অপো রেনো এক্স’র চোখে তুরস্ক

0 1,206

[ঢাকা, জুলাই ১৩ ২০১৯] কামাল আতাতুর্ক কিংবা সুলতান সোলেমানের কথা বললেই সবার আগে চোখে ভেসে ওঠে তুরস্কের কথা। ছবির মতো সুন্দর দেশটির প্রাকৃতিক দৃশ্য, চোখ ধাঁধানো কারুকার্যময় আর্টপিস, হট এয়ার বেলুন, শহুরে রাস্তা কিংবা মরুময় প্রান্তর আর সেইসাথে বিভিন্ন স্মৃতিস্তম্ভ, সবই আছে দেশটিতে।

আর এ সবকিছু দেখতে গিয়ে যদি সাথে থাকে অপোর রেনো ১০ এক্স জুম স্মার্টফোনটি, তাহলে তো কথাই নেই। এতে পাওয়া যাবে দেশটির নয়নাভিরাম সব স্থানের অসাধারণ সব ছবি। স্মার্টফোনটিতে তোলা এ ছবিগুলোর দিকে একপলক তাকিয়ে যে কেউ খুব সহজেই নিজেকে হারিয়ে ফেলতে পারবে তুরস্কের এ স্থানগুলোতে।

অপো রেনো ১০এক্স জুমে ধারন করা ছবিগুলোর গল্পই থাকবে আজ-

গ্রেট ডিটেইলস

তুরস্কের একটি নামকরা দর্শনীয় স্থান হলো ‘কটন ক্যাসেল’। এ জায়গাটির যে ছবি তোলা হয়েছে অপো রেনো ১০এক্স ব্যবহার করে, তাতে স্থানটির সৌন্দর্যের পুরোটাই উঠে এসেছে, স্মার্টফোনটিতে ব্যবহার করা অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ছবির ডিটেইলস নিশ্চিত করেছে। এতে তোলা কটন ক্যাসেলের এ ছবি দেখলে শিল্পীর তুলিতে আঁকা কল্পরাজ্যের চেয়ে কোনো অংশেই কম মনে হবে না।

দৃষ্টি সুদূরে

প্রাচীন স্থাপনার ধ্বংসাবশেষের মধ্য দিয়ে হাঁটতে গিয়ে স্মার্টফোনটির ১০এক্স জুম ক্যাপাসিটি পরখ করে দেখতে গিয়ে মিলল বিস্ময়কর ফলাফল যা রীতিমতো অবাক করে দেওয়ার মতো। জুম করে তোলা ছবি দেখে মনে হলো একেবারেই নিখুঁত।

রেনোর লেন্সে শহরের রাস্তার প্রতিচ্ছবি

শহরের যে রাস্তা চোখের দেখায় নিতান্তই সাধারণ মনে হবে, অপো রেনো ১০এক্স জুমে তোলা সেই একই নিত্যদিনের রাস্তার ছবি দেখে মনে হবে অচেনা কোনো এক শহরের অসাধারণ কোনো এক পথ। রাস্তার প্রতিচ্ছবির যে ছবি ক্যামেরায় ধারন করা হয়েছে, তার ডিটেইলস অসাধারণ এবং এ কারণেই ছবিটি আরও স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। এর সাথে কালার রিচনেস তো আছেই।

ছবির ডিটেইলে শৈল্পিক ছোঁয়া

স্টাইলিশ এবং বৈচিত্র্যময়, বাসগৃহের কোনো এক কোনায় সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য ব্যবহৃত এ ধরনের বস্তুই বেছে নেওয়া হয়। স্মার্টফোনটিতে তোলা নিখুঁত ছবি এসব বস্তুর সৌন্দর্য ধারন করে রাখবে বছরের পর বছর।

সূর্যাস্তের প্রতিটি মুহূর্ত

এটি এমন এক মুহূর্ত যা এক কথায় অমূল্য। চলচ্চিত্রের পর্দায় কিংবা বিজ্ঞাপনচিত্রে এ ধরনের দৃশ্য সবারই নজর কাড়ে। কখনও দেখেছেন শত শত হট এয়ার বেলুন রাজকীয়ভাবে ভেসে বেড়াচ্ছে পর্বতের উপর দিয়ে? হ্যাঁ, কাপাডোসিয়ার কথাই বলছিলাম।

গল্পের বইয়ে পড়া সুড়ঙ্গের পথ ধরে

যতবারই আমি এই সুড়ঙ্গের পথ ধরে যাই, প্রতিবারই এর সৌন্দর্য মুগ্ধ করবে যে কাউকে। এই সুড়ঙ্গ আপনাকে নিয়ে যাবে এক বিস্তৃত রৌদ্রোজ্জ্বল পথের কাছে যেখানে আছে বেশ কয়েকটি ক্যাফে।

মাতাল করা রাতের সৌন্দর্য

এখানকার রাতের চোখ ধাঁধানো সৌন্দর্য যে কাউকে বিমোহিত করবে যা মন ভালো করে দেবে মুহূর্তের মধ্যেই। এরই মধ্যে শহরের উপর দিয়ে হেলিকপ্টার ভ্রমণে পাওয়া যাবে দীপ্যমান এক শহরকে। রাতের বেলায় এ শহরের সৌন্দর্য ধরা পড়ে ভিন্ন রূপে।

সবকিছু মিলিয়ে পুরো ভ্রমণকে প্রাণবন্ত করে রাখবে অপো রেনো ১০এক্স জুম।

উত্তর দিন