নিয়ে নিন SEO POWERSUITE এর এন্টারপ্রাইজ ভার্শন

1 64

আশা করি সবাই ভালো আছেন।আজ আমি একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে টিউন করতে যাচ্ছি।আর সেটা হচ্ছে Seo এর একটি সফটওয়্যার।এই সফটওয়্যারটি অ্যাকটিভেট করতে আগে অনেক ঝামেলা পোহাতে হতো।Seo এর এই সফটওয়্যারটির নতুন ভার্শন বের হয়েছে আর অ্যাকটিভেট করার নতুন ফর্মুলাও বের হয়েছে।তাই টিউনটি করার লোভ সামলাতে পারলাম না।আর এবার হয়তো সবাই অ্যাকটিভেট করতে পারবেন।তাইলে এবার মূল জায়গায় যাই।

আমার Seo নিয়ে খুব ভালো ধারণা নেই।আপনাদের এ প্রযুক্তি ব্লগে অনেক ভালো Seo এক্সপার্টরা আছেন যাদের করা চেইন টিউনগুলো পড়তে পারেন জ্ঞান অর্জন করতে।নিচে আমি যতটুকু বেসিক জানি এ তা জানানোর চেষ্টা করলাম।Seo এর পূর্ণরূপ হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। Seo এর মাধ্যমে আপনি আপনার website,page,blog etc এর অনেক উন্নতি করতে পারবেন।যখন আপনি Bangla Blog লিখে গুগল এ সার্চ করেন তখন একটা সার্চ লিস্ট এসে পরে।এতগুলি ওয়েবসাইট আর ব্লগ আছে যা হাতে গুনে শেষ করা যায় না।আপনার মনে তখনি প্রশ্ন জাগতে পারে এগুলো এত তাড়াতাড়ি গুগল কিভাবে র‍্যাঙ্কিং অনুযায়ী খুজে বের করে।এর জন্য গুগলের অনেক ফর্মুলা আছে।এর মাধ্যমে এটি র‍্যাঙ্কিং অনুযায়ী যেকোনো ওয়েবসাইট খুজে বের করে।এই ফর্মুলার ওপর ভিত্তি করেই Seo নামক জিনিসটার উৎপত্তি হয়েছে।এটি ফলো করে যেকোনো ওয়েবসাইট ডিজাইন করলে গুগলে আপনি ভালো র‍্যাঙ্কিং পেতে পারেন।ভালো র‍্যাঙ্কিং মানেই হল প্রচুর পরিমানে ভিজিটর আর বেশি ভিজিটর মানেই হল বেশি ইনকাম।এই কাজটি সহজ করার জন্য মার্কেটে প্রচুর সফটওয়্যার আছে যেগুলো প্রচুর দামি।অনেক ফ্রি সার্ভিস আর সফটওয়্যারও আছে Seo করার জন্য।কিন্তু টাকা দিয়ে কেনা জিনিস আর ফ্রি জিনিস কি আর কখনো সমান হয়।এখন Seo সফটওয়্যারটির খানিকটা বর্ণনা দেয়া যাক।

Seo এর এই সফটওয়্যারের নাম হচ্ছে Seo Powersuite.এটি খুব সহজে ফ্রীতে পাওয়া যায় না।এর অবশ্য তিনটি ভার্শন আছে।ফ্রি,প্রফেশনাল আর এন্টারপ্রাইজ।আমি আপনাদের সবচেয়ে ভালোটা অর্থাৎ এন্টারপ্রাইজ ভার্শনটা দিব।এর মূল্য প্রায় ১১৯৯ ডলার।কি উপলক্ষে জানি ছাড় দিয়ে এখন ৬৯৯ ডলারে দিচ্ছে যা মোটামুটি সবার ক্রয়ক্ষমতার বাইরেই আছে।কিন্তু আমি থাকতে টেনশন করার কোন কারণ নাই।এ সফটওয়্যারটি আসলে ৫ টি ছোট ছোট টুলের প্যাকেজ।আর এই ৫টি টুল হল Rank Tracker,Website Auditor,Link-Assistant,Seo Spyglass আর Buzzbundle.আমি এর আগেরবার যখন শেয়ার করেছিলাম তখন অবশ্য ৪টা ছিল।নতুন Buzzbundle টা যোগ করছে তাদের প্যাকেজের সাথে।নিচে টুলগুলোর সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দিলাম(আমি যতটুকু জানি)।যারা প্রফেশনাল Seo এর কাজ জানেন তারা হয়তো ইউজ করতে করতে এর সম্পূর্ণ সুবিধাটুকু আদায় করে নিতে পারবেন।ফ্রিলান্সারদেরও কাজে লাগবে।কারণ তাদেরও Seo ডিপার্টমেন্টের অনেক কাজ করতে হয়।

