অ্যান্ড্রয়েড ব্যাটারি সেভার কি সত্যিই কাজ করে? বেস্ট ব্যাটারি সেভার কোনটি?

8 202

ভাইয়া এবং আপুরা, আপনাদের একটি ভাল আর কার্যকর পোস্ট দেওয়ার জন্য আমি অনেক কষ্ট করি। কোন পোস্ট আমি নিজে ট্রাই না করে আপনাদের দেই না। এক্সপেরিমেন্ট করতে গিয়ে আমি ২ বার নিজের ফোন ক্র্যাশ করেছি। এই কষ্টের দাম যদি দিতে চান প্লিজ আমার ফেসবুক পেজে একটা লাইক দিন

https://www.facebook.com/blogger.shovik

আমি মাঝেমাঝেই গায়েব হয়ে যাই। আসলে ব্যাপারটা হল আমি একটা পোস্ট করার আগে অনেক ঘেটেঘুটে পোস্টটিকে যথাসম্ভব ভাল করার চেষ্টা করি। তাই আমি যখনই ফিরে আসি ভাল কিছু নিয়েই ফিরি। যেমন এই পোস্ট লেখার আগে আমি আমার ফোনে প্লে স্টোরের প্রায় সব টপ রেটেড অ্যাপ ট্রাই করেছি। কারন আমি চাই বেস্ট অ্যাপটি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে।

 

আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমি ভালই আছি। অনেকদিন কোন পোস্ট দেই না। আজ একটা খুব জরুরি পোস্ট করছি। আমাদের মাঝে যারা অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ইউজ করছেন তাদের অনেকেই এই দ্বিধায় ভুগেন যে একটা ব্যাটারি সেভার কি ইউজ করব? এগুলো কি কাজ করে? আমি আমার এই পোস্টে এ প্রশ্নগুলোর উত্তর করব আর আপনাদের পরিচয় করাবো সবথেকে ভাল দুটি ব্যাটারি সেভারের সাথে। তাহলে চলুন মুল পোস্টে

 

~বিশেষ দ্রষ্টব্য~ এই পোস্টটি আমি লিখছি সম্পূর্ণ নিজের অভিজ্ঞতা থেকে। এটি কোন টেকনোলজি ব্লগ থেকে নেওয়া নয়। আমি অ্যান্ড্রয়েড মার্কেটের প্রায় সব টপ রেটেড অ্যাপ চেক করে তারপর এই পোস্ট লিখছি। আশা করি এটা অবশ্যই আপনাকে উপকৃত করবে। কারন আমি সবসময় অরিজিনাল *_* ~বিশেষ দ্রষ্টব্য~

 

প্রশ্নঃ ব্যাটারি সেভার কি সত্যিই কাজ করে?

উত্তরঃ অনেকের মতে ব্যাটারি সেভার কোন কাজ করে না বরং র‍্যাম ইউজ করে ফোনকে স্লো করে। এই কথাটি সত্য নয়। আসলে এটা নির্ভর করে আপনি কেমন ব্যাটারি সেভার ব্যাবহার করছেন তার উপর। আপনি যদি খুব সাদামাটা একটি ব্যাটারি সেভার অ্যাপ ব্যাবহার করেন যেটি শুধু আপনার ফোনের ব্রাইটনেস, ব্লুটুথ, ভাইব্রেশন ইত্যাদি পরিবর্তন করার মাধ্যমে চার্জ বাঁচানোর চেষ্টা করে তাহলে আপনি খুব একটা লাভবান হবেন বলে আমার মনে হয় না। যেমন Bataria নামের একটি অ্যাপ আছে যা সবসময় আপনার ফোনে অ্যাক্টিভ থাকবে এবং যখন ব্যাটারি লো হয়ে যাবে তখন এটি আপনার ফোনের অনেক অ্যাপ এবং ফাংশন বন্ধ করে চার্জ সেভ করার চেষ্টা করবে। আমি নিজে এই অ্যাপ ব্যাবহার করে দেখেছি এবং বলা যায় বিন্দুমাত্র উপকৃত হই নি।

আবার কিছু অ্যাপ রয়েছে যেগুলো বেশ অ্যাডভান্সড ফিচার দেয়। এই ধরনের অ্যাপ শুধু আপনার ফোনের ব্রাইটনেস, ব্লুটুথ, ভাইব্রেশন কন্ট্রোল করে তা না বরং এগুলো আপনার ফোনের CPU Frequency, Network Flow সবই কন্ট্রোল করে। যেমন আমি যে ব্যাটারি সেভার ইউজ করছি এটি ফোন লক থাকা অবস্থায় সিপিইউ ফ্রিকোয়েন্সি একদম কমিয়ে দেয় অর্থাৎ সিপিইউ কে স্লো করে রাখে ফলে ব্যাটারির ব্যবহার কম হয়। আবার আমি ফোন আনলক করার সাথে সাথে এটি সিপিইউ কে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে দেয় এবং সিপিইউ আবার ফাস্ট হয়ে যায়। এ ধরনের অ্যাডভান্সড ফিচার সংবলিত অ্যাপ ইউজ করলে অবশ্যই উপকৃত হবেন।

মোট কথা আপনাকে একটি ভাল মানের ব্যাটারি সেভার অ্যাপ ইউজ করতে হবে তবেই আপনি ভাল ফলাফল পাবেন। আমি আমার এই পোস্টে দুটি বেস্ট ব্যাটারি সেভার অ্যাপ এর কথা লিখছি। ব্যাবহার করে দেখবেন চার্জ সেভ হতে বাধ্য।

 

প্রশ্নঃ বেস্ট ব্যাটারি সেভার কোনটি?

