Primo RH2 হ্যান্ডস-অন রিভিউ Primo RH সিরিজের ফোন

0 153

সম্প্রতি দেশীয় স্মার্টফোন বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের প্রিমো আরএইচ সিরিজে যুক্ত হয়েছে নতুন একটি স্মার্টফোন Primo RH2, অক্টাকোর প্রসেসরের এই ফোনটি হালকা গড়নের কারণে সহজেই ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম, ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে সংবলিত এই ফোনের ডিসপ্লের নিরাপত্তায় রয়েছে গরিলা গ্লাস, রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা, হল সেন্সর, ওটিজি সাপোর্ট প্রভৃতি ফিচার। আর সাম্প্রতিককালে বাজারে আসা ওয়ালটনের অন্যান্য ফোনের ন্যায় এই ফোনেও রয়েছে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা, ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ৯,৯৯০ টাকা মূল্যের Primo RH2 বর্তমান বাজারের সবথেকে কম মূল্যের অক্টাকোর স্মার্টফোন।

Primo RH2 Review

primo rh2 (3)

ডুয়েল সিম সুবিধার Primo RH2 ফোনটির আরেকটি উল্লেখযোগ্য দিক হলো এর উভয় সিমেই থ্রিজি সুবিধা উপভোগ করা যায়। এই ফোনের আরেকটি বিশেষ দিক হলো এতে স্পেশাল নিরাপত্তা ফিচার যুক্ত করা হয়েছে, যার সাহায্যে ব্যবহারকারী তার ফোন হারিয়ে গেলে দূর থেকেই ফোন লক, ডাটা মুছে ফেলা প্রভৃতি কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন। এছাড়া এতে রয়েছে ইউনিফাইড স্টোরেজ সুবিধা, অর্থাৎ এর পুরো ইন্টারনাল মেমোরিই অ্যাপ ইন্সটলের জন্য ব্যবহার করা যাবে।

বাজারে আসা নিত্যনতুন সব স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ পাঠকদের সামনে তুলে ধরতে যুগ টেক বরাবরই সচেষ্ট। এরই ধারাবাহিকতায় ওয়ালটনের নতুন স্মার্টফোন Primo RH2 এর ডিজাইন, ব্যাটারি ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, বেঞ্চমার্ক স্কোর, ক্যামেরা পারফরম্যান্স প্রভৃতি বিশ্লেষণধর্মী তথ্য পাঠকদের জানাতেই আজ থাকছে Walton Primo RH এর Exclusive Hands-on Review

primo rh2 (5)

যুগ পাঠক, চলুন তাহলে একনজরে Primo RH2 এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ দেখে নেওয়া যাক –

  • অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে
  • ১.৪ গিগাহার্জ গতির অক্টাকোর প্রসেসর
  • ১ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • মালি ৪৫০ জিপিউ
  • ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৮ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরি
  • ডুয়েল সিম
  • ওটিজি সাপোর্ট
  • ২,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন পলিমার ব্যাটারি

primo rh2 (13)

এবারে তাহলে বিস্তারিত রিভিউয়ের দিকে যাওয়া যাক-

আনবক্সিং:
Primo RH2 স্মার্টফোনটির বক্সে যা যা রয়েছে –

  • হ্যান্ডসেট
  • ব্যাটারি
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ওটিজি ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
  • স্ক্রিন পেপার
  • স্মার্ট ফ্লিপ কভার

primo rh2 (10)

অপারেটিং সিস্টেম:
Primo RH2 ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহার করা হয়েছে।

primo rh2 (8)

বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইন:
প্রিমো আর এইচ স্মার্টফোনটি আকর্ষণীয় ও নজরকাড়া ডিজাইনের। এর উপরের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট ও ইউএসবি ২.০ পোর্ট । ফোনটির একপাশের অংশে রয়েছে ভলিউম কী ও পাওয়ার কী। ১৪০ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৭১.৯ মিলিমিটার আর এর পুরুত্ব মাত্র ৭.৯ মিলিমিটার। হালকা গড়নের এই ফোনের ওজন মাত্র ১৩২ গ্রাম (ব্যাটারিসহ) ।

primo rh2 (15)

প্রিমো আর এইচ স্মার্টফোনটির পেছনের দিকে উপরের অংশে আছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও ফ্ল্যাশলাইট আর নিচের দিকে রয়েছে স্পীকার। এছাড়া সম্মুখভাগে ফ্রন্ট ক্যামেরা, সেন্সর, স্পীকার প্রভৃতি তো রয়েছেই। এর পাশাপাশি এই ফোনে হোম/মেনু, অপশন ও ব্যাক – এই তিনটি বাটন রয়েছে ।

primo rh2 (12)

ডিসপ্লে:
এই ফোনে ৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে, আর এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ১২৮০x৭২০ পিক্সেলের। ডিসপ্লের নিরাপত্তায় এতে কর্নিংয়ের দ্বিতীয় প্রজন্মের গরিলা গ্লাস ব্যবহৃত হয়েছে।

primo rh2 (9)

