Kali Linux Hacking Tutorial (Part:1): কিভাবে ভার্চুয়াল বক্স ব্যাবহার করে কালি লিনাক্স ইন্সটল দিতে হয়।

0 243

সবাইকে স্বাগতম জানাচ্ছি হ্যাক স্কুল বিডির Hacking With Kali Linux টিউটোরিয়ালে ,

আজকে থেকে আমি নিয়মিত কালি লিনাক্স নিয়ে বিভিন্ন টিউটোরিয়াল আপনাদের সাথে শেয়ার করবো, আশা করি আপনারা নতুন কিছু শিখতে পারবেন এই টিউটোরিয়াল গুলো থেকে ।

আজকের টিউটোরিয়ালে আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে আপনারা ভার্চুয়াল বক্স ব্যাবহার করে কালি লিনাক্স চালাতে পারেন  ।  চলুন তাহলে শুরু করা যাক । প্রথমেই আপনি এই লিঙ্কে গিয়ে কালি লিনাক্স ডাউনলোড করে নিতে পারেন আপনার সিস্টেম রিকুয়েরমেন্ট অনুযায়ী এরপর এই লিঙ্ক থেকে গিয়ে আপনারা ভার্চুয়াল বক্স ইন্সটল করে

নিন । এই টিউটোরিয়ালে আমি আপনাদের স্টেপ বাই স্টেপ দেখাতে চেষ্টা করবো কিভাবে কালি লিনাক্স ইন্সটল দিতে হয় এবং ইন্সটলের পরে কিছু সাধারন সমস্যা দেখা দেয় সেগুলো কিভাবে সলভ করা যায় সেটা।  ভার্চুয়াল বক্স ডাউনলোড করার পর ইন্সটল করে নিন ।। আবার ভার্চুয়াল বক্স ওপেন করে CTRL+N চাপুন তাহলে নিচের ইমেজের মতো একটি বক্স ওপেন হবে।

ইমেজটা ফলো করে সেটিং করুন 64 bit হলে আপনার সিস্টেম 64 বিট সিলেক্ট করুন অথবা লিস্টে ubuntu লেখা একটি অপশন দেখতে পাবেন সেটা সিলেক্ট করে দিন ।

মেমোরি সাইজ দিতে হবে কমপক্ষে 512 mb আপনি চাইলে আপনার সুবিধা মতন আরো বাড়িয়ে নিতে পারেনঃ

এরপর নেক্সটে ক্লিক করুন, এবং এরপরে এই বক্স টি দেখতে পাবেন সেখানে “Create a virtual hard drive now”” দেখতে পাবেন create ক্লিক করুন ছবি তে যেভাবে আছে

সেটিং সেভাবেই রাখুন।

আপনি যদি এই ভার্চুয়াল মেশিনের ইমেজ ফাইল অন্য কোনো সফট ওয়্যার যেমন vmware দিয়ে ইউজ করতে চান ভবিষ্যতে তাহলে

vmdk ইমেজ সিলেক্ট করুন যদি না চান বা সেটার প্রয়োজন না হয় তাহলে vdi image সিলেক্ট করুন, সিলেক্ট করার পর নেক্সটে ক্লিক করুনঃ

এরপরে “Dynamically allocated” এই অপশনটি সিলেক্ট করুন, এটা সিলেক্ট করলে সিস্টেম নিজের প্রয়োজন মতো যতটুকু মেমোরি দরকার সেটুকুই ব্যাবহার করবে।

এরপর নেক্সটে ক্লিক করুনঃ

এরপরে বক্সে কমপক্ষে 15gb হার্ড ডিস্ক নির্ধারন করে দিন ভার্চুয়াল মেশিনের জন্যে, এবং এরপরে ক্রিয়েটে ক্লিক

করুন । ভার্চুয়াল মেশিন তৈরি হয়ে গেছে এখন আমরা আমাদের বানানো অপেরেটিং সিস্টেম boot করবো , কালি লিনাক্সে boot করার আগে আমাদের কিছু পরিবর্তন করতে হবে

তাই আপনার বানানো ইমেজ ফাইলটি সিলেক্ট করে সেটিং এ ক্লিক করুনঃ

এরপরে System>Processor যান এবং  “Enable PAE/NX” এই অপশনটি Enable করে দিন এবং Ok বাটনে ক্লিক করুনঃ

এরপরে ভার্চুয়াল মেশিম চালু করে আপনার ডাউনলোড করা কালি লিনাক্সের .iso ফাইলটি সিলেক্ট করে দিনঃ

এরপর ইন্সটল অপশনটি সিলেক্ট করুন এবং এন্টার চাপুনঃ

এরপর আপনার ল্যাঙ্গুয়েজ সিলেক্ট করে দিন এবং আপনি যে লোকশনে মানে যে দেশে আছেন সেটা সিলেক্ট করে দিন 🙂 বাংলাদেশের জন্যে কোনো অপশন নেই তাই আমি বাংলাদেশের কাছাকাছি ইন্ডিয়া বলে সে

