ব্যাকলিংক কি কেন এবং পাওয়ার উপায়।অফ পেজ অপটিমাইজেশন।”SEO টিউটোরিয়াল”পর্ব [৭]

4 203
This entry is part 10 of 18 in the series এসইও | Search Engine Optimization

আজ আমি আপনাদেরকে সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন এর অফ পেজ অপটিমাইজেশনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় “ব্যাকলিংক” নিয়ে আলোচনা করবো।জানবো ব্যাকলিংক কাকে বলে,কেন ব্যাকলিংক এর প্রয়োজন ও কিভাবে পাবেন আপনার সাইটের জন্য ব্যাকলিংক তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করি আজকের পোস্ট ।

ব্যাকলিংক কি

ব্যাকলিংক এর মানে হলো একটি সাইট থেকে আপনার সাইটের জন্য লিংক পাওয়া।মনে করুন আপনার একটি ওয়েব সাইট আছে এবং সেই সাইটের লিংকটি আপনি অন্য একটি সাইটে রাখলেন।তাহলে আপনি আপনার সাইটের জন্য একটি ব্যাকলিংক পাবেন সেই সাইট থেকে যেখানে আপনি আপনার সাইটের লিংক দিয়েছিলেন।

আপনার সাইট যদি A হয় এবং আপনি যে সাইটে আপনার সাইটের লিংকটি দিবেন সেটি যদি B হয় তাহলে ব্যাকলিং হিসাবে বলতে গেলে আপনি B সাইট থেকে একটি ব্যাকলিংক পেলেন।এভাবে আপনি আপনার সাইটের লিংক যতগুলো সাইটে দিবেন আপনি ততো ব্যাকলিংক পাবেন।আর সার্চ ইন্জিন অপটিমাজেশন এ এটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসাবে ধরা হয়।

অর্থ্যাৎ আমরা এক কথায় বলতে পারি যে’অন্য সাইট থেকে আমরা আমাদের নিজেদের সাইটে যে ইনকামিং লিংক পাই তাকে ব্যাকলিংক বলে”

কেন এই ব্যাকলিংক

ব্যাকলিংক এর কথা মনে পড়লেই আমার মনে পড়ে আমাদের দেশের বড় বড় নেতাদের কথা,কি অবাক হচ্ছেন আমার কথা শুনে?আমি ব্যাকলিংক এর প্রয়োজনীয়তার কথা বললেই সবাকেই এই নেতাদের সাথে তুলনা করতে বলি।কিভাবে?

লোকবল সবচেয়ে বড় বল।মনে করুন আপনার অনেক টাকা পয়সা আছে কিন্তু কাজ করার জন্য কোন লোকেই আপনি পেলেন না তাহলে কি টাকা পয়সার কোন মুল্য আছে? না নেই।সেভাবেই একজন প্রভাবশালী নেতাও কিন্তু একা কোন মূল্য নেই।দেখবেন যে সে সবসময় চায় তার অনেক অনেক সাঙ্গ-পাঙ্গ ( লোকবল :) ) থাকুক।কেননা লোকবল যত বেশি হবে তার ক্ষমতার প্রভাবও ততো বেশি হবে।ফলে সে সব জায়গায় সে তার প্রভাব আরো বেশি করে খাটাতে পারবে।কিংবা যখন সে কোন কাজ করতে যাবে তখন যদি তার পক্ষেই সবাই ভোট বা সম্মতি দেয় তাহলে তার কাজ ও গ্রহনযোগ্যতাও অনেকাংশে বাড়বে।অতএবে সে বনে যাবে একজন পাওয়ার ফুল ম্যান হিসাবে

সার্চ ইন্জিন এর কাছে ব্যাকলিংক ও তেমনি।একটি সাইটের গুরুত্ব ও গ্রহনযোগ্যতা বাড়াতে ব্যাকলিংক বড়ানোর কোন বিকল্পই হয় না।এক একটি ব্যাকলিংক আপনার জন্য ভোট স্বরূপ।এর জন্য সার্চ ইন্জিন সবসময় খুজে বেড়ায় কোন সাইটের ব্যাকলিংক বেশি।কেননা আপনি ও হয়তো কখনো চাইবেন না একজন অযোগ্য প্রার্থীকে একটি গুরুত্বপূর্ণ আসনে বসাতে।এর জন্য সার্চ ইন্জিন ও তাদের প্রথম পেজটির জন্য বেশি গুরুত্ব দেয় ব্যাকলিংককে।

আর গুগল এই গুরুত্বকে সবার সামনে প্রকাশ করার জন্যই ব্যাবস্থা রেখেছে PageRank এর।পেজরেংক এর মাধ্যেম গুগল প্রকাশ করে যে ওয়েবসাইটটির গুরুত্ব বা রেংক কতটুকু।

অতএবে এ থেকে প্রমাণিত হয় যে আপনার পেজ রেংক বাড়ানোর জন্য ও সবচেয়ে দরকার ব্যাকলিংক বাড়ানো।