ইউজার ইন্টারফেস:
ওয়ালটনের Primo RH2 ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহৃত হয়েছে, এর ইউজার ইন্টারফেস অন্যান্য ফোনের মতোই।
নোটিফিকেশন বার:
primo rh2 (2)
হোমস্ক্রিন:
primo rh2 (10)
অ্যাপ ড্রয়ার:

primo rh2 (3)
সিপিইউ:
সিপিউ হিসেবে এই ফোনে রয়েছে ১.৪ গিগাহার্জ গতির অক্টাকোর প্রসেসর, ফলে এই ফোনে মাল্টিটাস্কিং, এইচডি গেমিং প্রভৃতি বেশ স্মুথলি করা যায়।

primo rh2 (11)

চিপসেট:
স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোনসমূহে সাধারণত মিডিয়াটেক চিপসেট ব্যবহার করা হয়ে থাকে, ব্যতিক্রম ঘটেনি Walton Primo RH2 এর ক্ষেত্রেও। এই ফোনে মিডিয়াটেকের MT6592 চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে ।

primo rh2 (12)
জিপিইউ:
অক্টাকোর প্রসেসরের এই ফোনে মালি-৪৫০ জিপিউ ব্যবহার করেছে। ফলশ্রুতিতে এর গ্রাফিক্স কোয়ালিটি কিংবা গেমিং পারফরম্যান্স বেশ চমৎকার।
মেমোরি:
Primo RH2 স্মার্টফোনটিতে ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে প্রায় ৫.৭ গিগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। এছাড়া এতে OTG সুবিধা থাকায় এতে পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডডিস্কসহ বিভিন্ন ধরণের ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

primo rh2 (5)

র‍্যাম:
এই ফোনে রয়েছে ১ গিগাবাইটের র‍্যাম, যার মধ্যে প্রায় ৯৫৩ মেগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। এতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক অ্যাপস ইন্সটল করলেও র‍্যামের প্রায় অর্ধেক ফাঁকাই থাকে। এতে Facebook, AnTuTu, Viber সহ প্রয়োজনীয় নানা অ্যাপ্লিকেশন রানিং থাকার পরেও ৩০৮ মেগাবাইট র‍্যাম ফাঁকা ছিল।

primo rh2 (6)

ক্যামেরা:
Primo RH2 স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, যদিও ওয়ালটন তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে যে, এই ফোনের রিয়ার ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেলের। কিন্তু নিচের ২টি স্ক্রিনশট লক্ষ্য করলেই আশা করি ক্যামেরার বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে-

দেখুন ক্যামেরা সেটিংস এর স্ক্রিনশট –

primo rh2 (4)

AnTuTu বেঞ্চমার্ক হতে প্রাপ্ত তথ্য –

primo rh2 (14)

উন্নতমানের ছবি তোলা নিশ্চিত করতে এর ক্যামেরায় BSI সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া ক্যামেরায় অটোফোকাস, এলইডি ফ্ল্যাশ প্রভৃতি সুবিধাতো থাকছেই।
দেখুন দিনের আলোতে এই ফোনের ক্যামেরায় তোলা ছবি:

primo rh2 (6)

primo rh2 (7)

primo rh2 (8)

এসবের পাশাপাশি হালের ফ্যাশন ‘সেলফি’ তোলা কিংবা ভিডিও কলিংয়ের জন্য আছে ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা।

মাল্টিমিডিয়া:
Primo RH2 এ রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাক। এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মানানসই, এর অডিও সাউন্ড কোয়ালিটিও দারুণ। এই ফোনে আরও আছে এফএম রেডিও, সে সাথে থাকছে এফএম রেডিও রেকর্ডার। ফলে আপনি আপনার পছন্দের কোন রেডিও প্রোগ্রাম অনায়াসেই রেকর্ড করতে পারবেন।

primo rh2 (1)

আর এই ফোনের ডিসপ্লে কোয়ালিটি বেশ উন্নত হওয়ায় এতে দারুণভাবে ভিডিও উপভোগ করা যায়। এছাড়া এই ফোনে অক্টাকোর প্রসেসর ব্যবহৃত হওয়ায় ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলে।

primo rh2 (16)

গেমিং পারফরম্যান্স:
তরুণ প্রজন্মের স্মার্টফোন কেনার পেছনে গেমিংয়ের উদ্দেশ্যটাই মূখ্য ভূমিকা পালন করে। সেদিক থেকে অক্টাকোর প্রসেসর ও মালি-৪৫০ জিপিউসমৃদ্ধ Primo RH2 এর গেমিং পারফরম্যান্স মন্দ নয়। অক্টাকোর প্রসেসর ও ১ গিগাবাইট র‍্যাম বিশিষ্ট এই ফোনে বিভিন্ন ধরণের এইচডি গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়। এই ফোনে মডার্ন কমব্যাট ৪, মাইন ক্র্যাফট, কিংডম রাশ, ক্ল্যাশ অব ক্ল্যান্স, অ্যাসফাল্ট ৮, রিয়াল ক্রিকেট, টেম্পল রান ২ প্রভৃতি জনপ্রিয় গেম কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।

primo rh2 (1)

primo rh2 (16)

