জেনে নিন বিভিন্ন ওয়েব সার্ভার এররের সম্পূর্ণ অর্থ

3 95

বিছমিল্লাহির রাহমানির রাহীম

আজ আমি আপনাদের কাছে ইন্টারনেটের বিভিন্ন bad sector গুলোর পরিচয় দিব।আমরা ইন্টারনেট চালানো সময় অনেক সময় দেখা যায় ইন্টারনেটে কিছু bad sector  পড়ে ।হার্ডডিস্কে সাধারণত দুই ধরনের বেড সেক্টর পড়তে পারে৷ একটি Logical bad sector অন্যটি Physical bad sector৷ যদি হার্ড ডিক্স রীতিমতো স্ক্যান ও ডিফ্রাগমেনিক করা না হয় তবে হার্ডডিস্কের সিলিন্ডারের সেক্টর সমূহ পরস্পরের মধ্যকার লিংক হারিয়ে ফেলে৷ এতে করে ডাটা উদ্ধার অত্যন্ত জটিল হয়ে পড়ে এবং ডাটা সেন্ডিং স্পিড কমে যায়- এক কথায় বলতে গেলে সেক্টর এড্রেসগুলো এলোমেলো হয়ে যায়৷ এ অবস্থাকে বলে Fragmentation৷ এ অবস্থায় আরো বেশি দিন চললে হার্ডডিস্কে লজিক্যাল ব্যাড সেক্টর পড়তে পারে এমনকি Hard disk Crash ও করতে পারে৷ নিয়মিত Scandisk, defragmenter চালানোর মাধ্যমে হার্ডডিস্ককে logical bad sector হতে রক্ষা করা যায়৷ এমনকি logical bad sector পড়লে Hard disk-এর ঐ ড্রাইভকে ফরম্যাট করলে logical bad sector দুর হবে৷ আর চলতে চলতে হঠাত্‍ বন্ধ বা পাওয়ার অফ হলে Read write head টি হঠাত্‍ ঘূর্ণায়মান সিলিন্ডারে উপর পড়ে ডিস্ক এ স্ক্যাচ ফেলতে পারে কিংবা অতিরিক্ত নাড়া চাড়া কিংবা পরিবহনের সময় ঝাঁকুনি হার্ডডিস্কের সিলিন্ডার আঘাতপ্রাপ্ত হতে পারে বা হার্ডডিক্স পড়ে গেলে সিলিন্ডার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে৷ এভাবে সিলিন্ডারে ফিজিক্যালি বেড সেক্টর পড়তে পারে৷ হার্ডডিস্ক কে সাবধানে হ্যান্ডেলিং করার মাধ্যমে একমাত্র এটিকে রোধ করা সম্ভব৷ অসাবধানতা বশত যদি বেড সেক্টর পড়েই যায় তাহলে তা কোন অংশে পড়েছে স্ক্যানডিস্কের মাধ্যমে অনুমান সেই অংশটুকু করে Partition magic সফটওয়্যারের মাধ্যমে সেই অংশটুকু unallocated রেখে বাকি অংশ পার্টিশন করুন৷ তবে ঐ অংশে Bad sector আর বাড়বে না ও বিরক্তও করবে না৷ এই  bad sector  গুলোর কারণে অনেক সময় ইন্টারনেটের কাজের গতি কমিয়ে ফেলে ।আবার অনেক সময় ইন্টারনেট  disconnect  হয়ে যায়। এই রকম হলে তখন ইচ্ছে হয় কম্পিউটার বা মোবাইল ভে্ঙ্গে ফেলি।কিন্তু এত স্বাধের মোবাইল,কম্পিউটার ভাঙতে কার ইচ্ছে করে ।এসব কথা থাক । তাহলে আসুন দেখে নিই ইন্টারনেটের সেই  bad sector  গুলোর  পরিচয়।

bad sector

 

 

Bad sector of Internet

 

502 Bad Gateway :

1

 

 

 

 

 

 

 

এটি দিয়ে বোঝানো হয়, নির্দিষ্ট ওই সার্ভার প্রক্সি বা গেটওয়ে হিসেবে চলছিল। ডাউন স্ট্রিমে ত্রুটিপূর্ণ
সাড়া পেয়েছে।

413 Request Entity Too Large:

 

2

 

 

 

ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি পরিমাণ অনুরোধ সার্ভারে পাঠানো হয়েছে।

204 No Content:

সার্ভারে কোনো উপাদান (কন্টেন্ট) পাওয়া যায়নি।

203 Non-Authoritative ve Information (since HTTP/1.1) :

 

4

 

 

 

 

সার্ভার যে তথ্য দিচ্ছে, তা অন্য কোনো সূত্র থেকে আসছে।

403 Forbidden:

6

 

 

 

 

 

সার্ভার অনুরোধ গ্রহণ করেনি।

400 Bad Request:

error

 

 

 

 

 

 

 

অনুরোধ যথাযথ প্রক্রিয়ায় করা হয়নি।

404 not Found:

parental_control

 

বর্তমানে পাওয়া যাচ্ছে না, তবে পরে পাওয়া যেতে পারে।

410 Gone:

 

410 gone

 

 

 

বর্তমানে পাওয়া যায়নি এবং পরেও পাওয়া যাবে না।

408 Request Timeout:

request timeout

 

 

 

 

 

 

 

অনুরোধ করে সার্ভারের সাড়া পাওয়ার সময় অতিক্রান্ত হয়ে গেছে।

 

এছাড়াও আরও অনেকগুলো আছে । ইন্টারনেটের সবগুলো bad sector গুলোর বিবরণ বিস্তারিত জানতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন 

কেমন লাগল আমার পোস্টটি ।নিশ্চই অনেক কিছু জানতে পেরেছেন ।সবাই ভালো থাকবেন।

আল্লাহ হাফেজ ।

fb

================================================================

                                          আমার একটি পেইজ আছে আপনাদের সময় থাকলে দেখিয়েন

                                 https://www.facebook.com/IsalamaDharmaSabaraSera

======================================================

3 মন্তব্য
  1. নাঈম প্রধান বলেছেন

    শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

  2. Nafiz Ur Rahman বলেছেন

    ধন্যবাদ।

  3. আকাশ বলেছেন

    চমৎকার পোস্ট! পোস্টটি উপহার দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 🙂

উত্তর দিন