স্মার্টফোন এবং ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার কিছু উপায়ঃ- এগুলো আমাদের জানা জরুরী…

0 166

নিশ্চয়ই আপনারও এমন হয়েছে যে আপনি বাসা থেকে একটু পর কাজে বের হবেন কিন্তু আপনার স্মার্টফোন বা ল্যাপটপে চার্জ নেই। অনেক বিরক্ত লাগে তাইনা? বিশেষ করে, এমন কোন সকলে দেখবেন ফোনের ব্যাটারিতে একটুও চার্জ নেই কিন্তু আপনাকে সারাটাদিন বাইরে থাকতে হবে! আবার খুব একটা জরুরী কাজের জন্য বাইরে বের হচ্ছেন – ল্যাপটপে চার্জ নেই! ডিভাইস সেটা সেলফোন হোক বা ল্যাপটপ – চার্জ নিয়ে আমরা কম বেশি সবাই সমস্যা ফেস করে থাকি। আসলে, সমস্যা শুধু ডিভাইসেরই নয়! আমাদের জন্যেও এই সমস্যা গুলো হয়ে থাকে। নতুন থাকা অবস্থায় আমরা যখন ডিভাইস গুলো কিনি তখন ডিভাইসের ব্যাটারি গুলো নতুন এবং শক্তিশালী থাকে কিন্তু সময়ের সাথে তো বটেই আবার আমাদের ভুল ব্যবহারের ফলেও ব্যাটারি গুলো হয় ক্ষতিগ্রস্থ; ফলে মাঝে মজাহে এরকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় আমাদের।

আজকে আমি আপনাদের সাথে এমন কিছু টিপস শেয়ার করবো যেগুলো আপনাদের ডিভাইসের ব্যাটারি ভালো রাখতে সাহায্য করবে।

১। অতিরিক্ত তাপমাত্রা এড়িয়ে চলুন

1

আপনার ডিভাইসীর ব্যাটারির লাইফ টাইম অনেকটাই আপনার চারপাশের তাপমাত্রার উপর নির্ভর করে থাকে। যেমন ধরুন, আপনি যদি এমন কোন স্থানে থাকেন যেখানে তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রী সেলসিয়াসের উপরে বা ০ ডিগ্রী সেলসিয়াসের নিচে তবে সে ক্ষেত্রে আপনার ডিভাইসের ব্যাটারি খুব দ্রুত ফুরিয়ে যাবে।

এজন্য, খেয়াল রাখবেন যাতে করে আপনার ডিভাইসটি (স্মার্টফোন অথবা ল্যাপটপ) এমন কোন স্থানে না থাকে যেখানে সরাসরি সূর্যের আলো এসে পড়ছে অথবা যেখানের তাপমাত্রা শূন্যেরও নিচে! যদিও, অতিরিক্ত তাপমাত্রাই ডিভাইসের ব্যাটারিকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ করে তবে অতিরিক্ত এবং অতিনিম্ন – দুধরণের তাপমাত্রাই ডিভাইসের ব্যাটারির জন্যে ক্ষতিকর।

bangla 600x180new edition copy

২। সময়মতো চার্জ এবং ডিসচার্জ করুন

2

অনেক বিশেষজ্ঞ নানা রকম পরীক্ষা নিরীক্ষা করে বলেছেন যে আপনার ডিভাইসটির চার্জ একেবারে শেষ হয়ে গেলেই পুনরায় চার্জ দেয়া উত্তম। এতে করে ব্যাটারির পারফর্মেন্স ভালো থাকে এবং লাইফ টাইম দীর্ঘায়িত হয়। তবে, বর্তমানের কিছু রিসার্চের ফলাফল অনুযায়ী সম্পুর্ন ডিসচার্জ করে পুনরায় চার্জ করার এই প্রক্রিয়াটি ক্ষতিকর! এর চিয়াতে ৪০ শতাংশ থেকে ৮০ শতাংশের মধ্যে চার্জ এবং ডিসচার্জের প্রক্রিয়াটি সম্পুর্ন করা ভালো।

অর্থাৎ, আপনার স্মার্টফোনের চার্জ যখন কমে ৪০ শতাংশে আসবে তখন আপনি ডিভাইসটি পুনরায় চার্জ করবেন এবং ৮০ শতাংশ চার্জ হয়ে গেলে ডিসচার্জ করবেন।

কিন্তু, যেহেতু এতটা মনে রাখা সম্ভব নয় বা সব সময় ফলো করাও সম্ভব নয় তাই ২০ শতাংশের সময় চার্জ এবং ১০০ শতাংশে ডিসচার্জ করাটাই উত্তম।

৩। অতিরিক্ত সময় ডিভাইস চার্জে লাগিয়ে রাখবেন না

3

আপনার ডিভাইসের ব্যাটারিটি ১০০% চার্জ হয়ে গেলে এর পরে অতিরিক্ত চার্জ আপনার ব্যাটারির লাইফ টাইম কমিয়ে দিতে পারে।

