নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ভোটার হওয়া যাবে

1 103

ভোটার হতে নির্বাচন কমিশনে গিয়ে আর ঝামেলা পোহাতে হবে না। অনলাইনে ভোটার হওয়া যাবে। অনলাইনে আবেদন করে দেশের নাগরিকরা পরিচয় নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন- এমন নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

Bangladesh National Id Cardগতকাল রবিবার কমিশন সভায় এই সিদ্ধান্ত অনুমোদন হয়েছে বলে জানা গেছে। নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে এই আবেদন করা যাবে।ইসির এক উপ সচিব সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘শিগগির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, কম্পিউটার কাউন্সিল ও বেসিসের বিশেষজ্ঞদের নিয়ে কর্মশালা করতে যাচ্ছে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনু-বিভাগ। এই কর্মশালা হতে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে কয়েক মাসের মধ্যেই অনলাইনে ভোটারদের নানা ধরনের সেবা দেয়া হবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে অনলাইন সেবার মধ্যে রয়েছে: ভোটকেন্দ্রের তথ্য দেখা, নিজস্ব তথ্য দেখা, ঠিকানা পরিবর্তন, তথ্য পরিবর্তন, ভোটার এলাকা পরিবর্তন, পুনমুদ্রণের জন্য আবেদন করা ইত্যাদি। আরও থাকবে ছবি, স্বাক্ষর ও অন্যান্য পবির্তনের জন্য আবেদন নেওয়া, আবেদন ট্র্যাকিং করা, সাধারণ জিজ্ঞাসা এবঙ ফরম ডাউনলোড।

অনলাইনে নতুন ভোটার হওয়ার পদ্ধতি হলো, ইসির নিজস্ব ওয়েবসাইটে ঢুকে ভোটার যোগ্যরা নির্ধারিত ফরম (নিবন্ধন ফরম-২) এ গিয়ে তথ্য এন্ট্রি করবেন। ডাটা সংরক্ষণের পর ২ নম্বর ফরমের মতো আরও একটি ফরম তৈরি হবে। ফরম পূরণ সম্পন্ন হলে সাবমিট করতে হবে। তখন আবেদনকারীর মোবাইল ফোনে এই সংক্রান্ত এসএমএস যাবে।

ইসি সূত্রে আরও জানানো হয়, অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আবেদনকারীর মোবাইল নম্বর অথবা ইমেইল ঠিকানায় অথবা ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে সেটি নিশ্চিত করা হবে। প্রয়োজনীয় প্রমাণ পাওয়ার পর আবেদনকারীর বায়োমেট্রিক ফিচার নেওয়ার জন্য তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র প্রথমবার বিনামূল্যে সংগ্রহ করা গেলেও পরবর্তীতে নবায়ন এবং হারানোর বিষয়ে ফি দিতে হবে। নবায়নের জন্য সাধারণ ফি ধরা হয়েছে আড়াইশ’ টাকা। যা আবেদনের ৩০ দিনের মধ্যে পাওয়া সম্ভব হবে। যদি কেও জরুরি ভিত্তিতে পেতে চান তাহলে জরুরি ক্ষেত্রে দ্বিগুণ ফি অর্থাৎ ৫০০ টাকা দিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে এটি নবায়ন করা যাবে।

আবার পরিচয়পত্র হারালে বা নষ্ট হলে পরিচয়পত্র পেতে প্রথমবার আবেদনে ৫০০ টাকা হতে ১ হাজার টাকা। দ্বিতীয়বার আবেদনের ক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা হতে ২ হাজার টাকা এবং তার পরবর্তী যেকোনো বারের জন্য আবেদন করতে সাধারণ সময়ে ২ হাজার টাকা এবং জরুরি সময়ে ৪ হাজার টাকা পরিশোধ করতে হবে।

1 টি মন্তব্য
  1. মো: রাব্বি মিয়া বলেছেন

    ভালোই হবে

উত্তর দিন