আপনার কম্পিউটার ‘বিপ’ শব্দ করে � তবে জেনে নিন এর কার্যকানুন… ✔

16 344

 

আমরা যখন কম্পিউটারের পাওয়ার বাটন চাপ দিয়ে কম্পিউটার চালু করি তখন মাঝে মধ্যে একেক ধরনেরবিপ Sound শোনা যায়। বিপ বা শব্দটি মূলত কেসিং তথা মাদারবোর্ডের ভিতর থেকে আসে।

এটি আপনার কম্পিউটার সিষ্টেমের অবস্থা বোঝাতে ব্যাবহৃত হয়। আপনার কম্পিউটারে স্পিকার যুক্ত না’থাকলেও এ’ধরনের শব্দ শুনতে পেতে পারেন। কেননা এর জন্য আপনার মাদারবোর্ডে বিল্টইন স্পিকার যুক্ত করা থাকে। (সকল মডেলের ক্ষেত্রে নয়)

কম্পিউটারের এমন কিছু সমস্যা আছে যা আমরা এই শব্দ শুনে বুঝতে পারি।

অনেকেই, বিশেষ করে নবীন ব্যাবহারকারীরা তাদের পিসিতে এমন শব্দ শুনে বিচলিত হয়ে যান। এই পিসিহেল্পলাইনবিডিতে-ই একজনকে পেয়েছিলাম, কোন এক পোষ্টে তার এই ধরনের একটি সমস্যা লিখেছিলেন।

তো আসুন- জেনে নেই কি ধরনের শব্দ, কোন অর্থ প্রকাশ করে এবং কিভাবে সমস্যা সমাধান করা যায়।

Ω. একটি বিপ অর্থ কেসিংয়ের অভ্যন্তরীন হার্ডওয়্যারের সকল যন্ত্রাংশ সঠিকভাবে সংযুক্ত আছে।

উইন্ডোজে অন্য কোন সমস্যা না থাকলে ঠিকমতো চালু হবে। যদি চালু হতে কোন সমস্যা হয় তবে সিডি রম, হার্ডডিস্ক ড্রাইভ ও মনিটরের সংযোগ একবার চেক করে দেখুন।

Ω. ছোট দুটি বিপ হলে বুঝবেন আপনার পিসিতে কিছু সমস্যা আছে এবং সমস্যাটি সম্পর্কে কিছু তথ্য মনিটরে শো করবে।

Ω. তিন বা চারটি বিপ হওয়ার পর কম্পিউটার চালু হতে যদি সমস্যা হয় তবে আপনার পিসির RAM ঠিকভাবে স্লটে লাগানো কি’না দেখুন। প্রয়োজনে র‌্যামটি খুলে সংযোগ পরিষ্কার করে আবার লাগান।

Ω. ৫টি বিপ হয়ে কম্পিউটার ষ্টার্ট নিতে সমস্যা হলে মাদারবোর্ডের সকল কার্ড যথাযথভাবে সংযুক্ত আছে কি’না দেখে নিন।

Ω. ৬টি বিপ কি-বোর্ড কানেকশান Problem নির্দেশ করে। মাদারবোর্ডের সাথে আপনার কিবোর্ড (USB অথবা PS2) সঠিকভাবে সংযুক্ত আছে কি না খেয়াল করুন।

Ω. ৭টি বিপ হয়ে কম্পিউটার লোড নিতে কোন সমস্যা দেখলে প্রসেসরের সংযোগটা একবার পরীক্ষা করে দেখুন।

Ω. ৮টি বিপ শুনলে অখবা স্ক্রিনে ঠিকভাবে আউটপুট না’পেলে বুঝবেন এবার ভিডিও কার্ড দেখার পালা। সাধারণত ভিডিও কার্ড বা গ্রাফিক্স‌ কার্ডের সংযোগে সমস্যা হলে ৮টি বীপ শোনা যায়।

Ω. ৮-এর পর এবার নিশ্চই ৯ আশা করছেন? 🙂

কিন্তু ৯টি বিপ সাধারনত তেমন একটা শোনা যায় না। কারন, এটি দিয়ে মাদারবোর্ডের বায়োসের মারাত্ম‌ক সমস্যাকে বোঝানো হয়। আর বায়োসে সমস্যা থাকলে…

Ω. জ্বী, ৯ এর পর ১০টা বীপও আছে। এটি দিয়ে সাধারনত মাদারবোর্ডের সিমোস চীপ (CMOS Chip) অকার্যকর বোঝানো হয়।

যাক, ১০ নম্বর বিপ তো শেষ হলো। এর বাহিরেও আপনি কিছু অন্য ধরনের সংকেতের শব্দ শুনতে পারেন। এবার সেটা নিয়ে লিখছি।

