রবি বর্ষসেরা শ্রেষ্ঠ জালিয়াত (রবিকে না বলুন)

3 161

এই লেখাটি কাউকে ছোট বা বড় করা, কিংবা কারো কৃতিত্বকে খাটো করে দেখানোর জন্য নয়, বরং সংশ্লিষ্ট কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান গুলোর দুর্নীতি ও প্রতারনার মাধ্যমে সরল মানুষদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার ঘটনা জানানোর জন্য। লেখাটি আমার ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে লিখলেও যাতে এই লেখাটি পড়ে মানুষ সচেতন হতে পারে এবং এই ধরনের প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পায়,সেজন্য লিখা। আমার অভিযোগ শুধুমাত্র রবি নেটওয়ার্ক এর ডাটার উপর।

robi-tips-online-dhaka-guide copy

 রবি আজিয়াটা লিমিটেড বাংলাদেশের একটি মোবাইল ফোন কোম্পানী। যা আজিয়াটা গ্রুপ বারহাড, মালয়েশিয়া (৯২%) এবং এনটিটি ডোকোমো ইনকরপোরেটেড, জাপান (৮%)-এর একটি যৌথ প্রতিষ্ঠান। এই কোম্পানি ব্যবহারকারী ও আয়ের দিক থেকে এটি বাংলাদেশের ২য় বৃহত্তম মোবাইল ফোন কোম্পানী।

রবি আজিয়াটা আগে টেলিকম মালয়েশিয়া ইন্টারন্যাশনাল (বাংলাদেশ) নামে পরিচিত ছিল। একটেল ব্র্যান্ড হিসেবে ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশে এর যাত্রা শুরু হয়।যার স্লোগান ছিল “একটেল এক ‍ধাপ এগিয়ে”২০১০ সালের ২৮ মার্চ, এই সেবাটি ‘রবি’ ব্র্যান্ড হিসেবে অভিহিত হয়, এবং তার স্লোগান পরিবর্তন করে “জ্বলে উঠুন আপন শক্তিতে” প্রতিষ্ঠানটি রবি আজিয়াটা লিমিটেড নামে পরিচিত হয়।

আজ যখন সারাদেশব্যাপী রবির সক্রিয় গ্রাহকের সংখ্যা প্রায় ২ কোটি ৫৪ লাখ! নেটওয়ার্ক ডাটা নিয়ে ব্যস্ত, ঠিক তখনি গ্রাহকদের মাঝে প্রতারনার জাল বিছিয়ে দিল রবি নেটওয়ার্ক। সাধারন গ্রাহকেরা পড়েছে বিপাকে।

sdfs copy

রবি ইন্টারনেট সেবা গ্রহণ কারী এক গ্রাহকের (যার সেল নং০১৮২৬৬৩৫৪৬১) ইন্টারনেট সংযোগ হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায়। রবির নির্দিষ্ট ব্যালেন্স চেক নাম্বার *8444*88# ডায়াল করে তিনি নিশ্চিত হোন তার ২ জিবি(৩০ দিন) কেনা প্যাকেজ নির্দিষ্ট সময়ের আগেই শেষ হয়ে গেছে। তিনি টাকা ভরে পুনরায় ২ জিবি প্যাকেজ কিনতে যান। ২ জিবি প্যাকেজ কেনার জন্য তিনি রবির নির্দিষ্ট *8444*92# নাম্বারে ডায়াল দেন। গ্রাহক ফিরতি এসএমএস এর জন্য অপেক্ষা করছেন। তিনি ধরেই নিয়েছিলেন অল্প সময়ের মধ্যে তার ২ জিবি প্যাকেজ কেনা ও সংযোগ চালুর হবার বার্তা পাবেন। কিন্তু না। এমনটা হলো না। রবি থেকে ফিরতি এসএমএস এ জানানো হলো তিনি ২ জিবি প্যাকেজ কিনতে পারবেন না। তাকে ২ জিবি প্যাকেজ বাতিল করতে হবে। পরক্ষণে আরেকটি ম্যাসেজ আসলো। সেখানে বলা হলো তাকে ১ জিবি প্যাকেজ চালু করে দেওয়া হয়েছে। সে অনুসারে তার ব্যালেন্স থেকে ১ জিবি প্যাকেজের দাম কেটে রাখা হয়েছে। পুরো প্রক্রিয়াটা করা হলো গ্রাহকের কোনো মত ছাড়াই। এটা কিভাবে সম্ভব? ১ জিবি প্যাকেজ কিনতে হলে একজন রবি গ্রাহককে নির্দিষ্ট *8444*85# নাম্বারে ডায়াল করতে হয়। তারপর এসএমএস দিয়ে নিশ্চিত করা হয় প্যাকেজ কেনা ও চালু প্রসঙ্গে। কিন্তু এক্ষেত্রে তা অনুসরণ করছে না রবি। গ্রাহক ২ জিবি’র জন্য ৩৯৯ টাকা ভরে পাচ্ছেন ১ জিবি প্যাকেজ। গ্রাহকের অনুমতি ছাড়া কীভাবে রবি এমনটা করতে পারে। এটা সম্পূর্ণ রূপে একটি প্রতারণা মূলক কাজ।

