একটি মাউস ও কিবোর্ড দিয়ে একাধিক কম্পিউটার নিয়ন্ত্রন করবেন কীভাবে? শিখে রাখুন একদিন কাজে লাগবেই !!

0 131

কিছু কিছু সাধারন টেকনোলজির সুবিধা আছে যেগুলো আমরা টেলিভিশনে দেখেই সন্তুষ্ট থাকি। বাস্তব জীবনে সেগুলোর প্রয়োগ নিয়ে কখনো চিন্তা করিনা। উদাহরণ হিসাবে মনে করুন, আপনি হলিউডের একটি মুভি দেখছেন। সেখানে কেউ একজন একই সাথে একটি মাউস এবং কিবোর্ড দিয়ে একাধিক কম্পিউটার নিয়ন্ত্রন করছে। এরকমটা আগে অনেক দেখেছেন নিশ্চয়? আমি সব সময় বলি কিছু মানুষ শুধু দেখেই মজা পায়, আশ্চর্য হয়; কিন্তু কাজটি কীভাবে করা হয় সেটা নিয়ে মাথা ঘামায় না। সত্যি করে বলুন তো, কেউ কি ভেবেছেন কাজটি কীভাবে করতে হয়? যদিও না ভাবলেও সমস্যা নেই, কিছু কিছু ভাবনার জন্য তো আমরা আছিই। যাহোক, কাজটি দুটি ভাবে করা যেতে পারে। প্রথমতো এর জন্য আপনি কিছু প্রয়োজনীয় এক্সেসরিস কিনলেন। অনেকগুলো কানেকশন একসাথে করে কোন ভাবে কাজটি করলেন। যাতে সময়, শ্রম এবং জায়গার অপচয় হলো। আর দ্বিতীয়তো কোন বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহার করলেন যার সাহায্যে খুব সহজেই কাজটি করতে পারলেন। বুদ্ধিমানরা অনুমান করুন তো আমি কোন পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি? হুম, ঠিক ধরেছেন। আমি দ্বিতীয় পদ্ধতি অর্থাৎ সফটওয়্যার দিয়ে এই কঠিন কাজটি সহজভাবে করার উপায় দেখাবো। আমি যে সফটওয়্যারটি নিয়ে আলোচনা করবো তার নাম Synergy। চলুন Synergy সম্পর্কে আরও বিস্তারিত কিছু জেনে নেওয়া যাক।

Synergy – একাধিক মনিটরকে এক সূত্রে গাঁথুন

আপনার ডেস্কে যদি একাধিক কম্পিউটার থাকে এবং আপনি যদি প্রত্যেকটার জন্য আলাদা কিবোর্ড এবং মাউস ব্যবহার করেন তাহলে একসাথে সবগুলো কম্পিউটার নিয়ন্ত্রন করা অনেক কষ্টকর একটি ব্যাপার হবে। এই কষ্ট থেকে বাঁচতেই আমরা আজ ব্যবহার করবো অসাধারন একটি সফটওয়্যার, যার নাম আমি ইতিমধ্যেই আপনারদেকে বলে দিয়েছি। Synergy ব্যবহার করে আমরা একই সাথে একটি কম্পিউটার কিবোর্ড এবং মাউস ব্যবহার করে একাধিক কম্পিউটার নিয়ন্ত্রন করবো। যদি তারা তিনটি বিভিন্ন অপারেটিং সিস্টেমের হয় তবুও।

এখানে আপনাকে দেখে নিতে হবে যে, কোন কম্পিউটারে কিবোর্ড এবং মাউস ফিজিক্যালি সংযুক্ত আছে? যে কম্পিউটারে কিবোর্ড এবং মাউস সংযুক্ত আছে সেই কম্পিউটারকে আমরা বলবো সার্ভার। এখন সার্ভারের কিবোর্ড এবং মাউস ব্যবহার করে আমরা যে কম্পিউটারগুলো নিয়ন্ত্রন করবো তাদেরকে বলা হয় ক্লায়েন্ট কম্পিউটার। এখন অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে কী হয় সার্ভারের সাথে ক্লায়েন্ট পিসিকে সংযু্ক্ত করলে? নিচে এর উত্তর খুঁজে পাওয়া যায় কিনা একবার দেখা যাক। তবে তার আগে চলুন ১মিনিটের এই ভিডিওটি এক নজরে দেখে নেই।

