১২টি সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক হচ্ছে ৭ বিভাগে

0 148

সারা দেশের ৭টি বিভাগে ১২ জেলায় নতুন সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এজন্য প্রকল্প তৈরি করে প্ল্যানিং ডিভিশনে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান। বৃহস্পতিবার বিকালে কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কের ভেতর রাস্তা উদ্বোধন ও সড়কবাতি নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

data center

এ সময় ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ, হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম মোস্তফা কামাল, কালিয়াকৈর উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল করিম রাসেল, কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান প্রমুখ তার সঙ্গে ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী জানান, হাইটেক পার্ক হবে আইসিটি ও সফটওয়্যারের ক্ষেত্রে দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র। এখানে হাজার হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান হবে। এ পার্কটি প্রতিষ্ঠার জন্য প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ৭ মাস আগে এ স্থান পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানান পলক।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, হাইটেক পার্ক নির্মাণে ডেভেলপার নিয়োগ করা হয়েছে। এ সরকারের সময়ে আগামী দেড় থেকে দুই বছরের মধ্যে এর দৃশ্যমান কাজ শুরু হবে। ইতিমধ্যে বিষেশায়িত বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করার আইন মন্ত্রিসভায় পাশ হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “হাইটেক পার্কের ভিতরেই একটি ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করতে চাই।”

এর জন্য প্রধানমন্ত্রী ৯৭ একর জমি নতুন দিয়েছেন বলেও জানান তিনি। এছাড়া এখানে আন্তর্জাতিক মানের ডাটা সেন্টার স্থাপন করা হবে, যার জন্য চীনা সরকারের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। এটি বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম ডাটা সেন্টার হবে বলে দাবি করেন তিনি। পলক বলেন, “আগামী ১০ বছরে আমাদের হাইটেক পার্কে ৭০ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মস্থান হবে। এটি আমাদের জাতীয় রাজস্ব আয়ের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবে।”

তিনি জানান, হাইটেক পার্কের অভ্যন্তরে রাস্তা, সুয়ারেজ লাইন, ওয়াটার ট্রিটম্যান্ট প্লান্ট করা হচ্ছে। ২৭ কোটি টাকা ব্যয়ে সাড়ে ৩ কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। সড়ক বাতি নির্মাণের কাজও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে হবে। এটিকে ঘিরে গাজীপুর, কালিয়াকৈর ও আশপাশ এলাকায় উন্নত আর্থসামাজিক অবস্থা গড়ে উঠবে বলেও তিনি দাবি করেন।

উত্তর দিন