বাংলাদেশের ইতিহাসের দুষ্প্রাপ্য কিছু ছবি (২য় পর্ব)

2 333

বাংলার ইতিহাসের দুষ্প্রাপ্য কিছু ছবি নিয়ে প্রথম পোস্ট করার অনেকের অনুরোধে আরো কিছু দুষ্প্রাপ্য ছবি দিয়ে বাংলাদেশের শত বৎসরের ইতিহাস তুলে ধরলাম বাংলার ইতিহাসের ছবি গুলো ভালো লাগলে কমেন্টস ও শেয়ার করতে ভুলবেন না ।

১৮৭০ – ঢাকার বিখ্যাত বাইজী নয়াবিন বাই ও তার দল।


১৮৬০ – তৎকালীন বাঙালি হিজড়া সম্প্রদায়ের মানুষ। তারা নাচ ও গানে পারদর্শী ছিলেন।


১৮৬০ – খেমটাওয়ালী (এক ধরনের আদি-রসাত্মক নাচ, তখনকার বাঙালি উচ্চবিত্তদের বিনোদন ) ও তার দল।


১৮৬০ – পদ্মা নদী।


১৮৮০ – নবাবের নিজস্ব সার্কাসের দল।


১৮৮০ – পিলখানায় হাতি ও মাহুতগণ।


১৮৮০ – ঢাকা জেলখানায় আসামিদের জীবনযাত্রা।


১৮৮০ – তেজগাঁও।


১৮৮২ – সেইন্ট গ্রেগরি স্কুল, ঢাকা।


১৮৯০ – ব্যাংক অফ বেঙ্গল। তৎকালীন শাহবাগে অবস্থিত এই ভবনটি পরবর্তীতে ঢাকা ক্লাবে রূপান্তরিত হয়।


১৮৯০ – ঢাকা ক্লাব।


১৮৯০ –  কলকাতা থেকে এম এ পাস করে আসা বাংলাদেশি ছাত্র।

তৎকালীন সময়ে পাস করে আসলে দূর দুরান্ত থেকে লোকজন দেখতে আসত।


১৮৯৫ – সম্ভবত এটাই পদ্মা নদীর মাঝিদের সবচেয়ে পুরনো ছবি।


১৮৯৫ – গোয়ালন্দ ঘাটে স্টিমারের সারি।


১৯০০ –  গ্রামীণ পরিবার, ময়মনসিংহ।


১৯০০ – নবাবদের শিকারের পর বাঘের চামড়া  ছাড়ানো হচ্ছে।


১৯০৪ – শাহবাগে নবাব পরিবারের নিজস্ব হরিন উদ্যান (deer park).


১৯০৫ – পিলখানায় হাতির বহর।


১৯০৭ – নবাব স্যার খাজা সলিমুল্লাহ বাহাদুরের সাথে ঢাকার সর্বপ্রথম হকি দল।


১৯১২ – নবাবদের দরবার হল। বর্তমানে মধুর ক্যান্টিন।


১৯১৫ – নবাবজাদীগন (নবাব সলিমুল্লাহের তিন কন্যা), বা থেকেঃ বিলকিস বানু, বাদশাহ বানু ও আমিনা বানু।


১৯২০ – ভালুক শিকার করার পর একজন ব্রিটিশ অফিসার।


১৯২১ – সরস্বতী পুজা মণ্ডপ, ঢাকা কলেজ হোস্টেল।


১৯২৪ – ঢাকার মানচিত্র।


১৯২৬ – নবাব খাজা সালাউদ্দিন সাথে তার ইংরেজ স্ত্রী এডিথ (Edith) ও অন্যান্যরা।


১৯২৮ – নবাবজাদী বিলকিস বানু বেগম, নবাব সলিমুল্লাহ ও বেগম রওশন আখতারের বড় মেয়ে।


১৯৩৩ – ঢাকা শান্তিনগর ব্রিটিশ আর্মি ব্যারাক


১৯৩৩ – প্রথম বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী  Royal Norfolks Regiment ঢাকায় প্রবেশ করছে।


১৯৩৩ – ব্রিটিশ রেলওয়ের স্টিম ইঞ্জিন চালিত রেলগাড়ি, ঈশ্বরদী।


১৯৩৪ – ঢাকার ওয়াটারফ্রন্ট ভিউ।


১৯৩৪ – ব্রিটেনিয়া সিনেমা হল, ব্রিটিশ রেজিমেন্ট ক্যাম্প, ঢাকা।


১৯৪০ – ঢাকা ইউনিভার্সিটি ক্লাসরুম।


১৯৪০ – ঢাকা ইউনিভার্সিটি লাইব্রেরি।


১৯৪০ – ব্রিটিশ আর্মি অফিসার’স ক্লাব, চট্টগ্রাম।

 

১৯৪০ – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ব্রিটিশ রয়েল এয়ারফিল্ড, কক্সবাজার।


১৯৪১ – বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের স্বহস্তে লেখা কবিতা।


১৯৪৬ – মহাত্মা গান্ধীর নোয়াখালীতে আগমন।


১৯৫০ – ঢাকা সেন্ট্রাল জেল।


১৯৫০ – ঢাকা সেন্ট্রাল জেলের আসামিদের ওয়ার্ড।


১৯৫৪ – ঈদের নামাজের খুতবা শুনছে মানুষ।


১৯৫৪ – ঈদ মেলা, ঢাকা।


১৯৫৪ – আওয়ামী মুসলিম লীগ অফিস (যা বর্তমানে আওয়ামীলিগ)


১৯৫৪ – ঢাকার রাজপথ


১৯৫৫ – পর্দা ঘেরা রিক্সা।


১৯৫৫ – খুলনা লঞ্চ টার্মিনাল।


১৯৫৬ – ঢাকা কলেজের পুরাতন ক্যাম্পাসে শহীদমিনার নির্মাণ করছে মেয়েরা।


১৯৫৬ – ২১শে ফেব্রুয়ারি, শহীদ মিনারে ফুল দিতে এসেছেন শহীদ বরকতের মা (ডানে)।


১৯৫৮ – বিয়ের পর পালকিতে চড়ে শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছে নতুন বউ , মানিকগঞ্জ।


১৯৫৮ – বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ফ্যাশন শো, আয়োজন করেছিলো Women’s Voluntary Association of Dhaka.


১৯৬০ – বায়তুল মোকাররম মসজিদ।


১৯৬০ – কাকরাইল, ঢাকা


১৯৬১ – রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের ঢাকায় আগমন।


১৯৬২ – মৃত ডলফিনের সাথে শিকারিরা, কক্সবাজার।


১৯৬৪ – মানিকগঞ্জের একটি গ্রাম্য মেলা।


১৯৬৪ – ঢাকা নিউ মার্কেট। Sico Photographers। দোকান নংঃ 419/a, সম্ভবত এখনো আছে।


১৯৬৪ – জিয়া বিমানবন্দর এলাকা, তখনকার সময়ে মানুষ সেখানে পিকনিক করতে যেত।

বাংলাদেশের ইতিহাসের উপর আমার এই সামান্য প্রচেষ্টাটি যদি আপনাদের ভাল লেগে থাকে তাহলে আপনাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

2 মন্তব্য
  1. Helal Ahmed বলেছেন

    দারুন পোস্ট, ধন্যবাদ!

  2. Zarif বলেছেন

    বাঁইচা থাকেন ভাই, আপনি বাইচা থাকেন। খুব ভালো লাগলো

উত্তর দিন