সনি স্মার্টওয়াচ! আসলেই কি স্মার্ট?

7 108

আজকাল প্রযুক্তি জগতে স্মার্ট শব্দটি বহুল ব্যবহৃত হচ্ছে! যেখানেই যাচ্ছি স্মার্ট স্মার্ট! তাহলে আগে কি আন-স্মার্ট ছিলাম নাকি!! লুল! এসেছে গুগল চশমা! যা স্মার্টচশমা বা স্মার্টগ্লাস হিসেবে দেখা হচ্ছে। ভবিষ্যৎ তে দেখা যাবে গুগল লেন্স এসে পড়েছে! হা হা হা!

যাই হোক, স্মার্টওয়াচ! এটি কোনো নতুন ডিভাইস নয় প্রযুক্তি জগতে। সেই ১৯৮২ সালে প্রথম স্মার্টওয়াচ বাজারে আসে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রযুক্তি জগতে সর্বশেষ স্মার্টওয়াচ হলো সনি স্মার্টওয়াচ।

SC6

সনি স্মার্টওয়াচ একটি পরিধাণযোগ্য ডিভাইস যা এ্যানড্রয়েড ফোন এর সাথে কানেক্ট হয়ে এসএমএস, টুইটার ফিডস সহ অন্যান্য তথ্য ডিসপ্লে করে। এটি প্রায় সব এ্যানড্রয়েড ফোন সাপোর্ট করে।

 

সনি স্মার্টওয়াচ

CV

নিমার্তা:

সনি

ম্যানুফেকচার:

সনি

ডিসপ্লে:

১.৩ ইঞ্চি ওল্যাড ডিসপ্লে,

১২৮ এক্স ১২৮ পিক্সেল,

১৬ বিটস কালার

ইনপুট:

মাল্টি-টচ,

ক্যাপটিভ টাচস্ক্রিণ

কানেক্টিভিটি:

ব্লু-টুথ ৩.০

সাইজ:

৩৬ মিলিমিটার উচ্চ, ৩৬ মিলিমিটার প্রস’, ৮ মিলিমিটার গভীর (চিপ সহ ১২.৮মিলিমিটার).

ওজন:

১৫.৫ গ্রাম মেইট ইউনিট,

২৬ গ্রাম ওয়াচব্যান্ড

ব্যবহার করা যাবে:

সর্বনিম্ন এনড্রয়েড ২.১ থেকে

মূল্য:

১৪৯.৯৯ মার্কিন ডলার

SC4

সনি স্মার্টওয়াচ একটি ছোট ক্লিপ-অন ডিভাইস যা আপনার ফোনের সাথে ব্লু-টুথ প্রযুক্তিতে কানেক্ট হয়ে আপনাকে বিভিন্ন নটিফিকেশন, ইনকামিং কল’স, ফেসবুক ম্যাসেজ, আপকামিং ক্যালেন্ডার আইটেম ইত্যাদির কুইক এসসেস দেয়। এছাড়াও হাতঘড়িতে একটি মিউজিক হ্যান্ডেলার, একটি রিমোট ফোন রিংগার এবং একটি গুগল ম্যাপ এপ্লিকেশন রয়েছে।

যদিও আজকাল কেইবা হাতঘড়ি পড়ে বলুন? রাবারের ব্যান্ড হাতে দাগ পড়ে ফেলে। সনির স্মার্টওয়াচ টিতে ভাল দিক হিসেবে রয়েছে ইউনিক এপ্লিকেশন, সিম্পল এবং সার্প স্টাইল ওপরদিকে খারাপ দিক গুলো হলো অতি “দরিদ্র” স্ক্রিণ রেজুলেশন এবং ন্যাভিগেশন।

সনি স্মার্টওয়াচ টিতে রয়েছে ১.৩ ইঞ্চি ওল্যাড ডিসপ্লে সাথে মাল্টিটচ ক্যাপাবিলিটিস এবং ১২৮ এক্স ১২৮ রেজুলেশন। এটি তেমন বড় ডিসপ্লে নয়। তবে আপনার ছোট ভাই অথবা আপনার সন-ানদের হাতে মানাবে বেশ! কারণ তাদের হাতের সাইজ ছোট! লুল!

