এসইও: পর্ব ১ – হোয়াইট হ্যাট এবং ব্ল্যাক হ্যাট এসইও

আজকের এই পোস্টে এসইও’র ইতিহাস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো না। হোয়াইট হ্যাট এসইও এবং ব্ল্যাক হ্যাট এসইও সম্পর্কে আলোচনা করবো।

ইন্টারনেটের ইতিহাস যখন শুরু হয় তখন থেকেই এসইও’র যাত্রা শুরু হয় নি। যখন ইন্টারনেট ব্যবহার এবং ওয়েবসাইটের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে, তখন সকল ওয়েবসাইটগুলোকে একত্রিত করে র‌্যাংকিং এবং শ্রেণিবিন্যাস করা খুব জরুরি হয়ে পড়ে। ঠিক তখন থেকেই ওয়েবমাস্টারগণ সার্চ ইঞ্জিন ডেভেলপ করা শুরু করেন। তারা মূলত সার্চ ইঞ্জিনের ফলাফলের উপর প্রচুর পরিমাণে গবেষণা করতেন। আর এভাবেই সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন অর্থাৎ এসইও’র যাত্রা শুরু হয়। যদিও তখন এসইও’র অ্যালগরিদম বর্তমান অবস্থার মতন ছিলো না। বছরের পর বছর সার্চ ইঞ্জিনগুলো বিভিন্ন অ্যালগরিদম পরিবর্তনের মাধ্যমে বর্তমান অবস্থায় এসেছে। প্রতিযোগিতার দিক দিয়ে, গুগল বর্তমানে সবার উপরে, সেরা এবং মানসম্পন্ন সার্চ ইঞ্জিন।

হোয়াইট হ্যাট এবং ব্ল্যাক হ্যাট এসইও

হোয়াইট হ্যাট এসইও

‘হোয়াইট হ্যাট এসইও’ বলতে সার্চ ইঞ্জিনের সকল নিয়ম কানুন মেনে সম্পূর্ণ বৈধভাবে একটি ওয়েবসাইটকে অনুসন্ধানের ফলাফল পাতার শীর্ষ স্থানে নিয়ে আসার পদ্ধতিকে বোঝায়। এসইও বলতে ‘হোয়াইট হ্যাট এসইও’ কেই বোঝানো হয়। এই ধরণের এসইও করা অনেক কষ্টকর। কিন্তু, এটি ঝুঁকিমুক্ত। এর মূল লক্ষ্য থাকে ব্যবহারকারীদের ওপর। হোয়াইট হ্যাট এসইও’র মাধ্যমে অনলাইনে যেকোনো ব্যবসায় সফলতা অর্জন করা যায়।

‘হোয়াইট হ্যাট এসইও’ থেকে ‘ব্ল্যাক হ্যাট এসইও’ সম্পূর্ণ ভিন্ন এবং বিপরীত। ‘ব্ল্যাক হ্যাট এসইও’ বলতে সার্চ ইঞ্জিনের নিয়ম কানুন না মেনে চুরি বা প্রতারণা করে একটি ওয়েবসাইটকে অনুসন্ধানের ফলাফল পাতার শীর্ষ স্থানে নিয়ে আসার পদ্ধতিকে বোঝায়। যেহেতু সার্চ ইঞ্জিন কোন মানুষ নয়, তাই এর সাথে বিভিন্নভাবে প্রতারণা করা যায়। আর এই প্রতারণা করে খুব অল্প সময়ের মধ্যে একটি ওয়েবসাইটকে অনুসন্ধানের ফলাফল পাতার শীর্ষ স্থানে নিয়ে আসা যায়। ব্ল্যাক হ্যাট এসইও’র পদ্ধতিগুলোর মধ্যে স্প্যামিং হচ্ছে অন্যতম। যদি একবার সার্চ ইঞ্জিন এই কৌশল বুঝতে পারে, তবে সেই ওয়েবসাইটকে কালো তালিকায় ফেলে দেয়। সার্চ ইঞ্জিন ওই ওয়েবসাইট এর ইনডেক্স করা সকল তথ্য মুছে ফেলে। যে ওয়েবসাইট একবার সার্চ ইঞ্জনের কালো তালিকায় পরে যায়, তার পতন নিশ্চিত। এমন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে কোনো ব্যবসায় সফল হওয়া যায় না।

Leave a Reply