Ω. একটানা ছোট ছোট বিপ হলে বুঝতে হবে পাওয়ার সাপ্লাই বা মাদারবোর্ডে সমস্যা আছে। পিসি ঠিকমত ফাংশন না’ও করতে পারে।

Ω. একটি বড় এবং একটি ছোট বিপ শুনলে বুঝবেন নির্ঘাত RAM এ সমস্যা। সুতরাং…

Ω. একটানা বিপ হতে থাকলেও বুঝবেন আপনার কম্পিউটারের RAM এ সমস্যা আছে।

Ω. একটা বড় ও তিনটি ছোট বিপ হলে বুঝতে হবে গ্রাফিক্স কার্ডে সমস্যা আছে। সংযোগ পরীক্ষা করে দেখতে পারেন।

Ω. এটা একটা বিশেষ ক্লু। কোন বিপ নেই অথচ আপনার কম্পিউটার চালু হচ্ছে’না। এর অর্থ আপনার পিসির পাওয়ার সাপ্লাই বা মাদারবোর্ডে সমস্যা আছে।

তো যাদের কম্পিউটারের মাদারবোর্ডে বিল্টইন স্পিকার যুক্ত করা নেই তারা দুশ্চিন্তা না’করে লাগিয়ে নিন অথবা External Speaker চালু রাখুন।

Click Here.

আর যাদের কাছে এই শব্দটি বিরক্তিকর তারা এটি বন্ধ করে দিতে পারেন।

বন্ধ করার নিয়মঃ

কম্পিউটারের Run অপশনে গিয়ে টাইপ করুন Devmgmt.msc ও Enter কী প্রেস করুন।

মনিটরে ডিভাইস ম্যানেজার চালু হবে।

এবার System Device বের করে এর ভিতরNon-Plug and play drivers অপশনটা খুজে বের করে এক্সপান্ড করুন।

ব্যাস, ওর ভিতরে “Beep” অপশন দেখতে পাবেন। এরপর Beep এর উপর রাইট ক্লিক করে Desable ক্লিক করে বেরিয়ে আসুন আর কম্পিউটারকে রিষ্টার্ট দিন।

এরপর থেকে আপনার পিসি আর বিপ’ শব্দ করবে’না। 🙁

আচ্ছা… ভালো থাকুন.. আর সবসময় ইতিবাচক চিন্তা করুন।

ধন্যবাদ এত মনযোগ দিয়ে লেখাটি পড়বার জন্য। এটি আপনার কাজে আসলেই আমার এই ব্যায়িত সময় সার্থক।

আল্লাহ্হাফেয। – Turjo, Bangladesh.

16 মন্তব্য
  1. Nafiz Ur Rahman বলেছেন

    টিপসের জন্য অনেক ধন্যবাদ আপনাকে ।

  2. নাঈম প্রধান বলেছেন

    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ

  3. Tarikul Islam বলেছেন

    আমার কম্পিউটার কাজ করা অবস্থায় হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে যায়। তার পর পাওয়ার সুইচ বাটন চাপ দিলেও অন হয় না। কম্পিউটার থেকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে তারপর পাওয়ার বাটন চাপ দিলে কম্পিউটার স্বাভাবিক ভাবে অন হয়। কিন্তু কম্পিউটার হঠাৎ করে বন্ধ হবার পর বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন না করে ২০/৩০মিনিট পর কম্পিউটার এর পাওয়ার বাটন চাপ দিলে একটি বিপ রিং আকারে বেজে ওঠে এবং প্রসেসরের একটি মেসেজ দেয়। তারপর আবার কম্পিউটার স্বাভাবিক ভাবে অন হয়। আমি কি করতে পারি?

    1. Tarikul Islam বলেছেন

      ভাই একটু ভুল হইছে। কম্পিউটার থেকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে তারপর আবার বিদ্যুতের লাইন দিয়ে তারপর পাওয়ার বাটন চাপ দিলে কম্পিউটার স্বাভাবিক ভাবে অন হয়।

    2. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

      ভাই তারিকুল ইসলাম, আপনার সমস্যাটা যা লিখলেন- সত্যিই ভয়াবহ।
      আপনি অ্যাডভান্স না’কি অ্যামেচার ইউজার, আমি জানি’না..তাই, সমস্যাটি’র মোটামুটি সংক্ষেপে- ব্যাখ্যা’সহ সমাধান দেবার চেষ্টা করছি।

      সমস্যাঃ
      ❶ কম্পিউটার কাজ করা অবস্থায় হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে যায়।
      ❷ কম্পিউটার থেকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে তারপর পাওয়ার বাটন চাপ দিলে কম্পিউটার স্বাভাবিক ভাবে অন হয়।
      ❸ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন না করে ২০/৩০মিনিট পর কম্পিউটার এর পাওয়ার বাটন চাপ দিলে… …কম্পিউটার স্বাভাবিক ভাবে অন হয়।
      ❹ বিপ রিং‘সহ প্রসেসরের একটি মেসেজ দেয়।
      (ম্যাসেজটি আপনি লেখেন নাই। এটা পেলে সমস্যাটি আরো নিদৃষ্ট করা যেত। তবে আপনার অন্যান্য কথা থেকে সমস্যাটা মনেহয় বুঝতে পেরেছি। নিচে ফলাফল ও সম্ভাব্য সমাধান লিখলাম।)