 

Rank Tracker-এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকর টুল।এটি দিয়ে আপনি আপনার pagerank এ অনেক এগিয়ে যেতে পারবেন।।এ সফটওয়্যার দিয়ে আপনি যে কোন সার্চ ইঞ্জিন এ আপনার র‍্যাঙ্কিং বের করতে পারবেন।এছাড়া এটি দিয়ে আপনি অসংখ্য Key-word খুজে বের করতে পারবেন।যে কীওয়ার্ডগুলো আপনার ওয়েবসাইট এ বসালে আপনার পেজর‍্যাঙ্কের অনেক উন্নতি হবে।

Website Auditor-এটি মূলত ওয়েবসাইট Structure ঠিক করতে ব্যবহার করা হয়।এটি মূলত ওয়েবসাইট কন্টেন্ট এ উন্নতি করতে,site-map তৈরি করতে,HTML কোড Valid করতে প্রভৃতি কাজে ব্যবহার করা হয়।রাজউক সেই বিল্ডিংগুলোকেই অনুমোদন দেয় যেগুলোর Structure ভালো আর ভালো মানের জিনিস দিয়ে তৈরি।ঠিক তেমনি আপনার ওয়েবসাইট এর Structure যত ভালো হবে গুগল তত ভালো সেটাকে গ্রহন করবে।Structure ভালো হলে গুগলের র‍্যাঙ্কিংয়ে আপনি অনেক এগিয়ে যাবেন।

Link-Assistant-এটি ওয়েবমাস্টারদের দ্বারা বহুল ব্যবহৄত এবং সবচেয়ে পছন্দের টুল।এ টুলটি দ্বারা আপনি আপনার সাইট-এর ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারবেন।আপনি যখন বড় একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে গোপনে তথ্য আদায় করবেন তখন এর ব্যাকলিঙ্ক সম্পর্কেও জানতে পারবেন।তখন সেই ব্যাকলিঙ্কগুলোকে আপনিও ব্যাবহার করুন।তাহলে আপনি র‍্যাঙ্কিং এ এগিয়ে যাবেন।এটি দিয়ে আপনি আপনার লিংক-পার্টনার দের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারবেন।যে কোন ওয়েবসাইট এর anchor-text এবং description জানতে পারবেন এ টুলটির মাধ্যমে।

Seo-Spyglass-এ টুলটি দিয়ে আপনি আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়েবসাইট এর সব গোপন বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।এটি দিয়ে আপনি আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়েবসাইট এর ব্যাকলিংক এর বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।এটি দিয়ে আপনি আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়েবসাইট এর আইপি অ্যাড্রেস,সার্চ ইঞ্জিন রাঙ্কিং,ডোমেইন পেজ rank,alexa ranking প্রভৃতি তথ্য জানতে পারবেন।বড় বড় ওয়েবসাইট অথবা ব্লগগুলোকে টার্গেট করুন।তাহলে আপনার আর এগিয়ে যেতে বেশি সময় লাগবেনা।

Buzzbundle- এটি দিয়ে সোজা কথায় আপনি সম্পূর্ণ সোশ্যাল মিডিয়া কন্ট্রোল করতে পারবেন টা যাই হোক ফেসবুক বা টুইটার।আর সোশ্যাল মিডিয়া হচ্ছে Seo এর গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ।এটি দিয়ে আপনি Facebook,Twitter,Google Plus এর মাল্টিপল একাউন্ট Access ও Control করতে পারবেন।যাদের ফেসবুক আর টুইটারে বিশাল ফ্যান ফলোয়িং আছে তাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ টুল এটি।আপনাকে কোন একাউন্টে আলাদা আলাদা পোস্ট করতে হবে না।জাস্ট টুলটিকে বলে দিন কি পোস্ট করবেন।তাহলে এটি অটোম্যাটিক আপনার সব একাউন্টে পোস্ট করে দিবে জিনিসটা।এটি দিয়ে অন্য সব পেজের সাথে মেসেজ আদান-প্রদান করে কমিউনিকেশন ডেভেলপমেন্ট করতে পারেন।আরো অনেক ফিচার আছে।আমি তো আর সবকিছু বুঝি না।নিজে ইউজ করেন।তাইলেই বুঝতে আর শিখতে পারবেন।

 

 