এ বিষয়ে রবির কাস্টমার কেয়ার ফোন করা হলে , তারা বলেন আমাদের নতুন সিস্টেমটা এমন। আগে এমন ছিলো না। নির্দিষ্ট দিনের আগে প্যাকেজ শেষ হলে প্যাকেজ বাতিল করার তিন চার ধাপের একটি পদ্ধতি অনুসরণ করতে হয়। তারপর আপনি নতুন প্যাকেজ কিনতে পারবেন। আর যদি নির্দিষ্ট দিনে প্যাকেজ শেষ হয়। তবে এটি অনুসরণ করতে হবে না। তখন আপনি যে প্যাকেজ কিনবেন সেটিই চালু হবে। এখন প্রতিটি প্যাকেজের ক্ষেত্রে এমনটা করা হয়েছে। তাকে প্রশ্ন করা হয়, গ্রাহকের অনুমতি ছাড়া কীভাবে আপনাদের সিস্টেম প্যাকেজ বিক্রি করছে? তখন রবি কাস্টমার কেয়ার চুপ। এ ব্যাপারে কোনো উত্তর না দিয়ে তিনি বলেন, আমরা এই সমস্যার কথা রবির ম্যানেজমেন্টকে জানাবো।

সূত্র- http://dhakanews24.com/?p=196876

 image_1305_364077 copy

আমাকেও প্রতারনার জালে ফেলল রবি নেটওয়ার্ক। গত ১৭/০৫/২০১৪ তারিখে আমি একটি ২ জিবি ১ মাস ডাটা প্যাকেজ ক্রয় করি। ২৪/০৫/২০১৪ তারিখে ম্যাসেজে জানানো হয় আপনার ডাটা 50% ব্যবহার হয়েছে। অতঃপর 50% ডাটা ব্যাবহার করতে না পারায় রবির কাষ্টমার ম্যানেজার এর সাথে কথা বলে জানতে পারি ১ জিবি শেষ হওয়ার পর বাকি ১ জিবি ডাটা রাত্রী- ০১.০০ টা হতে ভোর ০৬.০০ পযর্ন্ত ব্যবহার করা যাবে। কিন্ত আমি যখন ডাটা প্যাকেজটি ক্রয় করি তখন এরকম  কোন শর্ত ছিল না। বিগত দিনে যে ডাটা প্যাকেজ ক্রয় করা হয়েছিল সেখানেও এরকম শর্ত ছিল না। তাহলে কি আপনারা গ্রাহকদের সাথে প্রতারনা করছেন না? এ বিষয়ে রবির কাষ্টমার ম্যানেজার উত্তর দেন আমরা কিছু জানিনা ম্যানেজমেন্ট বলতে পারবে। আমাদের কথা হচ্ছে এই ম্যানেজমেন্টকে আমরা কোথায় পাবো?  যেহেতু আমরা প্রায় অনেকেই অফিসিয়াল কাজ ইন্টারনেটে দিনেই করে থাকি । সেখানে রাত্রি বেলায় ডাটা দিয়ে কি হবে? এ প্রতারণা ছাড়া আর কি হতে পারে, আপনাদের কাছে প্রশ্ন রইল।

তথ্য প্রযুক্তিতে দেশ এগিয়ে গেলে দেশ অর্থনিতীতে ভাল ভুমিকা রাখতে পারবে এই আশায় সরকারের তথ্য প্রযুক্তি উপদেষ্টা জনাব সজীব ওয়াজেদ জয় সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন তিনি বাংলাদেশে বেকারত্বতা দুর করার লক্ষে ঘরে বসে আয় করার জন্য ফ্রিল্যান্স করে ইনকাম করার কথা বলেন।  তিনি মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছে ৩ জি সেবা পরিচালনায় অবহেলার জন্য  সম্প্রতি গণ মাধ্যমে অসন্তোষ প্রকাশ করেনকারণ যে গতি গ্রাহকরা পাবার কথা তা গ্রাহকরা পাচ্ছেন না । হ্যা ! আমারা তার সাথে সহমত। কারন আমরা যারা গ্রামের দিকে আছি তারা 2জি ও 3জি কোনটাতেই গতি সেরকম পাই না।

