ফেসবুক অটোলাইক, বিনোদন এবং ঝুঁকি!!!

0 173

অটোলাইক! ফেসবুকে এখন চলছে অটোলাইকের যুগ! দু বছর আগেও শুধুমাত্র “সুন্দরী” মেয়েদের প্রোফাইলেই দেখা যেতো লাইকের বন্যা! তবে এখন অটোলাইকের সাহায্য সুন্দর, কুৎসিত , ছেলে কিংবা মেয়ে অথবা ফেইক আইডি, সর্বত্রই লাইকের বন্যা আমরা দেখতে পাই। এ জন্যই গত কুরবানী ঈদে ফুয়াদ ফিচারিং মোজোর একটি গানের লাইন ছিলো “বান্দরের ছবিতেও লাইক পড়ে লাখ লাখ!”

কি এই অটোলাইক?

> অটোলাইক মানে অটোমেটিক লাইক। যখন কোনো ফেসবুক ইউজার তার আইডি থেকে নিজে নিজেই (অটোমেটিক) অন্যদের স্ট্যাটাসে লাইক দিয়ে বেড়ান তাকে অটোলাইক বলা হয়। এর জন্য উক্ত ফেসবুক ইউজারকে একটি বিশেষ ফেসবুক এপপ ব্যবহার করতে হয়। ঠিক তেমনি ভাবে সেই বিশেষ ফেসবুক এপপ ব্যবহারের কারণে উক্ত ব্যবহারকারীও তার নিজের স্ট্যাটাস, ফটো ইত্যাদিতে অন্যের অটোলাইক পেয়ে থাকেন। এই অটোলাইকের সংখ্য কমপক্ষে ৫০ থেকে কয়েক লক্ষ পর্যন্ত হতে পারে।

অটোলাইক ড্রাগের মতো!

অটোলাইক নেবার পদ্ধতিঃ

প্রথমে আপনাকে একটি ফেসবুক এপপ ব্যবহার করতে হবে। সেটি ইন্সটল করে নিন যেকোনো অটোলাইকের পেজ থেকে।

> তারপর আপনার মোবাইল থেকে অটোলাইকের পেজে যান। টোকেন সংগ্রহ করুন এবং অটোলাইক নিয়ে নিন।

এপপ ফেসবুকে ইন্সটল করার পর টোকেন সংগ্রহ করুন
টোকেন পেজ!
টোকেনটি কপি করুন।
আবারো অটোলাইকের পেজে যান
টোকেন টি পেষ্ট করে লগ ইন করুন
ক্যাপচা পূরণ করতে হবে
এক এক সাইটে এক এক ধরণের ক্যাপচা আসবে

লগ ইন হলো!
এবার স্ট্যাটাস, ফটো, প্রোফাইল পিক ইত্যাদিতে লাইক নেওয়া শুরু করুন
অনেকগুলো সাইট ব্যবহার করতে পারেন বেশি লাইক পাবার জন্য
এরর পেজ আসলেই বুঝবেন কাজ হয়ে গেছে! এবার আপনার আইডি চেক করুন।
জাদু দেখুন! ৫০ মিনিটে ১৪০০+ লাইক!
এরা সেকেন্ডে ২০০টি লাইক জেনারেট করতে পারে!

কখনোই পিসি থেকে অটোলাইক নিতে যাবেন না। হ্যাক হবার চান্স বেশি পিসি থেকে।

অটোলাইক নেবার ফলে উক্ত ব্যবহারকারীর মনে এক প্রকার আনন্দের সৃষ্টি হয়, যা নেশার মতো। ড্রাগ নেওয়ার পর যেমন পুলকিত হওয়া যায় কিন্তু ড্রাগ নেবার ফলে ক্ষতিও যেমন বেশি হয় ঠিক তেমনি অটোলাইক এপপ ব্যবহার করার ফলে আপনার ফেসবুক আইডির যেকোনো ধরণের ক্ষতি হতে পারে।

> সবচেয়ে প্রথম ক্ষতি হয় তা হলো আপনার আইডি থেকে স্প্যাম যাবে ফেসবুকের গ্রুপে গ্রুপে, আপনার ফ্রেন্ডলিষ্টের বন্ধুদের টাইমলাইনে , বন্ধুদের চ্যাটে এমনকি আপনার ফেসবুকের পেজেও! যা আপনার রেপুটেশনকে গুড়িয়ে দেয়!