এখন আসুন কিভাবে অ্যাকটিভেট করবেন তার বর্ণনা দেই-

১।প্রথমে সফটওয়্যার-টি ডাউনলোড করুন এই লিঙ্ক থেকে-  SEO POWERSUITE

কীজেন ডাউনলোড করুন এই লিঙ্ক থেকে- SEO POWERSUITE KEYGEN

২।ডাউনলোড করার পর ইন্সটল করুন কিন্তু সফটওয়্যার চালু ওপেন করবেন না।নেটের কানেকশন ডিসেবল করে দিন।এখন মূল কাজ শুরু।অর্থাৎ Windows Firewell দিয়ে সফটওয়্যারটির সার্ভার এর আইপি ব্লক করতে হবে।তো কাজ শুরু করা যাক।প্রথমে Control Panel এ যান।

 

 

৩।ওপরের মত Category থেকে Large অথবা Small Icons এ ক্লিক করুন।কারণ নরমাল অবস্থায় Windows firewell দেখা যায় না।

 

 

৪।তারপরে নিচের মত Windows Firewell এ ক্লিক করুন।

 

 

৫।এরপরে নিচের ফটোর মত Advanced Settings এ ক্লিক করুন।

 

 

৬।Outbound Rules এর ওপরে সিলেক্ট করে মাউস দিয়ে রাইট ক্লিক করুন।সেখানে অপশন থেকে New Rule এর ওপরে ক্লিক করুন।এর ফলে একটা নতুন উইন্ডো ওপেন হবে।

 

 

 

৭।নতুন উইন্ডোতে Custom সিলেক্ট করে Next এ ক্লিক করুন।

 

 

৮।এরপর All Programs সিলেক্ট করে Next এ ক্লিক করুন।

 

 

৯।এরপর Protocol Type এ ডিফল্ট হিসেবে Any আছে।ওটা আর পরিবর্তন করার দরকার নাই।Next এ ক্লিক করুন।

 

 

১০।তারপরে নিচের ফটোর মত These Ip Addresses এ ক্লিক করুন।তারপরে এর দানে Add বাটনে ক্লিক করুন।এরপরে যে নতুন উইন্ডোটা ওপেন হবে ওখানে আমার দেয়া আইপি অ্যাড্রেসটা(208.115.108.42) বসিয়ে দিন।এরপরে Ok করে বের হয়ে আসুন।এরপরে Next এ ক্লিক করুন।

 

 

 

১১।এরপরে Block The Connection সিলেক্ট করে Next এ ক্লিক করুন।

 

 

১২।এরপরে যেটা আসবে সেটা থেকে ৩টাই সিলেক্ট করুন এবং Next এ ক্লিক করুন।এরপরের এর একটা নাম দিন যাতে পরে দেখলে চিনতে পারেন।আমি দিলাম SEO POWERSUITE।এখন Finish এ ক্লিক করুন।কাজ শেষ।এখন আমার দেয়া কীজেন দিয়ে টুলগুলো অ্যাকটিভেট করুন।কীজেনে নিজের নাম দিন আর Generate বাটনে ক্লিক করুন।তাহলেই সিরিয়াল কী চলে আসবে।এভাবে আলাদা আলাদা ৫টা টুলের জন্য সিরিয়াল Generate করে অ্যাকটিভেট করে নিন।যদি আপনার লাইসেন্স প্রফেশনাল ভার্শন দেখায় তাহলে আরেকটা নতুন সিরিয়াল কী Generate করুন আর বসাতে থাকেন যতক্ষণ পর্যন্ত না লাইসেন্স এন্টারপ্রাইজ ভার্শন দেখায়।

 

 

 

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

১।কীজেন যদি ওপেন না হয় তাহলে Net FrameWork 4 ইন্সটল করে নিন।

২।তারপরেও যদি ওপেন না হয় তাহলে Properties থেকে Compitability Mode এ Windows XP সিলেক্ট করুন।

৩।সফটওয়্যারটি আপডেট করতে চাইলে যে রুলটি তৈরি করেছেন ওটার ওপর রাইট ক্লিক করে Disable Rule এ ক্লিক করুন।আপডেট শেষ হয়ে গেলে আবার Enable করে দিন।আপডেট করার পরে Free ভার্শন দেখালে আগেরমত কীজেন দিয়ে অ্যাকটিভেট করে নিন।

Seo সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই লেখাগুলো পড়তে পারেন- এসইও

আজ আর না।এখানেই টিউন শেষ করছি।সবাইকে ধন্যবাদ।আল্লাহ্‌ হাফেজ।

1 টি মন্তব্য
  1. ব্লগার ভাই বলেছেন

    সংগ্রহে রাখলাম।

উত্তর দিন