১০০ সেলিব্রেটির নগ্ন ছবি ফাঁস! আপনি কি নিরাপদ?  

1 197

Iphone

আইফোন এর ফটো ক্লাউডের মাধ্যমে ১০০ সেলিব্রেটির নগ্ন ছবি প্রকাশিত হয়েছে। এসব ছবির বেশির ভাগই সেলফি টাইপ। নগ্ন ছবি ফাঁস হওয়ার তালিকা আছেন হলিউড সেনশেসন জেনিফার লরেন্স থেকে শুরু করে পপগায়িকা রিয়ান্না, সেলেনা গোমেজ, অ্যাভ্রিল লেভিন, কারা ডেভেভিংনে, অভিনেত্রী কেট বোসওর্থ, হিলারি ডাফ, অ্যাম্বার হার্ড, গ্যাব্রিয়েলে ইউনিয়ন, হেডেন প্যানেট্টিয়ের, জেনি ম্যাককার্থি, হোপ সলো, রিয়েলিটি টিভি তারকা কিম কার্দাশিয়ান, মডেল-অভিনেত্রী কেলি ব্রুক, কেট আপটন, কেলি কুকো, নিকি পালমারের মতো তারকার  নগ্ন ছবি ।

বিনোদন জগতের এতোগুলো সেলিব্রেটির ছবি এভাবে হ্যাক এবং প্রকাশ হওয়ার ঘটনায় সারা বিশ্বে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে। প্রশ্নের মুখে পড়েছে বিশ্বের অন্যতম সেরা টেক জায়ান্ট ‘অ্যাপল’ এর সেবা নিয়েও। কারণ হ্যাক-প্রকাশিত হওয়া ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো আইফোনের ক্যামেরায় তুলে ব্যাকআপ হিসেবে রেখেছিলেন ‘আই ক্লাউড’-এ।

গত ৩১ আগস্ট এই ঘটনা ঘটে। তবে এতো বিপুলসংখ্যক  নগ্ন ছবি কীভাবে হ্যাকাররা ফাঁস করে দিলো তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে।

যে ঘটনা ঘটে গেছে তা নিয়ে তদন্ত চলছে এবং চলবে, কিন্তু ওইসব তারকাদের ব্যক্তিগত ইমেজের যে ক্ষতি হয়ে গেল তা হয়তো হিসেব করে মেলানো সম্ভব না।


আমি-আপনি কি ঝুঁকির মুখে?

পাঠক, আ্পনিও হয়তো ওইসব তারকাদের মতো ব্যবহার করছেন আইফোন অথবা অ্যান্ড্রয়েড ফোন। তার মানে আপনিও কি তাদের মতো হুমকির মুখে? উত্তর অবশ্যই ‘হ্যা’।

আসুন একটু দেখে নেই কীভাবে এই অঘটন ঘটেছে এবং কী করলে আপনি-আমি নিরাপদে থাকতে পারবো ওই ধরনের ব্যক্তিগত ছবি/তথ্য ফাঁস হওয়ার নিরাপত্তা ঝুঁকি থেকে।

কিভাবে কাজ করে আই ক্লাউড (আইফোনের জন্য) এবং গুগল প্লাস/ফটোস (অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জন্য)?

আপনি যখনই আইফোন কিনে আই ক্লাউড এ সাইন আপ করেন, তখনই ৫ জিবি এর একটি স্টোরেজ আপনার জন্য সংরক্ষিত হয়ে যায়।

 

android phoneআই ক্লাউড

আর অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীরা নিজের জিমেইল একাউন্ট দিয়ে ফোনে লগ ইন করলে তার জন্য ১৫ জিবি’র স্টোরেজ সংরক্ষিত হয়।

back up

 

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের পিকাসা/ফটো স্টোরেজ

আপনার ফোন সেটিংসে সেট করা থাকে যে, আপনি যখনই ওয়াই-ফাই এর আওয়তায় আসবেন তখন আপনার সদ্য তোলা ছবি/ভিডিও অটোমেটিকভাবে আপলোড হতে থাকবে। হোক সেটা আপনার একান্ত কোনো মুর্হুতের ছবি/ভিডিও বা অফিসের জরুরি কোনো ফাইল (অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ক্ষেত্রে অবশ্য ফাইল আপলোড হয় না)।