Synergy – যেভাবে কাজ করবে

স্বাভাবিকভাবে আমরা যখন কোন কম্পিউটারের মাউসকে ডানদিক, বামদিক কিংবা যেকোন দিকে একেবারে শেষ প্রান্তে নিয়ে আসি তখন একটা জায়গায় গিয়ে মাউস পয়েন্টারটি থেমে যায়। অর্থাৎ মাউস পয়েন্টারটি মনিটরের সীমা অতিক্রম করে যেতে পারেনা। কিন্তু আপনি যদি আপনার সার্ভার পিসির দুইপাশে দুইটা ক্লায়েন্ট পিসি রেখে তাদেরকে Synergy দিয়ে সংযুক্ত করেন তাহলে তিনটি মনিটর মাউস পয়েন্টারের জন্য একক ক্ষেত্র হিসাবে কাজ করবে। আমি আগেই বলেছি যদি কম্পিউটারগুলো একেকটা আলাদা আলাদা অপারেটিং সিস্টেমের হয় তবুও একই কাজ করবে। এখন আপনি যদি একটি কম্পিউটারের ক্লিপবোর্ডের কোন ডাটাকে অপর কম্পিউটারে পেস্ট করতে চান তাহলে মাউস পয়েন্টারটেকে শুধু সরিয়ে উক্ত কম্পিউটার স্ক্রিনে নিয়ে গিয়ে পেস্ট করলেই কাজ হয়ে যাবে।

যা যা প্রয়োজন হবে

  • প্রত্যেক কম্পিউটারে Synergy সফটওয়্যারটি ইনস্টল থাকতে হবে।
  • একই লোকাল নেটওয়ার্কে কম্পিউটারগুলো সংযুক্ত থাকতে হবে।
  • একটি কম্পিউটারকে সার্ভার এবং অপরগুলোকে ক্লায়েন্ট হিসাবে সংযুক্ত করতে হবে।

Synergy – ডাউনলোড এবং ইনস্টলেশন প্রক্রিয়া

যেহেতু প্রত্যেকটি কম্পিউটারে Synergy সফটওয়্যারটি ইনস্টল থাকতে হবে সেহেতু আমাদের সবার আগে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করা প্রয়োজন। সফটওয়্যারটি বর্তমানে প্রিমিয়াম হওয়াতে সর্বশেষ প্রিমিয়াম ভার্সনটি আপনাদের দিতে পারছিনা বলে আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। কারন আমার সাধ্যমতো খুঁজেও আপনাদের জন্য প্রিমিয়াম ভার্সনটি বের করতে পারিনি। যাহোক, আগে রিলিজ হওয়া ফ্রি-ভার্সন দিয়েই আমরা আমাদের কাজ চালাবো। সুতরাং দেরি না করে আপনার উইন্ডোজ, ম্যাক কিংবা লিনাক্স এর জন্য প্রয়োজনীয় ভার্সনটি নিচের ডাউনলোড লিংক থেকে ঝটপট নামিয়ে ফেলুন। সফটওয়্যারটির সাইজ মাত্র ৮ মেগাবাইট তাই ডাটা খরচ নিয়ে আপাততো চিন্তা করতে হবে না।

ডাউনলোড সফলভাবে শেষ হলে সফটওয়্যারটি স্বাভাবিক নিয়মে আপনার নিজস্ব মেশিনে ইনস্টল করুন। ইনস্টলেশন প্রক্রিয়া শেষে সফটওয়্যারটি প্রথমবার চালু করার পর নিচের নির্দেশনা অনুসরণ করুন।

  • প্রথমে নিচের মতো ভাষা নির্বাচন করতে বলবে। আপনি ডিফল্টভাবে থাকা ইংরেজি সিলেক্ট করে নেক্সট নেক্সট চাপুন।

  • যেহেতু আগেই বলেছি সফটওয়্যারটির প্রিমিয়াম ভার্সন খুঁজে পাওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। তাই নিচের চিত্রে দেখানো Not Interested রেডিও বাটনটি চেক করে নেক্সট চাপুন।

 

  • এবার দেখবেন নিচের মতো চিত্র আসবে। আপনি সার্ভার হিসাবে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করুন কিংবা ক্লায়েন্ট হিসাবে ব্যবহার করুন সিস্টেম একই ধরনের।

  • এই পর্যন্ত যদি সফলভাবে কাজ করে থাকেন তাহলে এবার চলুন সার্ভার এবং ক্লায়েন্ট পিসির কনফিগারেশন প্রক্রিয়াটা দেখে নেই।