হাতঘড়িটি ওয়াটার এবং ক্র্যাচ রেসিসটেন্ট । তবে সাবধানে মার নেই। ভালভাবে ব্যবহার করতে হবে।

ঘড়িটির রাবারের সার্প ব্যবহাতের যোগ্য। তবে আপনি যদি কর্মজীবি হন তবে ঘামের কারণে ঘড়িটি হালকা “চিকচিকে” হয়ে যাবে আইপড ন্যানোর মতো। ঘড়িটি চার্জ দিতে পারবেন ইউএসবি পোর্টের মাধ্যমে।

ঘড়িটি আপনার ফোনের সাথে ব্লু-টুথ ৩.০ এর মাধ্যমে কানেক্ট হয়। স্মার্টওয়াচটি সনির বিভিন্ন মোবাইল এবং অন্যান্য ব্যান্ড এর কিছু মোবাইলের সাথে কাজ করবে। যেমন আমি এটিকে গ্যালাক্সি ট্যাব এবং গ্যালাক্সি নেক্সাস এর সাথে ট্রাই করেছি। সবকিছুই চলছে সমস্যা ছাড়াই। তবুও নিচে দেখে নিন স্মার্টওয়াচটি কোন কোন ডিভাইসের সাথে কাজ করবে:

 

Live with Walkman™

Xperia™ active

Xperia™ arc

Xperia™ arc S

Xperia™ mini

Xperia™ mini pro

Xperia™ neo

Xperia™ neo V

Xperia™ P

Xperia™ PLAY

Xperia™ pro

Xperia™ ray

Xperia™ S

Xperia™ sola

Xperia™ U

Xperia™ X10

Xperia™ X8

Xperia™ X10 mini pro

Xperia™ X10 mini

Xperia™ go

Xperia™ J

Xperia™ miro

Xperia™ T

Xperia™ tipo

 

Sony Tablet P

Sony Tablet S

  • HTC Desire C, HTC Desire S, HTC One S, HTC One V, HTC One X, HTC Wildfire, HTC Wildfire S
  • Huawei U8650>
  • Motorola ATRIX, Motorola Defy, Motorola Droid 2/Milestone 2, Motorola RAZR
  • Orange San Francisco
  • Samsung Galaxy 5, Samsung Galaxy Ace 2, Samsung Galaxy Fit, Samsung Galaxy Gio, Samsung Galaxy Mini, Samsung Galaxy Nexus, Samsung Galaxy S II, Samsung Galaxy SII ICS, Samsung Galaxy SIII, Samsung Galaxy SL, Samsung Galaxy W, Samsung Nexus S
  • HTC Wildfire S
  • Motorola Defy +
  • Samsung Galaxy Ace, Samsung Galaxy Fit, Samsung Galaxy Gio, Samsung Galaxy Note
  • ·  HTC Evo 3D / Shooter, HTC Sensation
  • ·  LG Optimus Me, LG Optimus One
  • ·  Motorola X

SC1

 

SC2

SC3

 

SC5

SC7

SC8

 

 

ঘড়িটির ইউজার ইন্টারফেস খুব সিমপল এবং নিট। তবে অনেকের কাছে একটু সময় লাগবে ফিট হতে। ঘড়িটির প্রায় সবগুলো এপ্লিকেশন ফাস্ট চলে, শুধুমাত্র জিপিএস ম্যাপটি লোড নিতে একটু সময় নেয়। স্ক্রিনটিতে দুইবার ট্যাপ দিলের হোম স্ক্রিণে চলে আসবে।  ঘড়িটির ডিসপ্লে ছোট এর কারণে আইকনগুলো দেখতে বয়স্ক লোকদের কিছুটা সমস্যা হবে তবে এগুলো “ইজি টু একসেস”। তাছাড়া বিশাল সাইজের ঘড়ি তো আর কেউ পড়বে না!!!

 

ঘড়িটির ব্যাটারি ক্ষমতা অসাধারণ। একটানা টিপেও ঘড়িটি ১০ ঘন্টা চলবে একবার চার্জে।

 

সর্বশেষে বলতে চাই, এইরকম স্মার্ট গেজেট ভক্ত যারা তাদের ঘড়িটি পারফেক্ট। তবে আমার মতো সাধারণ মানুষের কাছে এই সাড়ে ১২ হাজার টাকার ঘড়িটি “অপচয় অফ টাকা!!”। সাড়ে ১২ হাজার টাকায় আমি বহু কিছু করতে পারবো। হা হা হা!

Wall

7 মন্তব্য
  1. নাঈম প্রধান বলেছেন

    ভাল একটি পোস্ট । শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

  2. B Islam বলেছেন

    অনেক ধন্যবাদ আপনাকে

  3. susanto karmokar বলেছেন

    good post..

  4. rds বলেছেন

    It’s good but isn’t cheap,is it?

  5. sabuj4u বলেছেন

    আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ একটি মূল্যবান পোষ্ট শেয়ার করার জন্য ।
    আশা করি আগামীতে আরও ভাল কিছু আমাদের উপহার দিবেন । ধন্যবাদ আপনাকে ।

  6. জাকির হোসেন বলেছেন

    আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

  7. মো: নাসির উদ্দিন বলেছেন

    নাইস। খুব ভাল পোস্ট। ধন্যবাদ আপনাকে।

উত্তর দিন