অ্যাপল ভাঁজ করা স্মার্টফোনের পেটেন্ট করিয়েছে

0 55

আগামী কয়েক বছরে স্মার্টফোনের বাজারে কি পরিবর্তন আসবে? স্মার্টফোনপ্রেমীরা নিশ্চয়ই কল্পনা করতে পারছেন! যে স্মার্টফোন ভাঁজ করা যায় , তার ঝলক তো দেখা শুরু হয়েই গেছে।

বাজার বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, আগামী বছর থেকেই বাজারে ভাঁজ করা স্মার্টফোনের দেখা মিলতে পারে। স্মার্টফোন নির্মাতারা ঝুঁকছেন নতুন এ ধারার দিকে। মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা অ্যাপল কি পিছিয়ে থাকবে? অ্যাপল এমন একটি ভাঁজ করার সুবিধাযুক্ত আইফোনের জন্য পেটেন্ট অনুমোদন পেয়েছে, যা বইয়ের মতো ভাঁজ করা ও খোলা যাবে।

সম্প্রতি ভাঁজ করা স্মার্টফোন তৈরিতে অ্যাপল ও এলজি যৌথভাবে কাজ করছে—এমন খবর প্রকাশিত হয়। এরপর জানা গেল অ্যাপলের ভাঁজ করা স্মার্টফোনের জন্য পেটেন্ট পাওয়ার কথা।

২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের পেটেন্ট অ্যান্ড ট্রেডমার্ক অফিসে অ্যাপল ভাঁজ করা স্মার্টফোনের জন্য পেটেন্ট আবেদন করেছিল। চলতি মাসেই ওই আবেদন মঞ্জুর হয়েছে।

অ্যাপলের ওই পেটেন্ট আবেদনে বলা হয়, একটি ইলেকট্রিক ডিভাইসে এমন একটি নমনীয় অংশ থাকতে পারে, যাতে ওই ডিভাইস ভাঁজ করা যাবে। এতে নমনীয় ডিসপ্লে থাকতে পারে। ওই নমনীয় ডিসপ্লেতে একটি ভাঁজ করার সুবিধাযুক্ত অংশ থাকবে।

আগের প্রযুক্তিবিষয়ক বিভিন্ন ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যাপল ভাঁজ করার সুবিধাযুক্ত ওএলইডি ডিসপ্লের জন্য এলজির সঙ্গে কাজ করবে। সাধারণত আইফোনের ওএলইডি ডিসপ্লে প্রতিদ্বন্দ্বী স্যামসাংয়ের সঙ্গে কেনে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ। তবে ভাঁজ করা স্মার্টফোনের তথ্য ফাঁস হওয়া ঠেকাতে এলজির সঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি।

আগামী বছরেই ভাঁজ করা স্মার্টফোন বাজারে আনার পরিকল্পনা করছে স্যামসাং। এটি হতে পারে স্যামসাংয়ের নতুন চমক। তাদের স্মার্টফোনটির নাম হতে পারে গ্যালাক্সি এক্স।

বাজার বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, অ্যাপল কর্তৃপক্ষ ২০২০ সাল নাগাদ ভাঁজ করা স্মার্টফোন তৈরি শুরু করতে পারে। এর আগে এলজি তাদের নিজস্ব ভাঁজ করা ওএলইডি প্যানেল প্রটোটাইপ তৈরি ও তা টেকসই করতে কাজ করবে।

নতুন আইফোনের কনসেপ্টঅবশ্য শুধু অ্যাপল বা স্যামসাং নয়, ভাঁজ করা স্মার্টফোন তৈরিতে আগ্রহ দেখাচ্ছে চীনের হুয়াওয়ে । সম্প্রতি প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেটকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের সিইও রিচার্ড ইয়ু ভাঁজ করা স্মার্টফোন তৈরির কথা জানিয়েছেন। ইয়ু বলেছেন, হুয়াওয়ে ভাঁজ করা স্মার্টফোনের নমুনা তৈরিতে কাজ শুরু করেছে। আগামী বছর নাগাদ এ ফোন বাজারে দেখা যেতে পারে।

মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকেও ভাঁজ করা স্মার্টফোনে তৈরির আভাস দেওয়া হচ্ছে। উইন্ডোজ ফোনের দুর্দশা থাকলেও প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা বলছেন, এ কোন স্মার্টফোন!  মাইক্রোসফট নতুন ধরনের ফোনের জন্য পেটেন্ট করাচ্ছে। সেই পেটেন্টের তথ্য অনুযায়ী, ভাঁজ করা যায় এবং তিনটি মোডে চালানো যায়, এমন স্মার্টফোন তৈরির পরিকল্পনা করছে মাইক্রোসফট। নতুন ফোনটিতে ভাঁজ করা যায়, এমন স্ক্রিন যেমন থাকবে, তেমনি এটি ৩৬০ ডিগ্রি মোডে ঘোরানো যাবে।

Leave A Reply