আ্ইফোন সাধারনত নিম্নোক্ত তথ্য ‘আই ক্লাউড’ এ আপলোড করে – (http://support.apple.com/kb/PH12519?viewlocale=en_US)

# গান, মুভি, টিভি শো, অ্যাপস, বই কেনার তথ্য
# আপনার ফোনের ক্যামেরায় থাকা ছবি এবং ভিডিও
# ফোনের সেটিং তথ্য
# বিভিন্ন অ্যাপসের ডাটা (যেমন গেমসের পয়েন্ট, র্যাংক, নতুন ক্যারেক্টার ইত্যাদি)
# হোম স্ক্রিন এবং অ্যাপসের আরও তথ্য
# এসএমএস, এমএমএস, ভয়েস মেইল
# রিং টোন

security

 

আই ক্লাউড

অন্যদিকে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ছবি-ভিডিও তার ফটো ক্লাউডে রাখে। (https://support.google.com/plus/answer/1647509?hl=en) ফোন নম্বরগুলো জিমেইলে রাখার সাথে সাথে গুগল ড্রাইভের কিছু অতিরিক্ত সেটিংস ব্যবহার করে জিমেইলে আসা ফাইল সেখানে রাখা যায়। কিন্তু তা মোটামুটি নিরাপদ ইন্টারঅ্যাকশনের পরে আপলোড হয়। তবে বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে প্রায় সব কিছুই ব্যাকআপ রাখা যায়। এক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে আপলোড হওয়া ছবি-ভিডিও ‘গুগল প্লাস’ এ শেয়ার হয়ে যায়, অনেকটা ফেসবুকের মতো। এবং আপনার প্লাস নেটওর্য়াকে থাকা বন্ধুরা ওইসব ছবি দেখতে পারে।

 

picasaঅ্যান্ড্রয়েড ফোনের পিকাসা/ফটো স্টোরেজ

যেহেতু ফোনের স্টোরেজ সীমিত এবং আমরা যেহেতু মোবাইল ব্যবহার করে ছবি-ভিডিও তোলা, সংরক্ষণ এবং যোগাযোগ করি সেজন্য একটু বড় স্টোরেজ দরকার। কিন্তু সেই স্টোরেজের সুবিধা নিতে গিয়ে অনেক সময় আমাদের অজ্ঞতা/বদ-অভ্যাসের কারণে একান্ত ব্যক্তিগত ছবি/ভিডিও ফাঁস হয়ে যায়। ফাঁস হয়েছে বলে একেবারে ফোন ব্যবহারতো আর বাদ দেওয়া যাবে না।

একটু সর্তক হোন

# মোবাইলের সেটিং বুঝে-শুনে সেট করুন।
# একান্ত ব্যক্তিগত ছবি মোবাইলে তোলা থেকে বিরত থাকুন।
# ছবি তুললেও ওয়াইফাই নেটওর্য়াকে আসার আগেই ডাটা কেবল দিয়ে সড়িয়ে ফেলুন।

প্রযুক্তি অবশ্যই আমাদের জীবনে আর্শিবাদ হয়ে এসেছে। কিন্তু প্রযুক্তির অতিমাত্রায় ব্যবহার/অপচয় ক্ষতির কারণ হয়ে আসতে পারে। একটু সর্তক হলে এবং প্রযুক্তির পরিমিত ব্যবহারে আপনার তথ্য, সন্মান এবং জীবন সবই নিরাপদে থাকবে।

লেখকঃ Abdullah Shafi

সূত্রঃ প্রিয় ডটকম

1 টি মন্তব্য
  1. hk.hasan বলেছেন

    সেলিব্রেটির নগ্ন ছবি ফাস হলেও আমাদের কোন নগ্ন ছবি নাই তাই নায়িকাদের মত নগ্ন ছবি ফাঁস হবার কোন ভয় নাই ।

উত্তর দিন