Radharamaner Gaan – 3 By Biswajit Roy (128 kbps MP3) সম্পূর্ণ নতুন অ্যালবাম!

1 121

আজ আসলে কোন ভূমিকা দিতে চাচ্ছি না। আজ যে অ্যালবামটি প্রকাশ করতে যাচ্ছি সেটা হল Radharamaner Gaan – 3 By Biswajit Roy (128 kbps MP3) সম্পূর্ণ নতুন অ্যালবাম! বাংলাদেশ এমন একটি দেশ যার আছে হাজার বৎসরের ঐতিহ্য! নিজের ভাষা লেখার বর্ণ, নিজেদের আলাদা সংস্কৃতি আলাদা কৃষ্টি। তার মধ্যেও বাংলাদেশের প্রতিটা অঞ্চলে রয়েছে তার আলাদা ঐতিহ্য ! ঐতিহ্যগত কারনে এই দেশের মানুষ সঙ্গীত অনেক ভালবাসে, জারিশারী ভাটিয়ালী ভায়াইয়া বাউল আধুনিক রবীন্দ্র সঙ্গীত নজরুল সঙ্গীত থেকে শুরু করে হাল আমলের পপ রক পর্যন্ত । এই দেশে সন্ম নিয়েছের হাজার হাজার নাম না জানা সাধক বাউল কবি! তাদের মধ্যে উল্লেখ্য ফকির লালন শাহ্‌, হাছন রাজা, শাহ্‌ আব্দুল করিম সহ আরও অনেকে সর্ব মহলে দারুন জনপ্রিয়! কিন্তু আজ আমি যার গান শেয়ার করছি তিনি হলে রাধারমণ দত্ত। হয়তো নতুন প্রজন্মের অনেকে এই নামের সাথে পরিচিত না। কিন্তু আমি নিশ্চিত তার গানের সাথে অনেকে পরিচিত। এই সাধক বাউল রাধারমণ দত্তের প্রকাশিত অপ্রকাশিত গান গুলাকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার মহৎ একটা উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন বাংলাদেশের আরেক গুণী শিল্পী বিশ্বজিৎ রায়। এই গুণী শিল্পী এর আগের রাধারমণ দত্তের আরও ২টি অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন যথাক্রমে Radharamaner Gaan 1 এবং Radharamaner Gaan 2 নামে। আপনারা শুনলে আশ্চর্য হবেন বিশ্বজিৎ রায় গত ২টি অ্যালবাম চরম জনপ্রিয়তা পায়। এবং প্রকাশনা সংস্থা লেজার ভিশন বলেছে বিশ্বজিৎ রায়ের কণ্ঠে রাধারমণের গানের অ্যালবাম গুলা ছিলা তাদের বিক্রয়ের শীর্ষে ! শুনলে আরও অবাক হবেন এই শিল্পীর গত ২টি অ্যালবাম রিলিজ হয় বিশ্বের শীর্ষ আনলাইন সপিং সংস্থা www.amazon.com ! আমাজান ডট কম থেকে শিল্পীর আগের অ্যালবাম গুলা কিনতে চাইলে নিচের লিংক গুলা ফলো করুন।