Synergy – সার্ভার কনফিগারেশন

যে কম্পিউটারে কিবোর্ড এবং মাউজ সংযুক্ত থাকবে সেই কম্পিউটারকে আমরা সার্ভার হিসাবে কনফিগার করে নিবো। আপনি চাইলে যেকোন সময় যেকোন পিসিকে সার্ভার বা ক্লায়েন্ট হিসাবে পরিবর্তন করতে পারবেন। যাহোক, চলুন ধাপে ধাপে শিখে নেই কিভাবে পিসিকে সার্ভার হিসাবে ব্যবহার করবো। আমি নিজে যেহেতু উইন্ডোজ ব্যবহার করি সেহেতু উইন্ডোজের উদাহরণ দিয়েই দেখিয়ে দিচ্ছি। আপনারা অন্য কিছু ব্যবহার করলে একইভাবে কাজটি করতে পারেন।

  • নিচের চিত্রের মতো করে যখন আসবে তখন যেভাবে দেখানো হয়েছে সেভাবে Server (New Setup) রেডিও বাটনটি চেক করে নেক্সট বাটন চাপুন।

  • এবার নিচের মতো অপশন আসবে এবং জানতে চাইবে যে আপনি পাসওয়ার্ড প্রটেকটেড রাখতে চাচ্ছেন কিনা। আমি পাসওয়ার্ড আপাততো দিলাম না। আপনি দিলে দিতে পারেন। কাজ শেষে নেক্সট বাটন চাপুন।

  • এবার আপনার সার্ভার উইন্ডো চালু হবে। এখানে প্রথম বক্সে চিহিৃত অংশটুকু হলো আপনার সার্ভারের আইপি এড্রেস। এগুলো ক্লায়েন্ট পিসির সাথে সংযুক্ত হতে কাজে লাগবে। এবার দ্বিতীয় চিহিৃত অংশ অর্থাৎ Configure Server অপশনে ক্লিক করুন।

  • এবার নিচের মতো উইন্ডো আসবে। যার মাঝখানে আপনার নিজের পিসির মনিটর দেখা যাবে। যেমন মাঝখানে আমার পিসির নাম দেখা যাচ্ছে।

  • এবার আপনি ডানপাশে উপরের দিকের কোণায় মনিটরের আইকনটিকে ক্লিক করে ড্রাগ করে এনে আপনার পিসির আইকনের যেকোন একপাশে রাখুন। তার নাম Unnamed দেখাবে।

  • এবার সেই মনিটরের নামটি পরিবর্তন করে আপনার ক্লায়েন্ট পিসির নামে দিয়ে দিন। এবং OK বাটন প্রেস করেন।

  • আপনার সার্ভার এখন প্রস্তুত। এখন শুধুমাত্র নিচের চিত্রে মতো করে Start বাটন ক্লিক করুন। তাহলেই আপনার সার্ভার চালু হয়ে যাবে।

Synergy – ক্লায়েন্ট কনফিগারেশন

সার্ভার যদি প্রস্তত হয়ে থাকে তাহলে এবার ক্লায়েন্ট কনফিগারেশনের পালা। যে কম্পিউটারগুলোর মনিটর কন্ট্রোল করতে চান সেগুলোতে নিশ্চয় Synergy ইনস্টল করে রেখেছেন? এবার চলুন নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করা যাক।

  • নিচের চিত্রে দেখানো অবস্থায় কীভাবে আসতে হয় সেটা আগের ধাপগুলোতে দেখেছেন। এবার সুন্দর করে শুধু Client অপশনটি চেক করে দিন। তারপর সার্ভারের আইডি এড্রেস Server IP বক্সে পেস্ট করুন। এবং নিচের Start অপশন চেপে Client কে সক্রিয় করে দিন।

  • আশা করছি আপনি সফলভাবে কাজটি করতে পেরেছেন এবং আপনার কিবোর্ড এবং মাউস কাজ করা শুরু করেছে। কারও একবার সমস্যা হলে কয়েকবার নিজে নিজে চেষ্টা করুন। আর কাজ না করলে আমিতো আছিই, সেই সাথে আছে টিউমেন্ট অপশনও।

শেষ কথা

টিউনটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অথবা বুঝতে যদি কোন রকম সমস্যা হয় তাহলে আমাকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। কারন আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের টিউন করতে উৎসাহিত করবে। সর্বশেষ যে কথাটি বলবো সেটা হলো, আসুন আমরা কপি পেস্ট করা বর্জন করি এবং অপরকেও কপি পেস্ট টিউন করতে নিরুৎসাহিত করি। সবার সর্বাঙ্গিন মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি। দেখা হবে আগামী টিউনে।

আপনাদের জন্য » সানিম মাহবীর ফাহাদ

উত্তর দিন