার ও পারফরম্যান্সের কারণে এই ট্যাবটি এখন বিশ্বের চাইনিজ ট্যাব জগতে শীর্ষ ট্যাবগুলোর তালিকায় চলে এসেছে।এন্ড্রুরাইড  তারা এই ট্যাবটিকে আইপ্যাড মিনির প্রতিযোগী হিসেবে এর সাথে তুলনা করছে। এমনকি তাদের দাবী এই ট্যাবে তারা আইপ্যাড মিনিরই ক্যামেরা ব্যবহার করেছে। এছাড়া পারফরম্যান্সের দিক দিয়েও ট্যাবটি নজর কাড়তে সক্ষম।
ডিভাইসটি হাতে নেয়ার পূর্বেই এটি যেকোন মানুষের নজর কাড়তে সক্ষম শুধুমাত্র এর অসাধারণ বিল্ড কোয়ালিটির ডিজাইনের কারণে।
7OtnOoAE

এছাড়া ট্যাবটির পুরুত্বও বেশ কম। স্লিম, টেকশই ও স্টাইলিশ ডিজাইনের জন্য ট্যাবটিকে ৫ এর মাঝে ৫ ই দেয়া যায়।ট্যাবটিতে রয়েছে ১.৬ গিগাহার্জ ডুয়েল কোর প্রসেসর।১৬ জিবি ইনটারনাল মেমোরী।৯.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে।১.৬ জিবি র‍্যাম।যা আপনাকে অতাত্ন দ্রুত গতিতে কাজ করতে সাহায্য করবে।এই ট্যাবটিতে রয়েছে পিওর আইপিএস ডিসপ্লে যার রেজুলেশন ১০২৪*৭৬৮ পিক্সেল। রেজুলেশন

এতে 4K এইচডিএমআই পোর্টও রয়েছে ফলে সর্বোচ্চ ৪০৯৬*২৩০৪ রেজুলেশনের ছবি বা ভিডিও আপনি যেকোন বড় স্ক্রিনেও এইচডিএমআই ক্যাবলের সাহায্যে দেখতে পারবেন কোন ল্যাগ ছাড়াই।

তাছাড়া এর ডিসপ্লে ব্রাইটনেসও খুব ভালো। রোদের মাঝেও ডিসপ্লেতে সবকিছুই দেখা যায়। আর এর ভিউইং অ্যাংগেলও ১৮০ ডিগ্রি, অর্থাৎ যেকোন দিক থেকেই ট্যাবটির ডিসপ্লেতে সব পরিস্কারভাবে দেখা যায়। অপরদিকে টাচ রেসপন্সও অসাধারণ। ডিসপ্লে রেটিং এর দিক দিয়ে একে ৫ এ ৪ দেয়া যায়।

এখনকার তরুণ প্রজন্ম ট্যাবলেট-এ যেসব কাজ করে থাকে তার মাঝে গেমিং অন্যতম। আর এই ট্যাবটি এখন পর্যন্ত আমাদের হাতে আসা ট্যাবগুলোর মাঝে সবচেয়ে বেশি গেমিং উপযোগী।
গেমিং টেস্টের জন্য বরাবরের মত এবারও আমরা ট্যাবটিতে সকোল 3d গেইম সাপোট দিবে। এবং মর্ডান কমব্যাটের মত হাই গ্রাফিক্সের গেম ফুল গ্রাফিক্সে টেস্ট করে দেখেছ। কারন এসব গেম খেলার জন্য ডিভাইসগুলোর র‍্যম, সিপিইউ ও জিপিইউকে প্রচুর পরিমাণ কাজ করতে হয় যা ট্যাবের মূল পারফরম্যান্সকে বের করে আনে।
অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস কেনার আগে সবাই যে বিষয়গুলো লক্ষ্য করে তার মাঝে ব্যাটারি ব্যাকআপ অন্যতম। ব্যাটারি ব্যাকআপ এর দিক দিয়ে ট্যাবটিকে বেশ ভালই বলা চলে। কারণ এতে রয়েছে ৮০০০ এমএএইচ এর শক্তিশালী ব্যাটারি যা নেট ব্রাউজিং সহ সাধারণ ব্যবহারে ট্যাবটিকে ৮ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকআপ দিতে পারে।

ট্যাবটি কেনার সিদ্ধান্তের সময় প্রথমেই যেটা মাথায় আসে সেটি হলো এর দাম। যেটা নিয়ে ভাবার কিছু নেই একদম আপনার হাতের নাগালে মাত্র ২৪,০০০ টাকা। অঙ্কটা বড় মনে হলেও আসলে ফিচার তুলনায় অনেক কম।

সবগুলো হ্যান্ডস-অন রিভিউতেই আমি চেষ্টা করবো ডিভাইসগুলোর প্রায় সবকিছুই তুলে ধরতে। এই ট্যাবটির ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নয়। তারপরও যদি কিছু বাদ পড়ে কিংবা আরও কিছু যদি জানতে চান তাহলে একটু সময় করে একবার ঘুরে আসুন  এই লিংক  থেকে। পুরো রিভিউ দেখার পর ট্যাবটি কিনবেন কি কিনবেন না সেই সিদ্ধান্ত জানাতেও ভুলবেন না।

-Otnvg1y

6 মন্তব্য
  1. আকাশ বলেছেন

    চমৎকার পোস্ট! শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

  2. নাঈম প্রধান বলেছেন

    শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

  3. হামিদ খান বলেছেন

    Thanks for share

  4. স্বপ্নহীন জাহিদ বলেছেন

    ধন্যবাদ আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

  5. অভি মজুমদার বলেছেন

    Thanks for shear

  6. লিটন হাফিজুর বলেছেন

    প্রথম পোসটে সাগতম।ধন্যবাদ।

উত্তর দিন