Walton Primo H4 এর হ্যান্ডস-অন রিভিউ

0 205

দেশের বাজারে সম্প্রতি ওয়ালটন এনেছে এন্ট্রি লেভেলের ফোন Primo H4, চমৎকার ডিজাইনের এই ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপ অপারেটিং সিস্টেম, ওটিজি সাপোর্ট, ফ্রন্ট ক্যামেরায় ফ্ল্যাশসহ রয়েছে দারুণ সব ফিচার।
ওয়ালটনের প্রিমো এইচ সিরিজের নতুন স্মার্টফোন Primo H4 এর বিল্ড কোয়ালিটি, ডিজাইন, ব্যাটারি ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, বেঞ্চমার্ক স্কোর, ক্যামেরা পারফরম্যান্স প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আজকের পোস্ট strong>Walton Primo H4 এর Hands-on Review
Primo H4 review

রিভিউয়ের শুরুতেই চলুন দেখে নিই Primo H4 এর আনবক্সিং:
Primo H4 এর সাথে পাবেন-

  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড

Primo H4 unboxing review

বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইনঃ
Primo H4 ফোনটির বডি দেখতে অনেকটাই মেটালিক, এছাড়া এটি হাতে নিলেও বেশ দারুণ ফিল হয়। এর একপার্শ্বের অংশে রয়েছে ভলিউম কী আর অন্যপার্শ্বে পাওয়ার কী, এর উপরের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট ও ইউএসবি ২.০ পোর্ট ।
Primo H4 review

এর পেছনের দিকে উপরের অংশে আছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও ফ্ল্যাশলাইট আর নিচের দিকে রয়েছে স্পীকার।
Primo H4 review

১৪৩ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৭১ মিলিমিটার আর এর পুরুত্ব ৮ মিলিমিটার। ব্যাটারিসহ এর ওজন ১৩৬ গ্রাম।

Primo H4 hands-on review

অপারেটিং সিস্টেমঃ
Primo H4 ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপ ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া এতে OTA আপডেট থাকায় পরবর্তীতে আরও আপডেট পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ওয়ালটন।
Primo H4 review OS

Primo H4 review OS

ডিসপ্লে ও ইউজার ইন্টারফেস:
এই ফোনে ৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে, আর এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ১২৮০x৭২০ পিক্সেলের।
Primo H4 Display
অ্যান্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপ চালিত এই ফোনের ইউজার ইন্টারফেস-
নোটিফিকেশন বার:
Primo H4 Notification Bar

হোমস্ক্রীন:
Primo H4 Home screen

অ্যাপ ড্রয়ার:
Primo H4 App Drawer

ডায়ালপ্যাড:
Primo H4 Dialpad

প্রসেসর ও জিপিউ:
১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসরসমৃদ্ধ Walton Primo H4 এ মিডিয়াটেকের MT6580 চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে। এতে মাল্টিটাস্কিং, গেমিং প্রভৃতি বেশ স্মুথলি করা যায়।
Primo H4 Chipset

ওয়ালটন তাদের এই ফোনে মালি-৪০০ জিপিউ ব্যবহার করেছে। এই ফোনের গ্রাফিক্স কোয়ালিটি কিংবা গেমিং পারফরম্যান্স মোটামুটি।
Primo H4 review GPU
গেমিং পারফরম্যান্স:
এন্ট্রি লেভেলের এই ফোনটি সাধারণ গেমিংয়ের জন্য মন্দ নয়। কোয়াডকোর প্রসেসর ও ১ গিগাবাইট র‍্যামবিশিষ্ট এই ফোনে বিভিন্ন ধরণের গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়। এই ফোনে হালের জনপ্রিয় বিভিন্ন গেম যেমন – ফিফা ১৬, ক্ল্যাশ অফ ক্ল্যানস, কিংডম রাশ, টেম্পল রান ওজেড প্রভৃতি কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।
Primo H4 Gaming review

ক্যামেরা:
Primo H4 স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা। নয়েজবিহীন ছবি তোলা নিশ্চিত করতে এর ক্যামেরায় CMOS সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া ক্যামেরায় অটোফোকাস, এলইডি ফ্ল্যাশ প্রভৃতি সুবিধাতো থাকছেই।
Primo H4 এর ক্যামেরা ইন্টারফেস –
Primo H4 Camera Review

Primo H4 Camera Review 2
Primo H4 Camera Review 3

Primo H4 এর ক্যামেরায় তোলা ছবিঃ
Primo H4 review Camera Sample
Primo H4 review Camera Sample 2
Primo H4 review Camera Sample 3

