uTorrent ! একটি অসাধারন সফটওয়্যার সাথে টিউটোরিয়াল !

2 171

কেমন আছেন বন্ধুরা ? আজ অনেক দিন পর আবার কিছু নিয়ে পোস্ট করতে এলাম। এই রকম পোস্ট হয়ত আগে হয়েছে, হয়ে থাকলে মাফ করবেন 🙁

তাহলে চলুন আজকে দেখে নেই আমার এই পোস্ট আপনাদের জন্যে কি থাকছে।

আজকে uTorrent নামক সফটওয়্যার টি নিয়ে আপনাদের সাথে আলাপ করব। অনেকে হয়ত এর সম্পর্কে অনেক ভালো করে যানেন। তবে, যারা নতুন ব্যবহারকারী তাদের আশা করি অনেক কাজে আসবে।

এই সফটওয়্যার টি মূলত ডাউনলোড এর জন্যে ব্যবহার করা হয়। তবে, সব ধরনের সাইট থেকে আপনি এর মাধ্যমে ডাউনলোড করতে পারবেন না, সুধু মাত্র টরেন্ট সাইট থেকেই আপনি এই সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ডাউনলোড করতে পারবেন। টরেন্ট সাইট থেকে আপনি সব ধরনের ডাউনলোড করতে পারবেন কন প্রকার ঝামেলা ছাড়া। অনেক সময় নরমাল ওয়েবসাইট গুলো থেকে ডাউনলোড করতে গেলে দেখা যায় এখানে সেখানে সাইন আপ করতে বলে যেটা অনেকে করতে নারাজ। যারা মুভির পোক / গেমস এবং আপডেটেড সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পছন্দ করেন তাদের কে নতুন করে টরেন্ট সাইট সম্পর্কে বর্ননা দেবার কিছু নেই। টরেন্ট সাইট গুলোতে থাকছে সব লেটেস্ট মুভি / গেমস / গান এবং আপনার মোবাইল অথবা পিসি তে ব্যবহার এর জন্য সব রকমের সফটওয়্যার।

ডাউনলোড করার নিয়মঃ 

প্রথমেই বলেছি এই সফটওয়্যার টির মাধ্যমে আপনি সুধু টরেন্ট সাইট থেকেই ডাউনলোড করতে পারবেন। নামকরা অনেক টরেন্ট সাইট রয়েছে যেগুল থেকে আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন। তবে আমার পছন্দ হচ্ছে Kickass Torrents (kickass.to) । এখান থেকে অনেক দিন ধরেই ডাউনলোড করছি আমি, আমার কাছে অনেক ভালোই লাগে 🙂

প্রথমে আপনি টরেন্ট সাইট এ যাবেন আপনার পছন্দের টরেন্ট টি সিলেক্ট করবেনঃ

Untitled-1

 

এখানে (kickass Torrent) এর ছবি দিয়ে আপনাদের কে দেখাচ্ছি।
আপনারা দেখতে পাচ্ছেন ডান সাইডে কিছু তথ্য দেয়া আছে সেগুলো হচ্ছে, Size, Files, Age, Seed, Leech
এই হেডিং গুলো’র নিচে টরেন্ট এর তথ্য দেয়া থাকে। এর মধ্যে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় হচ্ছে Seed এবং Leech.

-> সিডঃ কেউ ডাউনলোড করার পর যদি সেটি কে ডিলিট / মুভ না করে তাহলে অন্যরা ডাউনলোড স্পিড পায়। যত বেশি সিড থাকে তত ভালো, তবে তার মানে এই নয় যে সিড অনেক বেশি মানে আপনি অনেক বেশি স্পিড পাবেন। অবশ্যই আপনার ইন্টারনেট এর লাইনের ওপর স্পিড ডিপেন্ড করে।
-> লিচঃ লিচ হচ্ছে কত টি ডাউনলোড চলছে, কন টরেন্ট এর যদি লিচ বেশি থাকে তাহলে আপনি ডাউনলোড করলে স্পিড কম পাবেন। ডাউনলোড করতে পারবেন তবে কম পাবার চান্স আছে। তাই সিড বেশি টরেন্ট ডাউনলোড করলে নিশ্চিন্ত ভাবেই ডাউনলোড করতে পারবেন।

অন্য দুটি আশা করি আপনারা এমনি বুজতে পারবেন। 🙂

আপনার পছন্দের টরেন্ট এ ক্লিক করার পর, নিচের মতন এরকম একটি ছবি দেখতে পাবেনঃ

Untitled-1

 

উপরের ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন আপনার টরেন্ট এ ক্লিক করার পর যেরকম উইন্ডো দেখতে পারবেন। প্রথমে বড় করে আপনার সিলেক্ট করা টরেন্ট এর নাম উঠেছে এবং এর নিচেই লেখা আপনার সিলেক্ট করা টরেন্ট এর লিচ এবং সিড এর সংখ্যা তার নিচেই দেখতে পারছেন লেখা আছে “Download Torrent” সেখানে ক্লিক করে আপনি ডাউনলোড করা শুরু করতে পারেন 😀

uTorrent এর ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://www.utorrent.com/

লোকেশন চেঞ্জ করে যেভাবে সিড দিবেন

“যারা নতুন ব্যবহারকারী এবং যারা কন টোরেন্ট সাইট এর আকাউন্ট সহ ইউসার না তাদের জন্য এই টিপস নয়”

অনেক ইউসার আছেন যারা অনেক টরেন্ট সাইটের মেম্বার, তাদের মেম্বার এর স্থ্যান টি রহ্মা করার জন্যে তাদের ডাউনলোড এর পাশে সিড ও করতে হয় তাদের রেশীও ভালো রাখান জন্যে। অনেক সময় দেখা যায় ডাউনলোড করার পর দেখা গেল কন কারনে ফাইল টি মুভ করতে হচ্ছে  এখন মুভ করলে আর সিড দিতে পারবেন না, তাহলে এখানে দেখে নিন কিভাবে লোকেশন চেঞ্জ করার পরেও আপনি সিড দিতে পারবেন।

নিচের ছবি টি লহ্ম্য করুনঃ

2

সিড দেয়া অবস্থায় যেই টরেন্ট এর লোকেশন আপনি বদলাতে চান সেটির উপর “রাইট” ক্লিক করুন এবং “এডভান্স” এ যেয়ে দেখুন দেখতে পারবেন “সেট ডাউনলোড লোকেশন” এখানে ক্লিক করেই আপনি দেখিয়ে দিতে পারবেন আপনার সিড দেয়া টরেন্ট এর নতুন লোকেশন। এ অবস্থায় আপনার টরেন্ট ও নতুন লোকেশন এ মুভ হয়ে যাবে এবং আপনার সিড দেয়া তেও কন রকম সমস্যা থাকবে না।

-> লোকেশন চেঞ্জ করা টা প্রথমে নরমাল কন টরেন্ট সাইট থেকে ডাউনলোড করে পরীহ্মা করে নিন, প্রথমে ভালো ভাবে শিখে নিন এবং তারপর আপনার আসল টরেন্ট এর উপর কাজে লাগান যদি প্রয়োজন হয়। 

আপনাদের কমেন্ট এর অপেহ্মায় রইলাম, আশা করি সবার কাজে আসবে। কন ভূল হয়ে হ্মমা করবেন। 🙂

ধন্যবাদ।

2 মন্তব্য
  1. নাজমুল হাসান বলেছেন

    utorrent proxy server dia use kora jay? for gp free net

  2. নাঈম প্রধান বলেছেন

    খুবই সুন্দর হয়েছে । uTorrent + Plas টা আরো ভাল

উত্তর দিন