ফ্রীল্যান্সারদের জন্য আপওয়ার্কের নতুন নিয়ম

0 1,684

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং সাইট হলো আপওয়ার্ক। আর প্রত্যেক ফ্রীল্যান্সারদের একটি কাঙ্খিত লক্ষ্য থাকে আপওয়ার্ক-এ কাজ শুরু করা। গত ২ এপ্রিল আপওয়ার্কে এলো নতুন এক নিয়ম ফ্রীল্যান্সারদের কাজ করার জন্য।

নতুন এই নিয়মের আদ্যোপান্ত তুলে ধরা হল আজকের এই আর্টিকেলে।

আপওয়ার্কের পুরাতন নিয়মঃ

আপওয়ার্কে জব অ্যাপ্লাই করার জন্য প্রতিবার নির্দিষ্ট কিছু পয়েন্ট এর প্রয়োজন যেগুলোকে “কানেক্টস” বা “কানেক্ট” বলে ।

আগের নিয়ম আনুসারে ,আপওয়ার্ক নির্দিষ্ট কিছু কানেক্ট বিনামূল্যে সকল ফ্রিল্যান্সারকে দিত যার ফলে কারো এক্টিভ প্রোফাইল থাকলেই সে আপওয়ার্কে জবের জন্য এপ্লাই করতে পারতো। প্রতি ফ্রিল্যান্সাররা প্রতি মাসে ৬০ টি করে ফ্রি কানেক্ট পেত আর এজেন্সি পেত ৮০টি ফ্রী কানেক্ট। কিন্তু এপ্রিল ২ তারিখে একটি ইমেইল পাঠিয়ে নতুন এক নোটিশ দিয়েছে আপওয়ার্ক ফ্রিল্যান্সারদেরকে আর জানানো হয়েছে নতুন এক নিয়ম।

কি আছে নতুন নিয়মে?

নতুন নিয়ম যা নিয়ে ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে এত আলোচনা তা মূলত “কানেক্টস” সংক্রান্ত। যে কানেক্টগুলো এতদিন বিনামূল্যে পেয়ে এসেছে ফ্রিল্যান্সাররা ভবিষ্যতে তা আর বিনামূল্যে পাওয়া যাবেনা। যার ফলে  এখন থেকে আপওয়ার্কে জব এপ্লাই করতে হলেও টাকা খরচ করতে হবে ফ্রিল্যান্সারদের। তবে, ক্ল্যায়েন্ট যদি কোনো ফ্রিল্যান্সারকে তার জবে ইনভাইট করে, তাহলে সেই জবটিতে এপ্লাই করার জন্য কোনো কানেক্ট দরকার হবেনা। আর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে নতুন এই নিয়ম কার্যকর হবে মে-জুন মাস থেকে ।

এই আপডেট এর পর সাধারণ ফ্রিল্যান্সার রা প্রতি মাসে ৬০ টি করে ফ্রি কানেক্ট পাবেন না। প্রতি কানেক্ট এখন থেকে ০.১৫ আমেরিকান ডলার রেটে কিনে নিতে হবে। তবে ফ্রিল্যান্সার প্লাস মেম্বার রা প্রতি মাসে ৭০ টা করে কানেক্ট পাবে। তবে একজনের একাউন্টে সর্বোচ্চ ১৪০ টি কানেক্ট অব্যবহৃত থাকতে পারবে।

 

নতুন এই নিয়মের কার্যকারিতাঃ

ফ্রিল্যান্সার ও এজেন্সিগুলোর ক্ষেত্রে এই পরিবর্তনটি এপ্রিলের শেষ অংশ থেকে কার্যকর হওয়া শুরু হবে। নতুন একাউন্টের জন্য এপ্রিলের শেষ থেকে এবং পুরনো ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ২/৫/১৯ থেকে জুনের শেষ এর মধ্যে। বিদ্যমান ফ্রিল্যান্সার ও এজেন্সিগুলোর ক্ষেত্রে ২ মে, ২০১৯ থেকে আস্তে আস্তে পেইড কানেক্টস কার্যকর করা শুরু করবে। ধারণা করা যাচ্ছে, জুনের শেষ দিকে পেইড কানেক্টস সকল ফ্রিল্যান্সারদের জন্য কার্যকর হয়ে যাবে।

 