সেলফি তোলা কিংবা ভিডিও কলিংয়ের জন্য আছে এই ফোনে আছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা, ফলে যারা সেলফি তুলতে ভালোবাসেন তাদের নিকট এই ফোন হতে পারে বেশ পছন্দের।
Primo H4 এ তোলা সেলফি-
Primo H4 review Front Camera Sample
মেমোরী ও র‍্যাম:
Primo H4 স্মার্টফোনটিতে ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে প্রায় ৪.৭ গিগাবাইট ব্যবহারযোগ্য।
Primo H4 review Memory
এই ফোনে রয়েছে থাকা ১ গিগাবাইটের র‍্যামের মধ্যে প্রায় ৯৬৮ মেগাবাইট ব্যবহারযোগ্য।
Primo H4 RAM

মাল্টিমিডিয়া:
এই ফোনে আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহৃত হওয়ায় এতে দারুণভাবে ভিডিও উপভোগ করা যায়। এই ফোনে ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলে।
Primo H4 video review
Primo H4 এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মোটামুটি মানের, এর অডিও সাউন্ড কোয়ালিটিকে বেশ ভালো বলা যায়। আর

ব্যাটারি:
৫ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লে সংবলিত Primo H4 এ ২,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। এর ব্যাটারী ব্যাকআপ মোটামুটি, একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৪.৫ ঘন্টা থেকে ৫ ঘন্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা প্রায় ৫ ঘন্টা এইচডি ভিডিও উপভোগ করা যায়।
Primo H4 Battery
কানেক্টিভিটি:
এই ফোনে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। এর পাশাপাশি আছে জিপিএস নেভিগেশন সুবিধা। আর ওয়ালটনের অধিকাংশ স্মার্টফোনের ন্যায় Primo H4 এ-ও রয়েছে ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা । এর একটি সিম স্লট মাইক্রো-সিম সাপোর্টেড আর অন্যটি মিনি সিম সাপোর্টেড, এছাড়া এর উভয় সিমেই থ্রিজি সুবিধা উপভোগ করা যায়।

বেঞ্চমার্ক:
কোন ডিভাইসের সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য সাধারণত বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাই করা হয়ে থাকে। Primo H4 এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নেওয়া হয়েছিলো। AnTuTu তে এর স্কোর এসেছে ১৯,৯৯৯; এন্ট্রি লেভেলের ফোনে যা উল্লেখ করার মতো।
Primo H4 review Antutu Benchmark Score
AnTuTu স্কোরের দিক থেকে Xiaomi Mi2, Asus Zenfone 5 প্রভৃতির পর Primo H4 এর অবস্থান।
Primo H4 review Antutu Benchmark Score

বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের আরেক অ্যাপ Nenamark এ Primo H4 এর স্কোর এসেছে ৫৬
Primo H4 hands-on review Nenamark Score

স্পেশাল ফিচার:
স্পেশাল ফিচার হিসেবে এই ফোনটিতে রয়েছে স্মার্ট স্লাইড, নোটিফিকেশন লাইট প্রভৃতি দারুণ সব ফিচার, আর ইউনিফাইড স্টোরেজ সুবিধার কথা তো ইতোঃপূর্বে বলেছিই! এছাড়া এই ফোনে OTG এবং OTA সুবিধা রয়েছে।
Primo H4 Special Feature
একনজরে Primo H4 এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ-

  • অ্যান্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপ
  • ৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে
  • ১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ১ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • মালি ৪০০ জিপিউ
  • ৮ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৮ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী
  • ডুয়েল সিম
  • ২,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি

Primo H4 Specs

দাম:
দারুণ কনফিগারেশনের এন্ট্রি লেভেলের ডিভাইস Primo H4 এর দাম ৮,৭৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।
Primo H4 Price

Primo H4 এর পজিটিভ দিকসমূহ:

  • ইউনিফাইড স্টোরেজ সুবিধা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরায় ফ্ল্যাশ
  • ওটিজি সাপোর্ট
  • ললিপপ অপারেটিং সিস্টেম
  • আকর্ষণীয় ডিজাইন

Primo H4 এর সীমাবদ্ধতা:
এন্ট্রি লেভেলের স্মার্টফোন Primo H4 এর মূল্য কিছুটা কম হলে ভালো হতো, এছাড়া এর আর কোন সীমাবদ্ধতা চোখে পড়ার মতো নয়।
Primo H4 hands-on review

শেষ কথা:
কমদামে অধিক ফিচার ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের ফোন কিনতে চাইলে Primo H4 হতে পারে অন্যতম পছন্দ। বিশেষ করে আপনি যদি একজন সেলফিপ্রেমী হন তাহলে এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরার ফ্ল্যাশ আপনাকে মুগ্ধ করবে।

উত্তর দিন