আলেসান্দ্রো ভোল্টা বিদ্যুৎ তৈরির বিজ্ঞানী ২৭০ তম জন্মদিন নিয়ে গুগল ডুডল!

0 174

বিদ্যুৎ শক্তি উদ্ভাবনে অন্যতম পথিকৃৎ আলেসান্দ্রো ভোল্টা’র ২৭০ তম জন্মদিন নিয়ে গুগল ডুডল এ পরিবর্তন এনেছে ।

alessandro-voltasআসুন এই গুনিব্যাক্তি আলেসান্দ্রো ভোল্টার জীবন বৃত্তান্ত জেনে নেই ।

আলেসান্দ্রো ভোল্টা
Volta A.jpg

আলেসান্দ্রো গিউসিপ্পে এন্টনিও আনাস্তাসিও ভোল্টা
জন্ম১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৭৪৫
কোমো, ডাচি অব মিলান
ইতালি
মৃত্যু৫ মার্চ ১৮২৭ (৮২ বছর)
কোমো, লোম্বার্দি-ভেনেশিয়া
ইতালি
জাতীয়তাইতালীয়
কর্মক্ষেত্রপদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন
পরিচিতির কারণবিদ্যুৎ কোষ উদ্ভাবক
মিথেন
ভোল্ট
ভোল্টেজ
ভোল্টমিটার আবিষ্কারক

আলেসান্দ্রো গিউসিপ্পে এন্টনিও আনাস্তাসিও ভোল্টা (ইতালীয়: Alessandro Giuseppe Antonio Anastasio Volta; জন্ম: ১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৭৪৫ – মৃত্যু: ৫ মার্চ, ১৮২৭) ইতালীয় পদার্থবিজ্ঞানী হিসেবে বিদ্যুৎ শক্তি উদ্ভাবনে পথিকৃৎ ছিলেন। অষ্টাদশ শতকে প্রথম ব্যাটারী বা বিদ্যুৎ কোষ আবিষ্কারের মাধ্যমে তিনি চীরস্মরণীয় হয়ে রয়েছেন। তিনি কোমোয় জন্মগ্রহণ করেন। সেখানকার এক সরকারী বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। ১৭৭৪ সালে কোমো’র রয়্যাল স্কুলে পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। এর পরের বছর তিনি ইলেক্ট্রোফোরাস আবিষ্কার করেন যা থেকে তিনি স্থির বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হয়েছিলেন। তাঁর নামানুসারে এসআই একক পদ্ধতিতে বৈদ্যুতিক বিভবের এককের নাম রাখা হয়েছে ভোল্ট (সঙ্কেত V)।
কর্ম জীবন

সুইস সীমান্তের কাছাকাছি বর্তমান ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় শহর কোমো’য় ১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৭৪৫ তারিখে ভোল্টা জন্মগ্রহণ করেন।

ইলেক্ট্রোফরাসের মানোন্নয়নে কাজ করেন এবং এর সাহায্যে স্থির বিদ্যুৎ তৈরী করেন। এ আবিষ্কারটি ছিল ভীষণ ব্যয়বহুল যা একই পদ্ধতিতে ১৭৬২ সালে সুইডিশ যোহন উইকের মেশিন পরিচালনার ব্যয়কে হার মানিয়েছিল।[৪][৫] গ্যালভানিক ক্রিয়া সংক্রান্ত ব্যাপারে লুইজি গ্যালভানি’র সাথে মতপার্থক্যের কারণে আলেসান্দ্রো ভোল্টা ১৮০০ খ্রীস্টাব্দে আধুনিক ব্যাটারীর প্রাচীন সংস্করণ ভোল্টার স্তুপ তৈরি করেন।ভোল্টা আবিষ্কার করেন যে, বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য সবচেয়ে কার্যকর ধাতব পদার্থ হচ্ছে দস্তা ও রূপা। ১৮৮০-এর দশকে আন্তর্জাতিক বৈদ্যুতিক সম্মেলন (বর্তমানে আন্তর্জাতিক ইলেক্ট্রো-টেকনিকাল কমিশন IEC) বৈদ্যুতিক বিভবের (শক্তির) একক হিসাবে ভোল্টকে অনুমোদন করে।