উত্তরঃ অ্যান্ড্রয়েড মার্কেটে গিয়ে ব্যাটারি সেভার লিখে সার্চ করলে শত শত ব্যাটারি সেভার পেয়ে যাবেন এবং প্রতিটা অ্যাপ এর ডেভেলপার দাবি করেন যে তাদের অ্যাপটাই বেস্ট। কিন্তু তা শুধুই অ্যাডভারটাইজমেন্ট। আসলে যাদের ফোনের ব্যাটারি অনেক শক্তিশালী তারা মোটামুটি মানের একটি সেভার ইউজ করলেই যথেষ্ট কিন্তু যাদের ব্যাটারি তেমন শক্তিশালী নয় তাদের অবশ্যই একটি ভাল মানের অ্যাপ ব্যাবহার করতে হবে। আমি এখানে দুটি অ্যাপ সম্পর্কে লিখছে যা মোটামুটি সব রকম ফোনের জন্য পারফেক্ট

১-Dx Battery Saver: প্লে স্টোরে পেইড এবং ফ্রি যতগুলো ব্যটারি সেভার অ্যাপ আছে তাদের মধ্যে এটি বেস্ট। আমি প্রায় ২০ টা ব্যাটারি সেভার অ্যাপ ইউজ করে দেখেছি কিন্তু Dx Battery Saver সত্যিই বস। এর অসাধারন ফিচারগুলোর একটি হল Automatic CPU Frequency। এই অপশন চালু থাকলে আপনি যখনই আপনার ফোন লক করবেন এই অ্যাপ আপনার ফোনের সিপিইউ এর ফ্রিকোয়েন্সি অনেক কমিয়ে দিবে ফলে ব্যটারি ইউজ অনেক কমে যাবে। এই অ্যাপ সত্যি আপনার ফোনের ব্যাটারির লাইফ অনেক বাড়িয়ে দিতে পারে। অনেকে বলেন জুস ডিফেন্ডার নাকি ব্যাটারি সেভারের বস। কিন্তু আমার কাছে মনে হয়েছে জুস ডিফেন্ডার একটি মরা অ্যাপ। Dx Battery Saver এর ধারে কাছে আসারও যোগ্যতা নেই ঐ জুস ডিফেন্ডারের। এখানে আরেকটা কথা বলা দরকার, এই অ্যাপ এর ১০০% কার্যকারিতা পাওয়ার জন্য আপনার ফোন রুটেড হতে হবে। নিচের লিঙ্ক থেকে নামিয়ে নিন Dx Battery Saver

com.dianxinos.powermanager.apk

 

২-Easy Battery Saver: এই অ্যাপটিও একটি অসাধারণ অ্যাপ। এর সবথেকে ভাল ফিচার হল এর Intelligent Mode ফিচারটি। আপনি ইনটেলিজেন্ট মোডে অ্যাপটি চালালে আপনার ব্যাটারি সেভ হতে বাধ্য। আরও মজার ব্যাপার হল এই অ্যাপটি সম্পূর্ণ ফ্রি। আমার কলেজের এক জুনিয়র ছেলেকে আমি এই অ্যাপটি দিয়েছিলাম। সে আমাকে বলে যে দিনে মোটামুটি ৩-৪ ঘন্টা ফেসবুক চালানোর পরেও দিনের শেষে ওর ফোনে ১০%-১৫% চার্জ থাকে। এটিও এক কথায় অসাধারণ। এটির জন্য কোন রুট এক্সেস লাগে না। নামিয়ে নিন নিচের লিঙ্ক থেকে

com.easy.battery.saver.apk

আজকের পোস্ট এ পর্যন্তই। পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

 

ভাইয়া এবং আপুরা, আপনাদের একটি ভাল আর কার্যকর পোস্ট দেওয়ার জন্য আমি অনেক কষ্ট করি। কোন পোস্ট আমি নিজে ট্রাই না করে আপনাদের দেই না। এক্সপেরিমেন্ট করতে গিয়ে আমি ২ বার নিজের ফোন ক্র্যাশ করেছি। এই কষ্টের দাম যদি দিতে চান প্লিজ আমার ফেসবুক পেজে একটা লাইক দিন

https://www.facebook.com/blogger.shovik

8 মন্তব্য
  1. dinu বলেছেন

    Vai amar symphony t8i tab kivabe root korte hoi bolte parben?

  2. juwelpchelpline বলেছেন

    আমি সিম্ফনি ডব্লিউ 70 এন্ড্রয়েড ফোনে বিভিন্ন পত্রিকার এপস্ ব্যবহার করি যেমন ইত্তেফাক, কালের কন্ঠ, সংবাদপত্র বিডি ইত্যাদি। কিন্তু এগুলো চালানোর সময় নিচ দিয়ে বিরক্তিকর বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।এ থেকে মুক্তির কোন উপায় থাকলে জানাবেন।
    জুয়েল-01710-356253

  3. sabuj4u বলেছেন

    আপনার পোষ্ট গুলো খুব তাড়াতাড়ি জনপ্রিয়তা পেয়ে যাচ্ছে তাই আরও কিছু নতুন ভাল ভাল পোষ্ট দিন , সেই পর্যন্ত অপেক্ষায় রইলাম। ধন্যবাদ আপনাকে ।

  4. B Islam বলেছেন

    Thanks for share with us..

  5. জাকির হোসেন বলেছেন

    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

  6. মো: নাসির উদ্দিন বলেছেন

    নাইস। খুব ভাল পোস্ট। ধন্যবাদ আপনাকে।

  7. নাঈম প্রধান বলেছেন

    ভাল কাজের একটি পোস্ট । শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

  8. মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেছেন

    আপনাকে ধন্যবাদ ।

উত্তর দিন