কানেক্টিভিটি:
এই ফোনে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। এছাড়া জিপিএস নেভিগেশন সুবিধাতো রয়েছেই।

সিম:
ওয়ালটনের অধিকাংশ স্মার্টফোনের ন্যায় এই ফোনেও ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা বিদ্যমান। আর এর উভয় সিমেই থ্রিজি সুবিধা উপভোগ করা যায়।

রং:
কালো ও ধূসর – এই ২টি রংয়ে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে Primo RH2

primo rh2 (14)

ব্যাটারী:
৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে সংবলিত Primo RH2 এ ২,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। এর ব্যাটারি ব্যাকআপ মোটামুটি মানের। একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৪-৪.৫ ঘণ্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা প্রায় ৫ ঘণ্টা এইচডি ভিডিও উপভোগ করা যায়।

primo rh2 (2)
ওটিজি:
ওয়ালটনের নতুন এই ফোনে রয়েছে OTG (USB On The Go) সুবিধা। ফলে ব্যবহারকারী এতে মাউস, কীবোর্ড, পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডডিস্কসহ বিভিন্ন ধরণের ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

বেঞ্চমার্ক:
কোন ডিভাইসের সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য সাধারণত বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাই করা হয়ে থাকে। Primo RH এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নেওয়া হয়েছিলো। AnTuTu তে এর স্কোর এসেছে ২৮৩০৮, স্বল্পমূল্যের ফোনে যা অভাবনীয় !

primo rh2 (9)

বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের আরেক অ্যাপ NenaMark এ Primo RH2 এর স্কোর এসেছে ৪৮

primo rh2 (15)
স্পেশাল ফিচার:
এই ফোনে স্পেশাল ফিচার হিসেবে রয়েছে নোটিফিকেশন লাইট, ইউনিফাইড স্টোরেজ প্রভৃতি সুবিধা। Primo RH2 এর একটি বিশেষ দিক হলো এতে Anti-Theft এর মতো নিরাপত্তা ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। এই ফিচারের সাহায্যে ব্যবহারকারী তার ফোন হারিয়ে গেলে দূর থেকেই ফোন লক, ডাটা মুছে ফেলা প্রভৃতি কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

primo rh2 (7)
OTA আপডেট সুবিধা:
এই ফোনে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা রয়েছে, যার ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে।
মূল্য:
ক্রেতাদের সাধ্যের কথা বিবেচনা করে আকর্ষণীয় ডিজাইন ও চমৎকার সব ফিচার সংবলিত Primo RH2 স্মার্টফোনটির মূল্য মাত্র ৯,৯৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।এতো কম মূল্যে এই মুহূর্তে বর্তমানে বাজারে আর কোন অক্টাকোর প্রসেসরের ফোন নেই।

Primo RH2 এর ভালো লাগার দিকসমূহ:

  • স্বল্পমূল্য
  • অক্টাকোর প্রসেসর
  • OTA আপডেট
  • ইউনিফাইড স্টোরেজ

primo rh2 (4)

Primo RH2 এর কিছু সীমাবদ্ধতা:
স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোন Primo RH2 এ কোন উল্লেখযোগ্য সীমাবদ্ধতা চোখে পড়েনি, তবে এই ফোনের ব্যাটারি আরেকটু অধিক মিলিঅ্যাম্পিয়ারের হলে তা হয়তো ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণে অধিক সক্ষম হতো।

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত:
যারা স্বল্পমূল্যে প্রয়োজনীয় নানা ফিচার ও দ্রুতগতির প্রসেসর সমৃদ্ধ স্মার্টফোন কিনতে চান, অক্টাকোর প্রসেসর, দারুণ সব ফিচার, প্রয়োজনীয় নানা কনফিগারেশনের সমাহার প্রভৃতি নানাদিক মিলিয়ে Primo RH2 হতে পারে তাদের আদর্শ পছন্দ। যারা ১০,০০০ টাকা বাজেটের মধ্যে প্রয়োজনীয় প্রায় সকল ফিচার সংবলিত স্মার্টফোন কিনতে চান তাদের পছন্দের শীর্ষ তালিকায় থাকবে Walton Primo RH2 – এমন কথা অনায়াসেই বলা যায়। অন্যকথায় বলতে গেলে বলা যায় – স্পেসিফিকেশন, মূল্য, পারফরম্যান্স প্রভৃতি দিক বিবেচনায় বর্তমানে এই প্রাইস রেঞ্জের সেরা ফোন Primo RH2

primo rh2 (13)
Primo RH2 সম্পর্কে আপনাদের মূল্যবান মন্তব্য কিংবা প্রশ্ন লিখুন কমেন্টে। নতুন কোন স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ নিয়ে আবারও দেখা হবে আপনাদের সাথে। সবাই ভালো থাকুন আর থাকুন যুগ টেকের সাথে

zugtech থেকে সংগ্রহীত গুগল প্লাস

উত্তর দিন