কানেক্ট এর দাম নির্ধারণঃ

প্রতিটি কানেক্ট এর দাম ০.১৫ আমেরিকান ডলার।

তবে এজেন্সি প্লাস এর দাম ২০ আমেরিকান ডলার প্রতি মাস তবে কোন ধরণের কানেক্ট থাকবেনা কিনে নিতে হিবে বান্ডেল আকারে। এগুলো নিম্নলিখিত বান্ডেল অনুযায়ী ক্রয় করা যাবেঃ

  • ১০টি কানেক্টের জন্য $1.50
  • ২০টি কানেক্টের জন্য $3
  • ৪০টি কানেক্টের জন্য $6
  • ৬০টি কানেক্টের জন্য $9
  • ৮০টি কানেক্টের জন্য $12

 

 

ফ্রিল্যান্সারের কোন কাজে এপ্লাই করতে হলে কানেক্ট আর হিসাবঃ

আপওয়ার্ক মূলত জব এর ভ্যালু অনুযায়ী তাতে অ্যাপ্লাই করতে কতগুলো কানেক্ট লাগবে সেটা হিসাব করে। তাই মূলত কাজের আকারের এর উপর এস্টিমেট করে নির্ণয় করা যাবে কতটি কানেক্ট লাগবে।

আপওয়ার্ক জব এর ভ্যালু নির্ধারণ করার জন্য জবটির জন্য আনুমানিক কত সময় লাগবে, বাজেট এর পরিমাণ কত এবং এর সাথে মার্কেটপ্লেসের ডিমান্ড বিবেচনা করে  থাকে। তার মানে, বড় বাজেটের একটি প্রোজেক্ট এর জন্য ছোট প্রজেক্ট এর চেয়ে বেশি কানেক্ট লাগবে।

যেমনঃ

Quick jobs  বা যে কাজগুলোর বাজেট কম ৪৯ ডলার এর নিচে (size: under 2 days, under $49)- সেই ক্ষেত্রে এক বা দুইটা কানেক্টের প্রয়োজন

Short-term jobs বা এক সপ্তাহের কাজ, বাজেট ৫০ থেকে ৫৯৯ ডলার এর (size: less than a week, $50 to $599)-সেই ক্ষেত্রে ৩ বা চারটি কানেক্টের প্রয়োজন।

Longer-term jobs বা এক সপ্তাহের বেশীদিনের কাজ (size: over a week, $600 and up)- ৫ বা ৬টি 5 or 6 কানেক্টের প্রয়োজন

তবে এটি শুধুমাত্র একটি আনুমানিক হিসাব।আর এই হিসাব অনুযায়ী, গড়ে বেশিরভাগ ফ্রিল্যান্সারের কানেক্টস এর জন্য প্রতি মাসে কমপক্ষে 5 ডলার খরচ করতে হবে।

 

কিছু প্রশ্ন?

আমার কাছে এখন যে কানেক্ট আছে তার কি হবে?

  • এই আপডেট কার্যকর হওয়ার পূর্বে কারো একাউন্টে যে কানেক্ট ছিল তা-ই থাকবে। তবে লিমিট হচ্ছে ১৪০ টা পর্যন্ত। অর্থাৎ, আপডেট নেয়ার আগে যদি আপনার একাউন্টে ১৪০ টার বেশী কানেক্ট থাকে তাহলে শুধু মাত্র ১৪০ টা কানেক্ট আপডেট এর পরে আপনার একাউন্টে ব্যবহার যোগ্য হিসেবে থাকবে বাকীগুলো থাকবেনা।

আপ ওয়ার্কে ঘন্টা প্রতি কাজ সম্পর্কে বলা হয়েছে, আমি জানতে চাই ঠিক কিভাবে আপ ওয়ার্ক এই হিসাব করতে যাচ্ছে?

  • আসলে এই প্রশ্নের উত্তর হল কাজের উপর যেমন কাজ কত দিনের ,বাজেট কেমন এইসবের উপর নির্ভর করবে এই হিসাব।

নতুন ফ্রিল্যান্সারদের জন্য কি সুযোগ কমে গেল?

না, বরং তাদের আরো ভাল ভাবে কাজের সুযোগ তৈরি হলো দক্ষ ফ্রিল্যান্সার হবার জন্য।

কানেক্ট রিফান্ড পলিসি কি আছে?

যদি কোন ক্লায়েন্ট কাউকে হায়ার না করেই জব ক্লোজ করে দেয় তাহলে কানেক্ট ফেরত পাবে আবার কোনো জব পোস্ট যদি আপওয়ার্ক এর Terms and Conditions লঙ্ঘন করে তাহলেও ফেরত পাবে।

ক্লায়েন্টের ইনভাইটেশনের এর ক্ষেত্রে হিসেব কি?