      ফলাফলঃ
      ✖ আপনার কম্পিউটারের প্রসেসর অত্যাধিক হিট বা গরম হয়ে যাচ্ছে।
      ✖ এভাবে চালাতে থাকলে খুব দ্রুত আপনার প্রসেসর নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভাবনা আছে।

      ব্যাখ্যা’সহ করণীয়ঃ
      ✔ প্রসেসরের তাপমাত্রা (টেম্পারেচার) কমাতে হবে।
      ✔ কম্পিউটার চালুর সময়ে কিবোর্ড থেকে F2 চেপে নিদৃষ্ট ট্যাবে হার্ডওয়্যার কনফিগারেশনে যান।
      ওখানে আপনি আপনার প্রসেসরের তাপমাত্রা ও কুলিং ফ্যানের স্পিড (RPM) ঠিক আছে কি’না চেক করুন।
      প্রয়জনে মাদারবোর্ডের ম্যানুয়ালের সাহায্য নিন। কোন অসামাঞ্জস্য পেলে…

      ✔ মাদারবোর্ডে প্রসেসরের উপর হিটসিঙ্কে লাগানো কুলিং ফ্যানটি ঠিকমতো চলছে কি’না দেখুন।
      ✔ আপনি কখনো ওটা মাদারবোর্ড থেকে খুলে ধুলো পরিষ্কার করে থাকলে.. এরপর ঠিকমতো লাগিয়েছেন কি’না নিশ্চিত হোন।
      ✔ প্রসেসর ও হিট সিংকের মাঝে কোন ধরনের ফাঁক থাকলে প্রসেসরের তাপমাত্রা পুরোপুরি হিটসিঙ্কে যেতে পারেনা। ফলে, প্রসেসর দ্রুত গরম হয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়।
      ফ্যান’সহ হিটসিঙ্কটি মাদারবোর্ডের সাথে ঠেসে লাগানো কি’না দেখুন।
      ✔ হিটসিঙ্ক এবং কুলিং ফ্যানের উপরে যথেষ্ট পরিমান ধুলো জমে। অতিরিক্ত ধুলোর কারনে কুলিং ফ্যান ও হিটসিংক তাদের কাজ করতে পারেনা। ফলে প্রসেসর মাত্রাতিরিক্ত গরম (হিট) হয়ে ..বন্ধ হয়ে যায়।
      ✔ নিয়মিত (বছরে অন্তত একবার) পুরো কম্পিউটার খুলে ধুলোবালি পরিষ্কার করলে এ’ধরনের সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়।
      আপনার ক্ষেত্রে এমন হলে প্রয়জনীয় ব্যাবস্থা নিন। নিজে না’পারলে অভিজ্ঞ কাউকে দিয়ে করান।
      ✔ প্রসেসর ও হিটসিঙ্কের মাঝে যেন কোন ফাঁক না’থাকে এজন্য বিশেষ এক’ধরনের থার্মাল পেষ্ট লাগানো থাকে।
      অনেক সময় সেটা কম হলে বা গলে গেলে প্রসেসর অতিরিক্ত হিট হবার সম্ভবনা থাকে।
      ✔ যদি তেমন হয় তবে, আলাদা পেষ্ট কিনে লাগাতে পারেন। দাম তেমন নয়।
      তবে না’জানলে নিজে নিজে করতে যাবেন’না। হিতে বিপরীত হতে পারে।
      ✔ চাইলে কেসিং খুলে মুক্ত বাতাস চলাচল করতে দিতে পারেন। এতে প্রসেসরের টেম্পারেচার মাত্রার মধ্যে থাকবে।
      ✔ এতকিছুর পরেও সমস্যা না’গেলে অতিরিক্ত কুলিং ফ্যান লাগিয়ে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রনে আনুন।

      ধন্যবাদ- এত সময় দিয়ে আমার সাথে থাকবার জন্য। আশাকরি, আপনি আপনার সমস্যাটির সমাধান পাবেন। অন্যথায় নিকটস্থ পরিচিত সার্ভিসিং সেন্টারে নিয়ে যেতে পারেন।
      কোন ওয়ারেন্টি থাকলে সেটির সদ্ব্যাবহার করতে ভুলবেন’না। ..ভালো থাকবেন।

