তিন পর্দার ফোন আনল স্যামসাং

0 153

গ্যালাক্সি এস ৬ ও গ্যালাক্সি এস ৬ এজ নামে দুইটি নতুন মডেলের স্মার্টফোন বাজারে এনেছে স্যামসাং

গ্যালাক্সি এস ৬ ও এস৬ এজ স্মার্টফোনের ওপর থেকে পর্দা সরাল স্যামসাং মোবাইল। প্রযুক্তি বিশ্বে নতুন চমক দিতে এবং আইফোনের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে মোবাইল পোর্টফলিওতে বড় ধরনের হালনাগাদ আনল দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি।
২ মার্চ থেকে স্পেনের বার্সেলোনায় শুরু হয়েছে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস নামের ট্রেড শো। এই প্রদর্শনী উপলক্ষে নতুন স্মার্টফোনের ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং।
গ্যালাক্সি এস ৬ এজ স্মার্টফোন দিয়ে বাঁকানো ডিসপ্লে নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা অব্যাহত রাখল স্যামসাং। গত বছরে গ্যালাক্সি নোট এজ নামে বাঁকানো ডিসপ্লের ফোন বাজারে এনেছিল প্রতিষ্ঠানটি। গ্যালাক্সি এস ৬ এজে মূল ডিসপ্লের পাশাপাশি দুই দিকে দুটি বাঁকানো ডিসপ্লে থাকছে।
দীর্ঘদিন ধরেই প্রযুক্তি বিশ্বে স্যামসাংয়ের নতুন এই দুটি মডেলের স্মার্টফোন নিয়ে গুঞ্জন ছিল। নতুন মডেলের স্মার্টফোন বাজারে আনতে ধাতব কাঠামো ব্যবহার করেছে স্যামসাং। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানের তৈরি ধাতব কাঠামোর স্মার্টফোনের চেয়ে তাদের স্মার্টফোন ৫০ শতাংশ বেশি টেকসই।
গ্যালাক্সি এস ৬ এজ স্মার্টফোন দিয়ে বাঁকানো ডিসপ্লে নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা অব্যাহত রাখল স্যামসাং।নতুন স্মার্টফোন বাজারে এনে প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপলকে একটু খোঁচা দিয়েছেন স্যামসাংয়ের কর্মকর্তারা। গত বছরে আইফোন ৬ প্লাস বাজারে আসার পর তা বেঁকে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছিল যা পরে বেন্ডগেট নামে পরিচিতি পায়। ওই প্রসঙ্গ টেনে এনে, স্যামসাংয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, আমাদের তৈরি স্মার্টফোনে যে ধাতব কাঠামো ব্যবহার করা হয়েছে তাতে ফোন বেঁকে যাবে না!
নতুন স্মার্টফোনে রয়েঠে পাঁচ দশমিক এক ইঞ্চি মাপের সুপারঅ্যামোলেড স্ক্রিন (১৪৪০ বাই ২৫৬০ রেজুলেশন) যাতে বিশ্বের স্মার্টফোনের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পিক্সেল ঘনত্ব রয়েছে বলে স্যামসাং দাবি করেছে। এতে রয়েছে ৬৪ বিটের ২.১ গিগাহার্টজ অক্টা কোর এক্সিনোস ৭ প্রসেসর যা স্যামসাংয়ের পূর্ববর্তী মডেলের স্মার্টফোনের চেয়ে ৩৫ শতাংশ দ্রুতগতির হবে। এই স্মার্টফোনে ডিডিআর ৩ র্যামের পরিবর্তে ডিডিআর ৪ র্যাম ব্যবহার করায় স্মার্টফোনের মেমোরি পারফরম্যান্স ৮০ শতাংশ বাড়বে। এ ছাড়াও দুটি মডেলের স্মার্টফোনে দ্রুতগতির ফ্ল্যাশ স্টোরেজ সুবিধা যুক্ত হয়েছে। মাইক্রোএসডি স্টোরেজ সুবিধা ছাড়া এই ফোন ৩২,৬৪ ও ১২৮ গিগাবাইট স্টোরেজ সুবিধার মডেলে পাওয়া যাবে।
স্মার্টফোনের পেছনে এফ ১.৯ অ্যাপারচার ও অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন সুবিধাসহ ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ও সামনে পাঁচ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। ক্যামেরা অ্যাপও উন্নত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।
স্মার্টফোন দুটি মডেলে মাত্র ১০ মিনিটে চার্জ দিয়ে চার ঘণ্টা চালানো যাবে। অবশ্য, স্যামসাং তাদের এই দুটি মডেলের স্মার্টফোনে ব্যাটারি পরিবর্তন করার কোনো সুযোগ রাখেনি।
দুটি মডেলের স্মার্টফোন ছাড়াও স্যামসাং পে নামে মোবাইল পেমেন্ট সেবা চালুর ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং। সাধারণত অধিকাংশ প্রতিষ্ঠান মোবাইল পেমেন্টের ক্ষেত্রে এনএফসি ব্যবহার করলেও স্যামসাং এমএসটি প্রযুক্তি ব্যবহারের কথা জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে অনেক ব্যাংকের সঙ্গে এই পেমেন্ট পদ্ধতি নিয়ে কাজ করা হবে বলে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
স্যামসাং স্মার্টফোন ছাড়াও দ্বিতীয় প্রজন্মের গিয়ার ভিআর হেডসেট উন্মুক্ত করেছে যা গ্যালাক্সি এস ৬ ও এস ৬ এজে ব্যবহার করা যাবে।
১০ এপ্রিল থেকে বিশ্বের ২০ টি দেশের বাজারে বিক্রি শুরু হবে স্যামসাংয়ের নতুন দুটি ফোন। স্যামসাং এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে এই স্মার্টফোন দুটির দাম ঘোষণা করেনি। তবে প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, ১৬ গিগাবাইট মডেলের গ্যালাক্সি এস ৬ মডেলের দাম হবে ৬৯৯ মার্কিন ডলার ও গ্যালাক্সি ৬ এজের দাম হবে ৮৪৯ মার্কিন ডলার।

উত্তর দিন