অনেক ব্যবহারকারীই মনে করেন যে ব্যাটারি ওভার চার্জ করা ভালো কিন্তু এটা অবশ্যই একটি ভুল ধারণা কেননা, অনেক নির্মানকারি প্রতিষ্ঠানই এমন ভাবে ডিভাইস গুলো নির্মান করেন এভাবে যেন তা শতভাগ চার্জ নেয়ার পর আর চার্জ গ্রহণ না করে, কেননা এতে ব্যাটারি লাইফ দীর্ঘায়িত হয়। এখন অনেক ডিভাইসেই এমন সিস্টেম রয়েছে যার ফলে চার্জ সম্পূর্ণ হয়ে গেলে ডিভাইস স্বয়ংক্রিয় ভাবে চার্জ গ্রহণ করা বন্ধ করে দিবে। কিন্তু, যেহেতু সকল ডিভাইসে এই সুবিধাটি নাই সেহেতু আপনাকেই খেয়াল রাখতে হবে যেন ব্যাটারি ওভার চার্জ না হয়ে যায়।

bangla 600x180new editionx copy

৪। আল্ট্রা-ফাস্ট চার্জিং এড়িয়ে চলুন

450

আলট্রা-ফাস্ট চার্জিং হয়তো আপনার ডিভাইসটিকে স্বাভাবিকের চাইতে বেশ দ্রুত চার্জ হতে সাহায্য করবে তবে এই প্রক্রিয়ায় বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ডিভাইসের ব্যাটারির লাইফ টাইম রিডিউস হয় যায়। তাই, একটু ধর্য্য ধরে ফাস্ট-চার্জিং মেথড বাদ দিয়ে সময় নিয়েই ডিভাইস চার্জ করুন! সময় লাগলেও আপনার ডিভাইসটির ব্যাটারি আপনাকে অনেক দিন সাপোর্ট দিয়ে যাবে!

৫। নকল চার্জার ব্যবহার করবেন না!

5

কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকের একটি গ্রুপে দেখলাম একজন ‘স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৫’ এর ‘আসল’ চার্জার বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়েছেন মাত্র ২০০টাকায় প্রতিটি হিসেবে, যেখানে আসল স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৫ চার্জারের মূল্য অনেক বেশি! তাহলে তিনি কীভাবে দিচ্ছেন? আমি তাকে ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে জানতে চাইলাম, ‘এটা কী করে সম্ভব?’ তিনি আমাকে অনেক কিছুই বুঝালেন কিন্তু শেষ পর্যন্ত আমি যা বুঝলাম তা হচ্ছে এটা মোটেও আসল নয়! অনেকেই কম মূল্যে এরকম চার্জার কিনে ব্যবহার করে থাকেন তবে এটা ডিভাইসের ব্যাটারির জন্য কতটা ক্ষতিকর যদি জানতেন! দাম বেশি এবং পাওয়া কষ্টসাধ্য হলেও দয়া করে আপনার ডিভাইসের জন্য আসল এক্সেসরিজ (চার্জার) ছাড়া অন্যকিছু ভুলেও ব্যবহার করবেন না! এটা আপনার ডিভাইসকে পার্মানেন্টলি ড্যামেজ করতে পারে।

bangla 600x180new edition copy

৬। দীর্ঘ সময় ধরে ব্যবহার না করার ক্ষেত্রে মাঝামাঝি চার্জ আবশ্যক

6

ধরুন আপনি দীর্ঘ দিনের জন্য আপনার ল্যাপটপটি বাসায় রেখে কোথাও বেড়াতে যাচ্ছেন তবে অবশ্যই আপনার ডিভাইসের ব্যাটারি অন্তত ৫০শতাংশ চার্জ করে এমন কোন স্থানে রেখে যেতে হবে যেখানের চাপমাত্রা ৩২ ডিগ্রী সেলসিয়াসের নিচে।

অ্যাপল থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, দীর্ঘ দিন ডিভাইস ফেলে রাখার ক্ষেত্রে প্রতি ৬ মাস পর পর ডিভাইসের ব্যাটারি ৫০% চার্জ করে রাখতে হবে, নইলে ব্যাটারির লাইফ নাটকীয় ভাবে কমে যাবে।

শেষ কথাঃ

সময়ের সাথে সাথে ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসে দেখা দেয় নানা রকমের সমস্যা। কিন্তু, আপনি ইচ্ছে করলে সহজেই সেই ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস গুলোর লাইফ টাইম দীর্ঘায়িত করতে পারেন। উপরের পদ্ধতিগুলো শুধু ব্যাটারির জন্য ছিল কিন্তু এরকমই অনেক ছোট ছোট টিপস আপনার অন্যান্য ডিভাইসকেও দীর্ঘায়িত করতে সাহায্য করবে খুব সহজেই। বর্তমানের জ্ঞানের ভান্ডার হচ্ছে ইন্টারনেট, একটু খুঁজেই দেখুন না।

bangla 600x180new edition copy

তথ্যসূত্র অ সংগ্রহঃ এখানে

লেখকঃ আবীর হাসান

উত্তর দিন