২০১৫ সালের সেরা ৩ ওয়েব ব্রাউজার রিভিউ – সাথে আছে ডাউনলোড লিঙ্ক

0 139
ওয়েব ব্রাউজারের সাথে পরিচয় আছে আমাদের সবারই। কারণ আমরা এই মুহূর্তেও কোন এক ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে এই আর্টিকেলটি পড়ছি! ওয়েব ব্রাউজার হল এমন এক সফটওয়্যার যা আপনার চাওয়া যেকোন ওয়েব সাইট হাজির করে আপনার কম্পিউটার বা ডিভাইসের পর্দায়। ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ব্রাউজার আবশ্যক। মোবাইল এবং কম্পিউটার উভয় ডিভাইসের জন্যই নানা ওয়েব ব্রাউজার রয়েছে। তবে বিশ্ব জুড়ে হাতে গোনা কয়েকটি ওয়েব ব্রাউজার এখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। ২০১৫ সালের সেরা ৩টি ওয়েব ব্রাউজার নিয়েই আজ আমার (ব্লগার মারুফ) এই রিভিউ আর্টিকেল। প্রথমেই জানিয়ে দেই কোন ৩ ইন্টারনেট ব্রাউজার এখন রয়েছে শীর্ষে। নানা তথ্য এবং রিভিউ পর্যালোচনা করে র‍্যাংকিং করলে দেখা যায় প্রথম অবস্থানেই রয়েছে বহুল ব্যবহৃত এবং জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার মজিলা ফায়ারফক্স। আর দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে গুগল ক্রোম এবং অপেরা। চলুন জেনে নেই ২০১৫ সালের এই ৩টি সেরা ওয়েব ব্রাউজারের খুবই সংক্ষিপ্ত কিছু ইতিহাস।
২০১৫ সালের সেরা ৩ ওয়েব ব্রাউজার রিভিউ

১। মজিলা ফায়ারফক্স – Mozilla Firefox

মজিলা ফায়ারফক্স ওয়েব ব্রাউজারের সাথে পরিচয় নেই এমন কেউ কি আছেন? থাকলে সাড়া দিয়েন! আমার দৃঢ় বিশ্বাস যে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন অথচ মজিলা ফায়ারফক্স চেনেন না এমন লোক দেখা পাওয়া দুষ্কর। কারণ মজিলা ফায়ারফক্স (Mozilla Firefox) হল বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত ও জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার। এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যের একটি ওয়েব ব্রাউজার। মোজিলা ফাউন্ডেশনের তৈরি মজিলা ফায়ারফক্সের বিনামূল্যে প্রাপ্তি এবং শক্তিশালী ও অসাধারন সব ফিচারের কারণে আমাদের পছন্দের ওয়েব ব্রাউজারের তালিকায় শীর্ষে আছে এই ওয়েব ব্রাউজার। ২০০৪ সালের নভেম্বর ৯ তারিখে মোজিলা ফায়ারফক্সের ১.০ সংস্করন ছাড়ার ৯৯ দিনের মাথায় উন্মুক্ত এই ওয়েব ব্রাউজার ডাউনলোড হয় ২.৫ কোটি বার। আর বর্তমান এই সময়ে এসে মোজিলা ফায়াফক্সের ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০ কোটি। সহজে এবং নিরাপদে ওয়েব ব্রাউজিং করার সব ধরনের ফিচার নিয়ে তৈরি মোজিলা ফায়াফক্সের জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছেই। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর অধিকাংশ লোকই এখন পছন্দের ওয়েব ব্রাউজার হিসেবে প্রথমেই বেঁছে নিয়েছেন মোজিলা ফায়াফক্স।
Green Hosting

২। গুগল ক্রোম – Google Chrome

বিশ্ববিখ্যাত সার্চ ইঞ্জিন গুগলের তৈরি ওয়েব ব্রাউজার হল গুগল ক্রোম। মোজিলা ফায়াফক্সের পরেই জনপ্রিয়তার স্থানে অবস্থান করছে গুগল ক্রোম ওয়েব ব্রাউজার। ফ্রি এবং অনেক শক্তিশালী ফিচারের কারণে গুগল ক্রোমের জনপ্রিয়তাও কম নয়! খুব কম সময়ের মাঝেই গুগল ক্রোম ওয়েব ব্রাউজারের জগতে অনন্য নাম হয়ে উঠে। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি গুগল ক্রোমের জনপ্রিয়তার পিছনে মূল শক্তি হচ্ছে ইন্টারনেট জগতের অনন্য নাম গুগল। কারণ স্বভাবতই আমরা গুগলের অধীনস্ত যে কোন পণ্য বা সেবাকেই সেরা হিসেবে ধরে নিয়ে থাকি। তবে গুগল ক্রোম খারাপ সেটা কিন্তু নয়। গুগল ক্রোম তাঁর সকল অসাধারন বৈশিষ্টের মাধ্যমেই উঠে এসেছে জনপ্রিয়তার দ্বিতীয় স্থানে।
Green Hosting

৩। অপেরা – Opera

অপেরার জনপ্রিয়তা অন্য দেশে আর যেমনই থাকুক না কেন নিজের চোখে দেখেছি যে বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের কাছে ব্রাউজার মানেই যেন অপেরা! হ্যাঁ, চরম সত্য কথা এটাই যে আমাদের দেশে যারা নতুন ইন্টারনেট ব্যবহার করেন মোবাইলে তাঁরা ব্রাউজার শব্দটি চিনুক আর নাই বা চিনুক তাঁরা অপেরা কে ভালোভাবেই চেনে। অপেরাও অন্যতম জনপ্রিয় একটি ওয়েব ব্রাউজার। তবে এর জনপ্রিয়তা মোবাইলেই বেশি। অপেরা ব্রাউজারকে অন্যতম বয়স্ক ওয়েব ব্রাউজার বলা হয়ে থাকে। ১৯৯৫ সালে অপেরা ব্রাউজারের যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ৩৫০ মিলিয়ন অপেরা ব্যবহারকারী রয়েছেন। সবচেয়ে বড় মজার ব্যপার হলো ৩৫০ মিলিয়নের ২৭০ মিলিয়নই মোবাইল ইউজার। হ্যাঁ, আসলেই অপেরা ব্রাউজার অনেক জনপ্রিয় তবে সেই জনপ্রিয়তার হার মোবাইলেই বেশী।
পরিপূর্ণ রিভিউ লেখা হলোনা। খুবই সীমিত কিছু কথায় শেয়ার করলাম চলতি বছর ২০১৫ সালের সেরা ওয়েব ব্রাউজারের সংক্ষিপ্ত বিবরন। ওয়েব ব্রাউজার গুলো সম্পর্কে কোন মতামত থাকলে অবশ্যই জানাবেন। আজকের মতো এখানেই সমাপ্তি। ধন্যবাদ
Green Hosting
তথ্যসুত্র ও সংগ্রহঃ এখানে
লেখক- ব্লগার মারুফ

উত্তর দিন