আবার মনে করুন একজন মানুষের পিছনে ১০০ লোক আছে।এর মধ্যে ৬০ জনই হল অন্ধ,বোবা, খোড়া ইত্যাদি।তাহলে কি হলো? তার কি ১০০ জন মানুষের কাজ ঐ লোক গুলো দিয়ে করা সম্ভব?কখনোই না।কারণ ১০০ জন লোক থাকলে ও তাদের জোর ও ক্ষমতা ২০ পরিপূরণ মানুষের সমান।তাছাড়া কোন কম্পানীও কিন্তু এমন অযোগ্য প্রথীকে কোন বড় পদে নিয়োগ দেয় না।
সার্চ ইন্জিন ও তার ব্যাতিক্রম নয়।আপনার হয়তো ১০০ টি ব্যাকলিংক আছে।কিন্তু আপনি যে পেজ থেকে আপনি ব্যাকলিংক পেয়েছেন সেগুলো যদি সার্চ ইন্জিনের কাছে কোন গুরুত্ব নাই থাকে তাহলে সেই ১০০টি ব্যাকলিং দিয়ে কোন লাভ নেই।সেগুলো হবে ভালো ভালো ২০টি ব্যাক লিংকের সমান।এমন আছে যে আপনার ১ টি PR 5-9 ব্যাকলিংকই পেজরেংক শূন্য ১০০টি ব্যাকলিংক এর সমান।

তাই যেন তেন বা মূল্যহীন ব্যাকলিংক বাড়ানোর জন্য অযথা সময় নষ্ট করবেন না ।সময় দিন এমন ব্যাকলিংক পেতে যেখান থেকে আপনি নিশ্চিত সুফল পাবেন। যদিও একটু বেশি সময় বা কষ্ট হয় তার পর ও আপনি চেষ্টা করে যাবেন।

আশা করি আপনারা সহজেই বুঝতে পারলেন যে ব্যাকলিংক কতটা গুরুত্বপূর্ণ।তাই সবসময় চেষ্টা করুন অন পেজ অপটিমাইজেশনের সাথে সাথে ব্যাকলিংক ও বড়ান সমান ভাব।প্রতেহ্য রুটিনের সাথে ২০-৩০ মিনিট বা তার ও বেশি সময় দিন শুধুমাত্র ব্যাকলিংক বাড়ানোর জন্য।
সময় ভাগ করে কার করুন অনপেজ অপটমাজেশন ও অফপেজ অপটিমাইজেশন নিয়ে।সাফল্য আপনার হাতে আসবেই আসবে।

কিভাবে পাবেন ব্যাকলিংক

ইন্টারনেট এ পাওয়া যায় না এমন কিছুই নেই শুধুমাত্র হাত দিয়ে স্পর্শ করা ছাড়া।তাই আপনি আপনার ব্যাকলিংক ও খুজে পাবেন ইন্টারনেটেই।আসুন দেখে নেই কিভাবে কিভাবে আপনি ব্যাকলিংক পাবেন আপনার ওয়েব সাইটের জন্য

  • ১।আর্টিকেল এর মাধ্যমে
  • ২।ব্লগিং এর মাধ্যমে
  • ৩।অন্যের ব্লগে কমেন্ট করার মাধ্যমে
  • ৪।ফোরাম পোষ্টের মাধ্যমে
  • ৫।ফোরামে কমেন্ট করার মাধ্যমে
  • ৬।প্রেস রিলিজের মাধ্যমে।
  • ৭।ডাইরেক্টরিতে ওয়েব সাইট সাবমিট এর মাধ্যমে
  • ৮।লিংক এক্সচেন্জ এর মাধ্যমে
  • ৯।ওয়েব সাইটে এড দেয়ার মাধ্যমে
  • ১০।ব্যাকলিংক কেনার মাধ্যমে। (পেড ব্যাকলিংক) ইত্যাদি

আগামী পর্বে যা থাকছে

আগামী পর্বে এসকল মাধ্যম থেকে কিভাবে সঠিক ও ভালো পেজরেংক সমৃদ্ধ ব্যাকলিংক পাবেন তার একটি একটি করে বর্নণা দেয়া হবে।সেই সাথে থাকবে কিভাবে গুগলের এর মাধ্যমেই আপনি .org .edu ও .gov ওয়েব সাইট থেকে ব্যাকলিংক পাবেন সেই টিপস ।ততোখন পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন।আর আজকের পোস্ট কেমন লাগলো তা জানাতে ভুলবেন না।ধন্যবাদ সবাইকে

আমার আগের পর্ব গুলো দেখতে এখানে ক্লিক করুন ।

Series Navigation<< অন-পেজ অপটিমাইজেশন কি,কেন কিভাবে এর ২য় অংশ। SEO টিউটোরিয়াল [পর্ব-৬]ফোরাম সাইট থেকে যেভাবে পাবেন ব্যাকলিংক । SEO টিউটোরিয়াল পর্ব [৮] >>
4 মন্তব্য
  1. milon khan বলেছেন

    thanks for share

  2. আকাশ বলেছেন

    চমৎকার পোস্ট! পোস্টটি উপহার দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 🙂

  3. লিটন হাফিজুর বলেছেন

    thanks for share

  4. নাঈম প্রধান বলেছেন

    খুবই সুন্দর পোস্ট । শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

উত্তর দিন