দৈনিক গড়ে ৬০ কোটি টাকা লোড হয় মোবাইল ফোনে !

0 108

বাংলাদেশে গ্রামীণফোন,বাংলালিংক,রবি,সিটিসেল,এয়ারটেল গ্রাহকরা প্রতিদিন মোবাইল ফোনে গড়ে ৬০ কোটি টাকার ব্যালান্স লোড করছেন।

বাংলাদেশে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব অপারেটর টেলিটক বাদে অন্য পাঁচ মোবাইল ফোন অপারেটরের ব্যালান্স লোড করার জন্য সফটওয়ার সরবরাহ করা কোম্পানি মাহেন্দ্র কমবিভা জানিয়েছে এ তথ্য।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় মাহেন্দ কমবিভা এবং টেলিকম রিপোটার্স নেটওয়ার্ক, বাংলাদেশ (টিআরএনবি) আয়োজিত এক কর্মশালায় এ তথ্য বেরিয়ে আসে।

Logo_Mahindra-Comviva (1)

কমবিভার সফটওয়ার ব্যবহার করে ২০০৮ সাল থেকে গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবি, এয়ারটেল এবং সিটিসেল টপআপের মাধ্যমে ব্যালান্স লোড করে আসছে। প্রথমে মূলত প্রিপেইড গ্রাহকদের জন্য কার্ডের বদলে এ লোড পদ্ধতি চালু করে তারা। পরে পোস্ট পেইড গ্রাহকরা এ পদ্ধতিতে বিল দিচ্ছেন।

কমবিভা জানিয়েছে, তাদের সফটওয়ারের মাধ্যমে গত বছর গড়ে দিনে ৫৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা লোড হয়েছে। তবে কিছু পোস্ট পেইড গ্রাহক এখনও আগের মতো অপারেটরগুলোর ব্যাংক হিসেবে বিল জমা দেন।

অন্যদিকে টেলিটক চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ের প্রযুক্তি ব্যবহার করে লোড করছে। এতে কর সব মিলিয়ে দেশের গ্রাহকরা দিনে গড়ে ৬০ কোটি টাকার মতো লোড করছেন। এর কিছুটা ডেটায় এবং বাকিটা ভয়েসের পেছনে খরচ হচ্ছে।

বাংলাদেশে কমবিভার কান্ট্রি ম্যানেজার রিয়াদ হাসনাইন জানান, এখন অনেক ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকেও মোবাইল গ্রাহকরা তাদের ব্যালান্স লোড করতে পারছেন। এ কাজটিও হচ্ছে তাদের সফটওয়ারের মাধ্যমে।

123-slider

ওয়ার্কশপে জানানো হয়, বিশ্বের ৪০টির বেশি দেশে ৮০টি ডেপ্লয়মেন্ট (সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান) কমভিভার ইন্টারনেট ও ব্রডব্যান্ড সলুশ্যন ব্যবহার করছে। সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো এ সল্যুশন ব্যবহার করে ৮০ কোটি অধিক গ্রাহককে ইন্টারনেট সেবা দিচ্ছে।

মোবাইল ফাইনান্স, কন্টেন্ট, তথ্য বিনোদন, ম্যাসেজিং ও মোবাইল ডাটা সল্যুশনের মতো বিস্তৃত কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি মাহিন্দ্রা কমভিভা মোবাইল অপারেটরদের গ্রাহক বৃদ্ধি, সাশ্রয়ী মূল্য নির্ধারণ ও আয় বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। এর মোবিলিটি সল্যুশনগুলো বিশ্বের ৯০ টিরও বেশি দেশে ১৩০টির বেশি মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের কাজে নিয়োজিত যা সারাবিশ্বে এক বিলিয়নের অধিক মানুষের জীবনযাত্রা পরিবর্তনে ভূমিকা রাখছে বলে কর্মশালায় জানানো হয়।

কমভিভার গ্লোবাল বিজনেস ডেভলপমেন্টের প্রধান কমলজিৎ রাস্তোগি জানান, বাংলাদেশের মোট জিডিপির আকারের ছয় শতাংশ পরিমাণ অর্থ এখন মোবাইল ফোনে লেনদেন হচ্ছে।

এ বিষয়ে তাদের গবেষণা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

আর মোট জিডিপির আকারের মধ্যে ৪৩ শতাংশ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে লেনদেন করে বিশ্বে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে জিম্বাবুয়ে।

 

মূল লেখাঃ টেকশহর

উত্তর দিন