৪৫৯৯ টাকায় প্রিমো ইএম২ : ১ জিবি র‍্যাম,৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা,এন্ড্রয়েড ৮.১ ইত্যাদি

0 1,888

সম্প্রতি মার্কেটপ্লেসে এসেছে ওয়ালটন এর নতুন চমক ওয়ালটন প্রিমো ইএম২। ১জিবি র‍্যাম এবং ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা বিশিষ্ট আকর্ষণীয় স্মার্টফোনটিতে রয়েছে অসাধারন ডিজাইন, দারুন ক্যামেরা এবং হার্ডওয়্যার স্পেসিফিকেশন।

ডিভাইসটির বাজার মূল্য ৪৫৯৯ টাকা। হয়ত একেই বলে ‘সাধ্যের মধ্যে অনেক কিছু’। তবে চলুন শুধু কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী হয়ে চলুন আমরা এই নতুন স্মার্টফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানি,

একনজরে ওয়ালটন প্রিমো ইএম২ঃ

  • ১৮ঃ৯ রেসিও সমৃদ্ধ ৪.৯৫ ইঞ্চি এইচডি ফুল ভিউ ডিসপ্লে
  • ৩জি নেটওয়ার্ক কানেকটিভিটি
  • এন্ড্রয়েড ৮.১ এর বিশেষ ‘গো এডিশন’
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
  • ১ জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি রম
  • ২৯২০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি

স্মার্টফোনটির বক্স এর ভেতর যা যা পাওয়া যাবেঃ

  • প্রিমো ইএম ২ ডিভাইসটি
  • ইয়ারফোন
  • অ্যাডাপ্টার
  • ইউএসবি কেবল
  • প্রোটেকটিভ গ্লাস
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
  • এবং সেফটি ইন্সট্রাকশন

ডিজাইন

‘আগে দর্শনদারী পরে গুন বিচারী’ – তাই প্রথমে চলে আসি এই ডিভাইসটির ডিজাইন এবং কালার প্রসঙ্গে। গ্রাহক চাহিদা অনুসারে এই ফোনটিতে থাকছে দুইটি কালার আর এগুলো হলঃ ব্ল্যাক এবং ব্লু। আর এই দুটি কালার আপনার পছন্দের সাথে তাল মিলিয়ে আপনার ব্যক্তিত্ব’কে প্রকাশ এর সুযোগ করে দিবে। দাম হিসেবে এর স্মুথ, সাইনি প্লাস্টিক ডিজাইন এবং মেটাল ফিনিস কেসিং, ডিভাইসটির প্রিমিয়ামনেসকে ফুটিয়ে তুলতে পেরেছে অনেকগুনে! এবং প্রিমো ইএম২ ডিভাইসটির স্মুথ কার্ভড ফিনিস অসাধারন লুক প্রদানের মাধ্যমে এটিকে অনেক অনন্য করে তুলেছে।

ডিসপ্লে

স্মার্টফোনটিতে আছে ১৮ঃ৯ রেসিও সমৃদ্ধ ৪.৯৫ ইঞ্চি এইচডি ফুল ভিউ ডিসপ্লে। যার ফলে অনলাইন ব্রাউজিং এবং অন্যান্য কাজে এই ডিভাইসটি দিয়ে প্রায় পুরো মজা নেয়া সম্ভব হবে; সর্বোচ্চ সুবিধা নেয়া যাবে। এই বড় স্ক্রিন, ট্রেন্ডি লুক আর ব্রাইটনেস বেশি হওয়ায় যে-কোনো কাজের ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর কাছে এটি অনেক সুবিধার হয়ে উঠতে পারে।

ক্যামেরা

প্রিমো ইএম২ স্মার্টফোনটির ফ্রন্ট এবং রিয়ার উভয় পাশেই রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। যেকোনো জায়গায় আপনার মনের মত ছবি সহজেই ফ্রেমবন্দি করতে এই স্মার্টফোনটি হতে পারে আপনার সর্বক্ষণের সাথী।

 

ভালো মানের ছবি তোলার পাশাপাশী এতে রয়েছে বিভিন্ন ফাংশন, যেমন – ম্যানুয়াল মোড, কিউআর কোড রিডার, অডিও পিকচার ইত্যাদি। সেলফি প্রেমিদের জন্য এটি হবে অন্যরকম অভিজ্ঞতা।

অপারেটিং সিস্টেম

ডিভাইসটি এন্ড্রয়েড ৮.১ এর বিশেষ ‘গো এডিশনে’ পরিচালিত। যা এই বাজেট মূল্যে এন্ড্রয়েড এর সেরা অভিজ্ঞতাটি দিবে।

হার্ডওয়্যার

মাল্টি টাক্সিং এর জন্য অবশ্যই প্রসেসর স্পিড দ্রুত গতির হওয়া প্রয়োজন। তাই সময়ের সাথে কাজের সামঞ্জস্যতা বজায় রাখতে প্রিমো ইএম২ স্মার্টফোনটিতে আছে ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর।

 

ফোনটিতে আরও থাকছে ১ জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি রম। এতে ৬৪ জিবি পর্যন্ত এসডি কার্ড সাপোর্ট করবে। আর টি৮২০ জিপিইউ টুকটাক গেমস এর জন্য চলনসই।

ব্যাটারি

ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ২৯২০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। যা আপনার ফোনটিকে দীর্ঘক্ষণ ব্যবহার উপযোগী করে রাখবে। কোনরকম দুশ্চিন্তা ছাড়াই ব্যবহারকারি তার টুকটাক কাজ নির্বিঘ্নে সময় নিয়ে করতে পারবে।

ওটিএ

স্মার্টফোনটির যেকোনো সফটওয়্যার এবং সিকিউরিটি প্যাচ আপডেট এর জন্য এতে দেয়া হয়েছে অভার দ্যা এয়ার তথা ওটিএ সুবিধা। যার মাধ্যমে যদি কোন ফিউচার কিছু আপডেট আসে তা সহজেই পাওয়া যাবে।

নোটিফিকেশন লাইট

আরও থাকছে একটি নোটিফিকেশন লাইট।


এই ছিল ওয়ালটন প্রিমো ইএম২ এর বিস্তারিত রিভিউ। আশাকরি নতুন স্মার্টফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত যাবতীয় তথ্য এই আর্টিকেল থেকে জানতে পেরেছেন। আর আপনার কোনো জিজ্ঞাসা বা মতামত থাকলে তা নিচে জানাতে ভুলবেন না।

উত্তর দিন