কোন যদি তার জবে কোনো ফ্রিল্যান্সারকে ইনভাইট করে তাহলে সেটাতে এপ্লাই করতে কোন কানেক্ট লাগবেনা।

কানেক্ট এর মেয়াদ কতদিন?

যেদিন থেকে কেনা হবে তখন থেকে এক বছর। অর্থাৎ প্রতিটি কানেক্ট ইস্যু ডেটের এক বছর পর মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে যাবে।

ফ্রিল্যান্সার প্লাস ব্যবহারকারীদের জন্য কোনটি প্রযোজ্য?

ফ্রিল্যান্সার প্লাস ব্যবহারকারীদের জন্য দাম ১০ আমেরিকান ডলার প্রতি মাস যা ১৪.৯৯ আমেরিকান ডলার করা হবে। প্রতি মাসে তারা ৭০ টি কানেক্ট ফ্রি পাবেন

 

আপওয়ার্ক কর্তৃপক্ষ বলছে, পেশাদার ও মানসম্পন্ন ফ্রিল্যান্সারদের আরও বেশি বেশি কনট্রাক্ট পেতে সহায়তা করার জন্যই মূলতও তারা নতুন এই নিয়ম চালু করেছে। তাদের ভাষ্য মতে,  “আমরা জানি এটি একটি বড় পরিবর্তন।তবে এই নতুন পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমরা অনেক ফ্রিল্যান্সার, এজেন্সি এবং ক্লায়েন্টের সাথে সরাসরি কথা বলেছি। আমরা পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে প্ল্যাটফর্ম রিসার্চ করে ফ্রিল্যান্সারদের নতুন ধারায় নিয়োগের নিয়ম রীতি তৈরি করেছি। আমরা দেখেছি যে বেশিরভাগ ফ্রিল্যান্সাররা প্রতি মাসে দেওয়া 60 কানেক্ট টি সম্পূর্ণ ব্যবহার করে না। অবশিষ্ট অতিরিক্ত কানেক্ট জমা হওয়ার কারনে অনেক কম ফ্রিল্যান্সার বাছাই হয় এবং তাদের অধিকাংশই কাজের ধরন অনুযায়ী উপযুক্ত যোগ্যতা সম্পন্ন নয় যা অন্যান্য দক্ষতা সম্পন্ন ফ্রিল্যান্সারদের বঞ্ছিত করে সঠিক কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে।  অভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সাররা বলেছেন যে, নতুন বা অনভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সারগুলি অপ্রাসঙ্গিক প্রস্তাব দিয়ে ক্লায়েন্টদের সাথে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি করে। ক্লায়েন্টরা আমাদের বলেছে যে তারা প্রায়ই অনভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সারদের প্রস্তাবগুলি দেখে হতাশ হয়, বিশেষ করে যখন অনেকেই তাদের প্রোজেক্ট এর প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে পারে না। এই ব্যাপারটি সব পক্ষের জন্যই একটি হতাশাজনক এবং অনাকাঙ্খিত অভিজ্ঞতা হতে পারে ।

আমাদের লক্ষ্য হলো নতুন কানেক্ট সিস্টেমের মাধ্যমে পেশাদার ফ্রিল্যান্সারদের আরো কাজের সুযোগ করে দেওয়া। এই নতুন কানেক্ট সিস্টেমের মাধ্যমে আমরা প্রত্যাশা করি যে অনভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সাররা কাজের জন্য কম প্রস্তাব দিবে যা পরবর্তীতে তাদের বিভিন্ন প্রকল্পের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী দক্ষতা বাড়ানোর জন্য আরো যোগ্য করে তুলবে। এইভাবে ক্লায়েন্টদের আরো যোগ্যতাসম্পন্ন প্রার্থী খুঁজে পেতে এবং অনভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সারদের প্রস্তাবের মাধ্যমে সৃষ্টি হওয়া দ্বন্দ্ব কমাতে সহায়তা করবে আমরা আস্থা রাখি এটি নিয়োগের হার বৃদ্ধি করবে এবং ক্লায়েন্টদের যোগ্যতা সম্পন্ন ফ্রিল্যান্সারদের সাথে যোগাযোগ ও কাজ আরো সহজ করে তুলবে।”

আপ ওয়ার্কের সাথে সাথে আমরাও আশাবাদি এই নতুন নিয়মে যোগ্য হয়ে উঠবে বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অধিকাংশ নতুন ফ্রিল্যান্সার।

 

 

 

উত্তর দিন