 eca86bd9e3d21376f69d31 copy

আপনারাই চিন্তা করেন যখন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে সরকার অগ্রহস্তে নাম মাত্র মূল্যে মোবাইল অপারেটর হাতে ইন্টারনেট ডাটা হস্তগত করেছে, তখন “জ্বলে উঠুন আপন শক্তিতে”  শ্লোগান দাতা ডিজিটাল পদ্ধতিতে গ্রাহকের সাথে জালিয়াতি শুরু করেছে। আসুন এই ডিজিটাল জালিয়াতের বিরুদ্ধে সোচ্চার হই এবং তাদের ডাটা ব্যবহার করা থেকে বিরত হয়ে এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। সাথে সাথে সরকার ও সরকারের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা এবং মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয়ের দৃষ্টি কামনা করছি এই ভেবে যে, আমরা আসলেই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করতে চাই। তাই রবি অপারেটরকে বড় ইন্টারনেট ডাটা প্যাকেজ অবশ্যই গ্রাহকদের দিতে হবে। কারন বড় ইন্টারনেট ডাটা ছাড়া ফ্রিল্যান্সিং বা তথ্য প্রযুক্তির কাজ করা অসম্ভব। আর এই বিষয়ে সরকার এগিয়ে আসবেন লক্ষ কোটি যুবকদের এই প্রার্থনা।

2iwIgJLuR-OiL9DKVqFGYQ copy

ধন্যবাদ সহ-

এ. আর. রুবেল

২৫/০৫/২০১৪

 

3 মন্তব্য
  1. kb_polash বলেছেন

    রবি এখন চুরি ছেড়ে ডাকাতি ধরেছে। রবির কাস্টমার ম্যানেজার রা হলো ডাকাতের চামচা।
    আনলিমিটের নামে প্রতারনার এক নতুন ফাঁদ। আমার বিলিং সাইকেল হল 10 তারিখ হতে পরবর্তী মাসের 9 তারিখ পর্যন্ত। অতছ গত 25 তারিখে মেসেজ এল আমার 50% ডাটা ব্যবহার হয়ে গেছে। তার ২ মিনিট পরে আবার ম্যাসেজ 80% ডাটা শেষ। অতপর শেষ ম্যাসেজ 100% ডাটা ব্যবহার শেষ এবং সংযোগ বিচ্ছিন্ন। স্যার/ম্যাডোমদের ফোন দিলে বলেন স্যার আপনাকে কিভাবে সাহায্য করতে পারি। সমস্যার কথা বলতে না বলতেই সংযোগ বিচ্ছিন্ । অতপর আবার ফোন দিলাম। এবারযিনি ফোন ধরেলেন তিনি সমস্যা শোনার পর বললেন স্যার আমার সিষ্টেম ডাউন । আপনি লাইনটি কেটে পুনরায় চেষ্ঠা করুন। বুঝতে পারলাম আজ কিছু হবে না। তাই পরদিন সকালে ক্রেডিট লিমিটের অতিরিক্ত 195 টাকা রিচার্জ করে সংযোগটা চালু করলাম। 10 মিনিট হয় নাই আবার বিচ্ছিন্ন। ব্যালান্স চেক করে দেখি ক্রেডিট লিমিট থেকে 317 টাকা অতিরিক্ত বিল। মাথায় নষ্ট। আবার কাষ্টমার কেয়ারে ফোন দিলাম। এবং গতদিনের পুনরাবিত্তি। শেষ পর্যন্ত এক ম্যাডাম ফোন ধরলেন এবং তার কাছে 10 মিনিট নেট ব্যবহারে 317 টাকা বিল কিভাবে এল জানতে চাইলে তিনি এভাবে ব্যাখ্যা দিলেন ‘স্যার আমাদের আর কোন আনলিমিটেড প্যাকেজ নেই। শুধু মাত্র ১ জিবি আর 512 এমবি ডাটা ব্যবহাবের সুযোগ আছে।’ তিনি আর বললেন বান্ডেল না কি কিনে ব্যবহার না করলে এভাবে চার্জ হতে থাকবে। যাক তিনি শেষ পর্যন্ত এক রকম আনুষ্ঠানিক ভাবে জানালেন যে তারা চুরি ছেড়ে ডাকাতি ধরেছেন। অবশেষে কি আর করার, মনের দুঃখে সিম কার্ডটিকে সীম ভাজি করে খেতে পারলাম না তাই ডার্সবিনে ফেলে দিলাম। ———
    আসুম আমরা এর একটা বিহিত করি। দেশটাকে ইষ্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির হাত থেকে রক্ষা করি।

    1. এ আর রুবেল বলেছেন

      কদিন আগে এই অফার সেই অফার আর এখন এসে এদের আসল চেহারা দেখাতে শুরু করেছে! দেখি আর কি দেখায় রবি॥॥

  2. জাকির হোসেন বলেছেন

    রবির দেশপ্রম্রের নামে চটকদার চটকদার বিজ্ঞাপন আর কাবুলিওয়ালার চরিত্র একই। কারন প্রথমে আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজ, তারপর ৮ জিবি সহ বড় ডাটা গুলি বন্ধ করে দেয়া। অতঃপর ছোট ডাটা কিনতে বাধ্য করা মানেই আনাদের টুটি চেপে ধরা। এই সমস্ত ব্যবসায়ী চরিত্রের বিরুদ্ধে সরকারের ভূমিকা গ্রহন করা একান্ত দরকার।

উত্তর দিন