অপশনটি সিলেক্ট করছি 😛

এরপর আপনার সুবিধা মতন কি-বোর্ড সিলেক্ট করুন আমি american english কি-বোর্ডটি সিলেক্ট করলামঃ

এরপর সিস্টেম কাজ করা শুরু করে দিবে, এবং কিছুক্ষন পর আপনি hostname যোগ করার অপশন দেখতে পারেন সেখান থেকে আপনার যে নাম ইচ্ছে সে নাম দিন এবং কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করুনঃ

আপনি চাইলে ডোমাইন নেইম দিতে পারেন যদিও এটা দেওয়ার দরকার নেই, সুতারাং বক্সটিতে কিছু লেখার দরকার নেই, না লিখেই কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করুনঃ

এখন আপনি পাসওয়ার্ড এন্টারের জন্যে অপশন পাবেন এখানে আপনি আপনার অপেরেটিং সিস্টেমের admin user যেটা লিনাক্সের ক্ষেত্রে হয় root সেটার জন্যে পাসওয়ার্ড নির্ধারন করবেন ,

এই বক্সটিতে আপনার ইচ্ছে মত পাসওয়ার্ড টাইপ করে কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করুনঃ

এবং আবার পাসওয়ার্ডটি লেখুন কনফার্ম করার জন্যে এবং কন্টিনিউ বাটনে ক্লিক করুন ।

এখন আপনি partition disk অপশন দেখতে পাবেন, আপনি যদি এই ব্যাপারে অভিজ্ঞ না হোন বা আপনার কোনো আইডিয়া না থাকে তাহলে আমি আপনাকে পরামর্শ দিবো “Guide-use-entire-disk” অপশনটি সিলেক্ট করতেঃ

Disk partitioning. কনফার্ম করুনঃ

এখন আপনার partitioning scheme সিলেক্ট করে দিতে হবে প্রথম অপশনটি সিলেক্ট করে দিনঃ

এবার আপনি এতক্ষন ধরে যেসব সেটিং করেছেন সেটা বিস্তারিত দেখতে পাবেন, আপনি যা সিলেক্ট করেছেন সেটা সম্পর্কে আপনি যদি নিশ্চিত হোন তাহলে “Finish partitioning and write changes to disk.” সিলেক্ট করে কনফার্ম করুন!

এবার yes অপশনটি সিলেক্ট করুন ।

ইন্সটলাইজেশনের প্রসেস শুরু হয়ে যাবে এবং আপনি নিচের ইমেজের মতো দেখতে পাবেনঃ

ইন্সটলাইজেশন চলার মধ্যে খানে আপনি দেখতে পাবেন যে ” if you want to use a network mirror” এই লেখাটি no সিলেক্ট করুনঃ

এরপর বেশ কিচ্ছুক্ষন ধরে একটি নীল রঙের স্ক্রিন দেখা যাবে চিন্তার কিছু নেই ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন, ইন্সটলাইজেশন প্রসেস আবার কন্টিনিউ হবে কিছুক্ষনের মধ্যেই ।

এরপরে সিস্টেম আপনাকে জিজ্ঞাসা করবে আপনি grub loader to mbr ইন্সটল করতে চান নাকি ? yes ক্লিক করুন, ইন্সটলাইজেশন কন্টিনিউ হবে।।

ইন্সটলাইজেশন কমপ্লিটেড হওয়ার পর সিস্টেম আপনার লাছে রিবুট হওয়ার পারমিশন চাইবে , কন্টিনিউ তে ক্লিক করুন।।

রিস্টার্ট হওয়ার পরে এরকম একটি স্ক্রিন দেখতে পাবেন, এরপর root user সিলেক্ট করে প্রথমে আপনি যে পাসওয়ার্ড দিয়েছিলেন সে পাসওয়ার্ড দিয়ে এন্টার করুন কালি লিনাক্সে 🙂

কংগ্রেচুলেশন , আপনি সফলভাবে কালি লিনাক্স সেটাপ করতে সক্ষম হয়েছেন :p

ধন্যবাদ সবাইকে টিউন টি পড়ার জন্যে, অনেক সময় ব্যয় করে টিউটোরিয়াল টি লেখলাম যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে টিউনমেন্ট, শেয়ার আশা করছি 🙂

যদি কোনো সমস্যা থাকে কোনো সঙ্কোচ ছাড়া জিজ্ঞাসা করুন, সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো ।

আবারো সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে আজকের মতোই এখানেই বিদায় নিচ্ছি, আগামী টিউটোরিয়ালে কালি লিনাক্সে কিভাবে Sql Map ব্যাবহার করতে হয় এবং Sql Map এর full usage নিয়ে টিউটোরিয়াল লেখবো।

আমার ফেইসবুক আইডি

 

উত্তর দিন