www.amazon.com
Radharamaner Gaan 1 Biswajit Roy
http://goo.gl/wPgz8g
Bhaibe Radharaman Bole
Radharamaner Gaan 2
http://goo.gl/LSk3Wn
জেনেনিন রাধারমণ দত্তের সংকিপ্ত জীবনী।
সিলেটি ধামাইল গানের (বিয়ের গান) জনক রাধারমণের পুরো নাম রাধারমণ দত্ত। বৈষ্ণব সহজিয়া ভাবরসের ধারায় ও গানের এই গীতিকবি তার নামের সাথে যুক্ত করেছেন ‘ভাইবে রাধারমণ বলে’ বাক্যটি। লোকসংগীতের পুরোধা লোককবি রাধারমণ দত্ত ১৮৩৩ খ্রিস্টাব্দে ১২৪১বাংলায় সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার আতুয়াজান পরগনার কেশবপুর গ্রামে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা রাধা মাধব দত্ত ছিলেন একজন প্রসিদ্ধ কবি। তিনি জয়দেবের বিখ্যাত গীত গোবিন্দ বাংলা ভাষায় সর্বপ্রথম অনুবাদ করেন। তার রচিত ভ্রমর গীতিকা, ভারত সাবিত্রী, সূর্যব্রত পাঁচালি, পদ্ম-পুরাণ ও কৃষ্ণলীলা গীতিকাব্য উল্লেখযোগ্য। ১২৫০ বঙ্গাব্দে রাধারমণ পিতৃহারা হন এবং মা সুবর্ণা দেবীর কাছে বড় হতে থাকেন। ১২৭৫ বঙ্গাব্দে মৌলভীবাজারের আদপাশা গ্রামে শ্রী চৈতন্যদেবের অন্যতম পার্ষদ সেন শিবানন্দ বংশীয় নন্দকুমার সেন অধিকারীর কন্যা গুণময়ী দেবীকে বিয়ে করেন।
কৈশরে রাধারমণ পিতৃহারা হলে সাংসার জীবনের প্রতি উদাসীন জগতের সৃষ্টিত্বত্ত নিয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠেন এবং সৃষ্টিকর্তার স্বরূপ অনুসন্ধানে মনোনিবেশ করেন বিভিন্ন মতাবাদে। জগতের সৃষ্টিত্বত্তের প্রতি বিশেষ আগ্রহী হয়ে তিনি মৌলভীবাজার এর ঢেউপাশা গ্রামের সাধক রঘুনাথ গোস্বামীর শিষ্যত্ব গ্রহণ করেন। তারপর তিনি সহজিয়া মতে সাধন ভজন করেন। বাড়ির পাশে নলুয়ার হাওরের একটি পর্ণকুঠির বানিয়ে সাধন ভজন শুরু করেন। তিনি শ্রীকৃষ্ণ ভাবে বিভোর হয়ে রাধাকৃষ্ণ প্রেমলীলা (রাসলীলা) নিয়ে গান রচনা করেন। কৃষ্ণ প্রেমে বিভোর হয়ে রাধারমণ যখন গান গাইতেন সে গানগুলো যারা শুনতেন তারা তার অনেকটা কাগজে লিখে রাখতেন। এ কারণে তাঁর নিজ হাতে রচিত গানের কোন পাণ্ডুলিপি পাওয়া যায়নি।
কবি রাধারমণের পুরো পরিবারের পারিবারিক জীবন ধারায় বৈষ্ণব ও সুফীবাদের প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। পারিবারিক ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় উপাসনার প্রধান অবলম্বন সংগীতের সঙ্গে তাঁর পরিচয় ছিল শৈশব থেকেই। খ্যাতিমান লোককবি জয়দেবের গীত গোবিন্দ এর বাংলা অনুবাদ করেছিলেন তার পিতা রাধামাধব দত্ত। পিতার সংগীত ও সাহিত্য সাধনা তাকেও আলোড়িত করেছিল দারুন ভাবে। তাঁর মধ্যে শৈশব, কৈশর, যৌবন ও পরিণত বয়সে সে ধারাবাহিকতা তার মধ্যে বিদ্যমান ছিল। রাধারমণ সাধক কবি হাছন রাজা থেকে বয়সে প্রায় দেড় দশকের বড় ছিলেন। কিন্তু তাদের মধ্যে ছিল হৃদ্দিক সম্পর্ক।
তাঁর রচিত ধামাইল গান সিলেট ও ভারতে বাঙ্গালীদের কাছে পরম আদরের ধন। রাধা রমন নিজের মেধা ও দর্শনকে কাজে লাগিয়ে মানুষের মনে চিরস্থায়ী আসন করে নিয়েছেন। কৃষ্ণ বিরহের আকুতি আর না পাওয়ার ব্যথা কিংবা সব পেয়েও না পাওয়ার কষ্ট তাকে সাধকে পরিণত করেছে। তিনি দেহতত্ত্ব, ভক্তিমূলক, অনুরাগ, প্রেম, ভজন, ধামাইলসহ নানা ধরণের প্রায় সাড়ে ৫ হাজার গান রচনা করেছেন।
রাধারমণের বহুল প্রচলিত গানগুলোর মাঝে রয়েছে ‘ভাইবে রাধারমণ বলে প্রেমানলে অঙ্গজ্বলে গো’, আসবে শ্যাম কালিয়া-কুঞ্জ সাজাও গিয়া, শ্যাম কালিয়া সোনা বন্ধুরে, শ্যামের বাঁশি বাঁশিরে, আইজ পাশা খেলবো রে শ্যাম, আজ কেন রে ভাইরে সুবল, জলে গিয়েছিলাম সই, ভ্রমর কইও গিয়া, ও আমি কার কারণে, কালায় প্রাণটি নিল, প্রাণ সখিরে ঐ শোন কদম্ব তলে, আমার বন্ধু দয়াময়, কারে দেখাবো মনের দুঃখ, আমার গলার হার, তুমি চিনিয়া মানুষের সঙ্গ লইও, আমি রব না রব না গৃহে, বিনোদিনী গো তোর, ও বিশখে শ্যাম শোকেতে, গুরু কাঙলে পানিয়া, ও রসিক নাইয়া, দেহতরী দিলাম ছাড়ি, দয়াল গুরু বিনে বন্ধু, আজি চিত্রপাট বিশাখে, শ্যামল বরণ রূপে, বল গো বল গো সখি, নিশীথে জাগিয়া আকুলও হইলাম আমি, আমারে আসিবার কথা কইয়া ইত্যাদি।
ব্যক্তিগত জীবনে রাধারমণ দত্ত ছিলেন তিন পুত্রের জনক। তার দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুত্রসহ স্ত্রী একযোগে মারা গেলে তার ভাবান্তর ঘটে এবং তার মনে বৈরাগ্য ভাবের সৃষ্টি হয়। সেই থেকেই তিনি সংসার ত্যাগী যোগীর মতো সাধন ভজনে মগ্ন হয়ে যান। তাঁর প্রথম পুত্র বিপীন বিহারী দত্ত তখন মৌলভীবাজারের ভুজবল গ্রামে মামার বাড়িতে যান স্থায়ী বসবাস শুরু করেন। তাঁর বংশধরেরা বর্তমানে সেখানে বসবাস করছেন। রাধারমণ দত্তের সাধনা ছিল সহজিয়া বৈষ্ণব রীতির, সঙ্গীত ছিল তাঁর সাধনার অন্তর্ভূক্ত একটি বিষয়। টানা ৩২ বছর তিনি ঈশ্বরের সাধনা করেছেন। রাধারমণ দত্ত ৮২ বছর বয়সে ৬নভেম্বর ১৯১৫ খ্রীস্টাব্দে (১৩২২ বাংলার ২৬ কার্তিক শুক্রবার পরলোকগমন করেন। জগন্নাথপুর উপজেলার কেশবপুর গ্রামে প্রচলিত হিন্দুরীতি অনুযায়ী তাঁর মরদেহ দাহ না করে বৈষ্ণব মতবাদ অনুযায়ী সমাহিত করা হয়।
নীচে শিল্পীর তুলিতে আঁকা রাধারমণ দত্তের চিত্র।