এভাবেই আপনার আইডি থেকেও স্প্যাম ছড়িয়ে পড়বে!

> অটোলাইক জেনারেটর সিস্টেম টি টোকেন নির্ভর। আর সেই টোকেন সংগ্রহ করতে গিয়ে আপনি নিজের অজান্তেই আপনার আইডির পাসওর্য়াডও দিয়ে দিচ্ছেন! তাই আপনার আইডি হ্যাকিং এর মুখে পড়তে পারে

> আর নিশ্চিত সমস্যা হতে পারে যেটি সেটি হলো, আপনার আইডি অবশ্যই লক হবে, মানে ফটো ভেরিফিকেশনের ঝামেলায় আপনাকে অবশ্যই পড়তে হবে!

> আর আপনার আইডিতে যদি ফ্রেন্ড থাকে ৫০ জন এবং ফলোয়ার থাকে ৭ জন কিন্তু আপনার স্ট্যাটাসে আপনি অটোলাইক দিয়ে নিয়ে নিচ্ছে হাজার খানেক লাইক তাহলে তো আপনার ইজ্জতের তুলাধুনা হয়ে গেলো!

তাই অটোলাইক ব্যবহার না করাই উত্তম! তারপরও যারা অটোলাইক ব্যবহার করেই যাবেন এবং নতুন যারা অটোলাইক ব্যবহার করতে ইচ্ছুক তাদের জন্য আমার কটি টিপসঃ

> আপনার আইডিকে শক্ত পক্ত ভাবে গড়ে তুলুন

> সিকুরেটি কোয়েশ্চন ব্যবহার করুন

> অবশ্যই আপনার আইডিতে আপনার মোবাইল নাম্বার দিয়ে রাখুন। এতে আইডি লক হলে ফেরৎ পাওয়া যাবে মাত্র দু মিনিটে

> আর সবচেয়ে আবশ্যয়িক ব্যাপার হলো, আপনার আইডিকে আপনার ন্যাশনাল ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে সর্বোচ্চ সুরক্ষিত করে রাখুন তারপর অটোলাইক, অটোবাশ যেইটা খুশি সেইটা ব্যবহার করতে পারেন। কারণ এরপর আইডি লক, হ্যাক কিংবা আপনার আইডিতে এটোম বোম এমনকি নিউক্লিয়ার বোম পড়লেও আইডি আপনি ফেরত পেয়ে যাবেন চোখের পলকে।

নিরাপদ কটি অটোলাইকের সাইট: (অন্য সাইট ব্যবহার করে হ্যাকায়িত হবে না :p )

autolike.cz

www.mg-likers.com

djliker.com

fb-autolikers.com

likeslo.net

fbinstantlikers.com

machineliker.com

fblikess.com

myfbliker.org

royaliker.net

এতো গেলে শুধু অটোলাইক, আরো আছে অটোকমেন্ট, অটোফলোয়ার, অটোফ্রেন্ড, অটোপোষ্টার সহ আরো অনেক কিছু। সেগুলো অতি এডভান্সড ইউজারদের জন্য!

বিঃদ্রঃ এই টিউন পড়ে উৎসাহিত হয়ে কেউ যদি অটোলাইক ব্যবহার করতে গিয়ে তার আইডি লক/ব্লক/হ্যাক সমস্যায় পড়েন তাহলে এই ব্লগ এবং টিউনার গেমওয়ালা দায়ী থাকবে না, নিজ দায়িত্বে ব্যবহার করুন! (যদি ব্যবহার করতে চান)

ধন্যবাদ!

উত্তর দিন