জাতীয় ফোন রিভিউ (শাওমী নোট ৪এক্স)

0 166

আসসালামু আলাইকুম,

যারা জানেন না কেন শাওমী নোট ৪এক্স কে জাতীয় ফোন বলা হয়, তারা এই পোস্টটি পড়ার পর বুঝতে পারবেন, কেন এটাকে জাতীয় ফোন বলা হয়। অন্যান্য দেশের মত আমাদের দেশেও শাওমীর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। আমাদের দেশে যেমন শাওমী লাভার রয়েছে তেমনি কিছু শাওমী হেটার ও রয়েছে।

 

শাওমীর সাথে প্রথম পরিচিত হই ২০১৪ সালে রেডমি ১এস দিয়ে, তখন  খুব অল্প কিছু মানুষ জানতো শাওমী সম্পর্কে, তবে ২০১৬ সালে শাওমীর নোট ৩ আমাদের দেশে আসে, মাত্র ১৬কে তে স্নাপড্রাগন ৬৫০ চিপ, আর বাকীটা ইতিহাস। ২০১৬ সালের বেষ্ট মিডরেঞ্জড স্মার্টফোন ছিল নোট ৩।

আশা ছিল যখন নোট ৪ বের হবে হয়তো স্নাপড্রাগন ৬৫২পাবো। কিন্তু ৬২৫ ও খারাপ না (১৩কে হিসেবে)

 

Xiaomi Note 4X

দামঃ ১৩০০০টাকা

স্নাপড্রাগন ৬২৫ চিপ সাথে এড্রিনো ৫০৬ গ্রাফিক্স

৫.৫” ফুল এইচডি ডিসপ্লে

৩জিবি রেম সাথে ৩২জিবি রম

১৩এমপি ব্যাক+৫এমপি ফ্রন্ট ক্যামেরা

৪১০০এমএএইচ ব্যাটারি

 

 

 

কুইক রিভিউঃ (দাম বিবেচনা করে মাত্র ১৩কে তে এতকিছু)

 

 

৫.৫” ফুল এইচডি ২.৫ডি ক্রাভড ডিসপ্লে, সাথে মেটাল বডি, কালা সুন্দরী ভার্সন মানে ম্যাট ব্লাকের উপর আপনাকে ক্রাশ খাইতেই হবে, দারুন বিল্ড কোয়ালিটি। (তবে ফোন কেনার সময় ভালো মানের গ্লাস প্রটেক্টর কিনে নিবেন)  আমার রেটিং ৫/৪

 

 

স্নাপড্রাগন ৬২৫ মনে হয় না আপনি এই দামে অন্য কোন ফোনে পাবেন, সাথে রয়েছে ৩জিবি রেম ফলে আপনি পাবেন দারুন পারফমেন্স। যে কোন গেমস খেলতে পারবেন কোন প্রকার ল্যাগ ছাড়াই।

আমার রেটিং ৫/৪

 

 

এপনি যদি একজন এভারেজ ইউজার হয়ে থাকেন তবে আপনি একবার চার্জ দিয়ে দুই থেকে তিনদিন কাটিয়ে দিতে পারবেন। আর যারা হেভি ইউজার (মানে যারা সারাদিনই মোবাইল গুতায়) তার একদিন আরামছে ব্যাবহার করতে পারবেন। ( তবে নোট ৪এক্স নিয়ে অনেক ব্যাবহারকারীর অভিযোগ আছে যে এর চার্জ শেষই হয় না, অনন্যা ফোনে যেখানে দিনে দুইবার চার্জ দিতে হয় )

আমার রেটিং ৫/৫

 

 

এবার আসি একমাত্র খারাপ দিক নিয়ে, তা হল এর ক্যামেরা, দিনে এবং আলোতে আপনি ভালই ছবি তুলতে পারবেন, তবে রাতে এবং কম আলোতে আপনি এর ক্যামেরা পারফমেন্সে একটু হতাশ হবেন।

সোজা কথায়, একমাত্র যাদের প্রধান প্রায়োরিটি ক্যামেরা তাদের জন্য এই ফোন না।

আমার রেটিং ৫/৩

 

 

 

শেষ কথা, আমাদের দেশে স্মার্টফোন ব্যাবহারকারীর বেশিরভাগই হল, মধ্যবিত্ত এবং ছাত্র,যাদের বেশি টাকা দিয়ে স্মার্টফোন কেনার সামর্থ্য নেই, তাই তাদের কাছে এটাই ফ্লাগশিপ। তাই অনেকেই একে জাতীয় ফোন হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

মনে হয় না তের হাজার টাকা দিয়ে এর থেকে ভালো স্মার্টফোন বাজারে পাওয়া যাবে।

 

 

 

(নোটঃ এটা আমার ব্যাক্তিগত রিভিউ, শাওমীর কোন কিছুর সাথে আমি জড়িত নই)

 

 

 

ফেসবুকে আমিঃ Muhammad Easin Islam

উত্তর দিন