Untitled-2 copy.jpg dd (Large)

নীচে অ্যালবামটির কাভার।

pc Radharamaner Gaan (Large) (3) (Large)

pc Radharamaner Gaan (Large) (2) (Large)

অ্যালবামে মোট গান আছে ১০ টি, দেখেনিন কি কি গান আছে
১। নিশিতে জাগিয়া আকুল হইলাম রাধে
২। মাগো নিতে আইলাম প্রান কানাই
৩। জলে গিয়াচিলাম সই
৪। নাইয়ারে সুজন নাইয়া ( এই গানটি শুনতে এখানে ক্লিক করুন)
৫। কুঞ্জে মিলিল মিলিল
৬। বিনোদিনী গো তোরে বৃন্দাবন
৭। আমি ডাকি কাঙালিনী
৮। শ্যাম তুমি আওনা কেনে
৯। বাঁশিতে শ্যাম চান্দের বাঁশি
১০। ললিতে সুখ হইল না।
Please buy the original CD and support Bangladesh music industry to survive.. Thank You.
এই গান গুলা যারা সিডি কিনতে অক্ষম একমাত্র তাদের জন্য। দয়া করে এই গান গুলা কোন বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে ব্যাবহার করবেন না। শিল্পীর গান গুলার ওরিজিনাল সিডি কিনে শুনুন এবং বাংলা মিউজিক শিল্প রক্ষায় সহায়তা করুন ধন্যবাদ।
ডাউনলোড করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন। সম্পূর্ণ অ্যালবামটি মাত্র ৫০.০ MB

pchelplinebd

>> এখানে ক্লিক করুন <<
রার ফাইলটির পাস ওয়ার্ড ( pchelplinebd )
—————————————————————————————————————————————————————–
আজ এই পর্যন্ত। ভাল থাকুন সবাই এবং ভাল গান শুনুন।
বিনা অনুমতিতে পিসি হেল্পলাইন বিডির কোন কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ, যে কোন ধরনের কপি-পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ!

 

1 টি মন্তব্য
  1. মো: রাব্বি মিয়া বলেছেন

    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ ।

উত্তর দিন