১৭৭৬-৭৮ সালের মধ্যে রসায়নশাস্ত্রে গ্যাস বিষয়ে অধ্যয়ন করেন। তিনি মিথেন গ্যাস আবিষ্কার করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন কর্তৃক ‘প্রজ্জ্বলমান বাতাস’ শিরোনামের লেখাটি পত্রিকায় পড়ে তিনি ইতালির বিভিন্ন এলাকায় অনুসন্ধান কর্ম অব্যাহত রাখেন। অতঃপর নভেম্বর, ১৭৭৬ সালে ম্যাগিওর হ্রদে মিথেনের দেখা পান। এরপর ১৭৭৮ সালে মিথেনকে জমাটবদ্ধ করার সক্ষমতা দেখান।

আলেসান্দ্রো গিউসিপ্পে এন্টনিও আনাস্তাসিও ভোল্টা। তিনি একজন ইতালিয়ান পদার্থবিজ্ঞানী। বিদ্যুত্ শক্তি উদ্ভাবনে তিনি পথিকৃত্ ছিলেন। অষ্টাদশ শতকে প্রথম ব্যাটারি বা বিদ্যুত্ কোষ আবিষ্কারের মাধ্যমে তিনি চিরস্মরণীয় হয়ে রয়েছেন। তিনি কোমোয় জন্মগ্রহণ করেন। সেখানকার এক সরকারি বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। ১৭৭৪ সালে কোমো’র রয়্যাল স্কুলে পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। এর পরের বছর তিনি ইলেস্ট্রোফোরাস আবিষ্কার করেন যা থেকে তিনি স্থির বিদ্যুত্ উত্পাদনে সক্ষম হয়েছিলেন। তার নামানুসারে এসআই একক পদ্ধতিতে বৈদ্যুতিক বিভবের এককের নাম রাখা হয়েছে ভোল্ট। সুইস সীমান্তের কাছাকাছি বর্তমান ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় শহর কোমো’য় ১৭৪৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি ভোল্টা জন্মগ্রহণ করেন। ইলেক্ট্রোফরাসের মানোন্নয়নে কাজ করেন এবং এর সাহায্যে স্থির বিদ্যুত্ তৈরি করেন। এ আবিষ্কারটি ছিল ভীষণ ব্যয়বহুল যা একই পদ্ধতিতে ১৭৬২ সালে সুইডিশ যোহন উইকের মেশিন পরিচালনার ব্যয়কে হার মানিয়েছিল। গ্যালভানিক ক্রিয়া সংক্রান্ত ব্যাপারে লুইজি গ্যালভানির সাথে মতপার্থক্যের কারণে আলেসান্দ্রো ভোল্টা ১৮০০ খ্রিস্টাব্দে আধুনিক ব্যাটারির প্রাচীন সংস্করণ ভোল্টার স্তূপ তৈরি করেন। ভোল্টা আবিষ্কার করেন যে, বিদ্যুত্ উত্পাদনের জন্য সবচেয়ে কার্যকর ধাতব পদার্থ হচ্ছে দস্তা ও রূপা। ১৮৮০-এর দশকে আন্তর্জাতিক বৈদ্যুতিক সম্মেলন বৈদ্যুতিক বিভবের (শক্তির) একক হিসেবে ভোল্টকে অনুমোদন করে।১৭৭৬-৭৮ সালের মধ্যে রসায়নশাস্ত্রে গ্যাস বিষয়ে অধ্যয়ন করেন। তিনি মিথেন গ্যাস আবিষ্কার করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন কর্তৃক ‘প্রজ্বলমান বাতাস’ শিরোনামের লেখাটি পত্রিকায় পড়ে তিনি ইতালির বিভিন্ন এলাকায় অনুসন্ধান কর্ম অব্যাহত রাখেন। অতঃপর নভেম্বর, ১৭৭৬ সালে ম্যাগিওর হরদে মিথেনের দেখা পান। এরপর ১৭৭৮ সালে মিথেনকে জমাটবদ্ধ করার সক্ষমতা দেখান।

উত্তর দিন