  4. সিহাব সুমন বলেছেন

    তুর্য ভাই, ধন্যবাদ।

    1. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

      আপনাকে স্বাগতম সুমন ভাই। 🙂

  5. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

    Pial…ভাই, আপনার যদি পিসির হার্ডওয়্যার সম্পর্কে ধারনা থাকে তবে পাওয়ার সেক্টরটা একবার খুলে চেক করুন। সাথে সাথে হার্ডডিস্ক ও RAM এর সংযোগটাও খুলে পরিষ্কার করে লাগান।
    সাধারণত CPU পাওয়ার বা মাদারবোর্ডে সমস্যা হলে একটানা বিপ শোনা যায়।
    লো ভোল্টেজে pc চালালে কিংবা সিষ্টেমে সমস্যা থাকলেও এটা হতে পারে। তাই, সিষ্টেম ড্রাইভ format করে নতুন করে setup দিয়েও দেখুন। আশাকরি সমাধান পাবেন। – Turjo

  6. Pial বলেছেন

    Amar pc ta power button press korar por aktana beep hoi ar start hoi na.
    help me.

    1. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

      Turjo, Bangladesh. on সেপ্টেম্বর 16, 2012 at 9:44 অপরাহ্ন

      Pial…ভাই, আপনার যদি পিসির হার্ডওয়্যার সম্পর্কে ধারনা থাকে তবে পাওয়ার সেক্টরটা একবার খুলে চেক করুন। সাথে সাথে হার্ডডিস্ক ও RAM এর সংযোগটাও খুলে পরিষ্কার করে লাগান।
      সাধারণত CPU পাওয়ার বা মাদারবোর্ডে সমস্যা হলে একটানা বিপ শোনা যায়।
      লো ভোল্টেজে pc চালালে কিংবা সিষ্টেমে সমস্যা থাকলেও এটা হতে পারে। তাই, সিষ্টেম ড্রাইভ format করে নতুন করে setup দিয়েও দেখুন। আশাকরি সমাধান পাবেন। – Turjo

  7. SUNNY বলেছেন

    THANKS..
    amr pc te power button press korar por akta beep hoy, tarpor starting windows lekha ashar age arekta beep hoy, kintu kono problem monitor a show kore na. ata ki kono problem? amr motherboard intel dh55pj

    1. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

      যেহেতু পরপর দুটো সাউন্ড আসছে না, সেহেতু power button প্রেস করার পরের শব্দটি- আপনার পিসির অভ্যান্তরীন সকল যন্ত্রাংশ সঠিক ভাবে সংযুক্ত, এটি নির্দেশ করে।
      আর windows লোড নেবার আগের শব্দটা হচ্ছে মূলত কোন সিষ্টেম ফাইল মিসিং আছে সেজন্য।

      বিষয়টা আপনাকে বুঝিয়েই বলছি…
      অনেক সময় দেখা যায় ভাইরাসের কারনে অথবা আমরা না’জেনে সিষ্টেমের কোন ফাইল মুছে দেই। এটা বেশি হয় মূলত কোন সফটওয়্যার আনইনষ্টল করার সময়।
      যদি কোন সফটওয়্যার আপনার সিষ্টেমের কোন ফাইল শেয়ার করে থাকে এবং আপনি সেটি আনইনষ্টল করার চেষ্টা করেন তখন একটা সতর্কীকরণ ম্যাসেজ দেয়। সেটি ভাল করে না’পড়ে Yes to remove all’ ক্লিক করে আনইনষ্টল করলে সফটওয়্যারের ফাইলগুলোর সাথে সিষ্টেমের সেই শেয়ার করা ফাইল’ও মুছে যেতে পারে।
      পরবর্তীতে নতুন কোন প্রোগ্রামে ঐ ফাইল প্রয়জন হলে start up -এ এমন সমস্যা হয়।
      আপনি দেখুন আপনার পিসির কোন প্রোগ্রাম চালাতে সমস্যা হচ্ছে কি’না।
      যদি না’হয় তবে আপনার কিছু করার প্রয়জন নেই।
      আর যদি কোন প্রোগ্রাম বা গেম চালাতে সিষ্টেম ফাইল মিসিং বার্তা দেয় তবে সিষ্টেম রিকভার করে দেখতে পারেন কিংবা সময় থাকলে নতুন করে সেটআপও দিতে পারেন।
      আপনার কাছে যদি শব্দটি শুনতে খারাপ লাগে তবে বন্ধ করার উপায় তো পোষ্টের শেষে দেওয়াই আছে।
      আশাকরি আপনার প্রশ্নের উত্তরটা পেয়েছেন।
      মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। – Turjo.

  8. Real বলেছেন

    টিপসের জন্য অনেক ধন্যবাদ…

    1. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

      ধন্যবাদ আপনাকেও…

  9. arif46 বলেছেন

    চমৎকার টিপস ! আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ।

    1. Turjo, Bangladesh. বলেছেন

      You’re welcome.

উত্তর দিন