স্বল্প খরচে ডিজিটাল ভোল্ট মিটার (০-৩০ ভোল্ট, ডিসি)

0 236

ডিসি ভোল্ট মিটার(০ থেকে ৩০ ভোল্ট)

DC-Voltmeter-0-30V-300x225

ভোল্ট মিটার এর প্রয়জনীতার কথা বলে শেষ করা যাবেনা, আর যদি তা হয় ডিজিটাল ভোল্ট মিটার, হবিস্ট দের কাছে তো এর বিকল্প ভাবাই যায়না, কোন প্রজেস্ট এর ইনপুট পাওয়ার সাপ্লাই এর জন্য যারা ভেরিয়েবল পাওয়ার সাপ্লাই ব্যাবহার করেন তাদের কাছে এটা সোনায় সোহাগা। একটা ভোল্ট মিটার থাকলে আপনি অনায়াসে লোডের ইনপুট ভোল্ট কে সেট করে নিতে পারবেন। যাহ আপনার ডিভাইজ এর কাজ করার এ্যাকুরিসি বাড়িয়ে দেয়। এবং প্রজেক্ট এর নষ্ট হওয়া থেকে বাঁচিয়ে দেয়। এটা তৈরির জন্য দুই ধরনের ডিভাইস ব্যাবহার করা যায় , ডিজিটাল আইসি বেজ ও মাইক্রোকন্ট্রোলার বেজ। মাইক্রোকন্ট্রোলার বেজ নিয়ে আমরা এই প্রজেক্ট বানবো কেননা এই মাইক্রোকন্ট্রোলার বেজ সিস্টেম সুবিধাজনক। যেমন খরচ কম হয়, জটিলতা কম সার্কিট ছোট। ডিজিটাল আইসি টি মনে হয় ৩০০-৫০০ টাকার মত স্টেডিয়াম মার্কেট-এ

ICL7107-300x101

প্রজেক্ট
প্রজেক্ট টি PIC 16F676 মাইক্রোকন্ট্রোলার দিয়ে বানাব  । ইনপুট ভোল্ট মেজর করে MCU(মাইক্রোকন্ট্রোলার) এর internal adc কনভার্টার ও রেজিস্টারের নেট ওয়ার্ক। adc কনভার্টার ও রেজিস্টারের নেট ওয়ার্ক ভোল্টেজ কে বিভাজিত করে ইনপুট ভোল্ট পরিমাপ করে। আর যাহা ডিজিটাল আকারে ৩ টি ৭ সিগমেন্ট ডিসপ্লে তে প্রদর্সিত হয়। ডানের ডিজিট টা দশমিক এবং বামের দুইটা পূর্ন মান দেখায়। ডিভাইস টি চালনা করার জন্য ভোল্টেজ রেগুলেটর 7805 IC ও ফিল্টারিং

cercate

ক্যাপাসিটর ব্যাবহার হয়েছে , ৭ সিগমেন্ট কে ড্রাইভ করার জন্য ব্যাবহার করা হয় ৩ টি ট্রানজিস্টার ১০ টি রেজিস্টেন্স। একটি ভেরিয়েবল যাহা ভোল্ট কে এডজাস্ট করার জন্য । এছাড়া 5.1 যেনার ডায়ড ব্যাবহার হয়েছে যাতে MCU এর ইনপুট পরিমাপের ভোল্ট ৫ ভোল্ট এর উপর না যায়।

পিসিবিঃ

Screenshot_2015-10-16-11-35-29_20151016113858891-226x300

বানাতে ১৪০/- থেকে যায়গা ভেদে ১৮০/- হতে পারে।

Source:  Amader Electronics, Author: G.M Khalilur  Rahman

উত্তর দিন