Home আই টি সংবাদ ফরচুনের চোখে ৮ ক্যাটাগরিতে সেরা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান

ফরচুনের চোখে ৮ ক্যাটাগরিতে সেরা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান

4544
0
SHARE

সময়ের সঙ্গে তাল মেলাতে প্রতিনিয়ত পরিবর্তন ঘটছে প্রায় সব ক্ষেত্রেই। বিশ্বের সবকিছুতেই ক্রমপরিবর্তনশীলতার পেছনে মূল নিয়ামক হিসেবে কাজ করছে আধুনিক নানা প্রযুক্তি।

সম্প্রতি বিশ্বের নামি-দামি সব প্রযুক্তিবিষয়ক ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে এগিয়ে থাকা সেরা প্রতিষ্ঠানের তালিকা করেছে নিউইয়র্কভিত্তিক খ্যাতনামা ফরচুন ম্যাগাজিন।

ফরচুনের ওই তালিকায় প্রযুক্তিবিষয়ক পৃথক ক্যাটাগরি করে সেরা প্রতিষ্ঠানগুলো নির্বাচিত করা হয়েছে। জেনে নেয়া যাক ফরচুনের চোখে প্রযুক্তির সেরা ৮ ক্যাটাগরিতে থাকা বিশ্বসেরা প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন তথ্য :

১. ক্যাবল অ্যান্ড স্যাটেলাইট প্রোভাইডার

এই ক্যাটাগরিতে সবার আগে রয়েছে কমকাস্ট, পরের জায়গাটিতে লিবার্টি গ্লোবাল এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে ডিশ নেটওয়ার্ক। বিশ্বের অন্যতম এ তিন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ফরচুনের রেটিংয়ে ফিলাডেলফিয়ার প্রতিষ্ঠান কমকাস্টের পয়েন্ট ৭ দশমিক ৯৫।

২. কম্পিউটার সফটওয়্যার

এই ক্যাটাগরিতে সবার শীর্ষে বিল গেটসের মাইক্রোসফট, পরের জায়গাটার দখল অ্যাডোবি সিস্টেমের, তৃতীয় স্থানে সেলসফোর্স ডটকম এবং চতুর্থ, পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তম স্থান দখলে রেখেছে যথাক্রমে ইনটুইট, এসএপি, ইলেকট্রুনিক আর্টস এবং অটোডেস্ক। এসবের মধ্যে ফরচুনের রেটিংয়ে মাইক্রোসফটের পয়েন্ট ৭ দশমিক ৭৪। যুক্তরাষ্ট্রের রেডমন্ড শহরে অবস্থিত এ প্রতিষ্ঠানটি ইন্ডাস্ট্রি র্যাং কিংয়েও এক ধাপ এগিয়ে এসেছে।

৩. ইনফর্মেশন টেকনোলজি সার্ভিস

এই ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থানের দখল নিয়েছে অ্যাক্সেনটুর, পরের স্থানে আইবিএম, এরপরের স্থানে বুজ অ্যালেন হামিলটন হোল্ডিং। এ ছাড়া চতুর্থ, পঞ্চম, ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে গার্টনার, কগনিজ্যান্ট টেকনোলজি সল্যুশন, ফুজিৎসু, সায়েন্স অ্যাপ্লিকেশন ইন্টারন্যাশনাল এবং ম্যাক্সিমাস। এসবের মধ্যে ফরচুনের রেটিংয়ে ডাবলিনভিত্তিক অ্যাক্সেনটুরের পয়েন্ট ৭ দশমিক ৩৭।

৪. ইন্টারনেট সার্ভিস ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান

ইন্টারনেট সার্ভিস অ্যান্ড এ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকায় অ্যালফাবেটকে প্রথমে জায়গা দিয়েছে ফরচুন। এরপর ফরচুনের তালিকায় ঠাঁই পেয়েছে যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয় সাইট ফেসবুক। তালিকায় তৃতীয় অ্যামাজন ডটকম, চতুর্থ প্রিন্সিলাইন গ্রুপ, পঞ্চম এক্সপিডিয় এবং ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ই-বে। এদের মধ্যে অ্যালফাবেট ৭ দশমিক ৮৯ পয়েন্টে এগিয়ে রয়েছে।

৫. নেটওয়ার্ক ও অন্যান্য যোগাযোগ সরঞ্জাম

এ ক্যাটাগরিতে শীর্ষে কোয়ালকম। এরপর রয়েছে সিসকো সিস্টেমস। তালিকার পরের প্রতিষ্ঠানগুলো যথাক্রমে কর্নিং, জুনিপার নেটওয়ার্কস, সিয়েনা, এলএম এরিকসন, নকিয়া এবং বারকোড কমিউনিকেশনস সিস্টেমস। এদের মধ্যে সান ডিয়াগোভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কোয়ালকম ৭ দশমিক ৮৩ পয়েন্টে এগিয়ে রয়েছে।

৬. টেলিকমিউনিকেশন

টেলিযোগাযোগ ক্যাটাগরিতে এগিয়ে রয়েছে এটি অ্যান্ড টি। ৭ দশমিক ২৪ পয়েন্ট পেয়ে সবার আগে ডালাসভিত্তিক এ প্রতিষ্ঠানটি। এরপরের অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে ভেরাইজন, টেলিফোনিকা, ভোডাফোন গ্রুপ, চায়না টেলিকমিউনিকেশনস, কেডিডিআই এবং এনটিটি।

৭. ইলেকট্রুনিক্স

এ ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থানে রয়েছে হানিওয়েল ইন্টারন্যাশনাল, দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে স্যামসাং ইলেকট্রুনিক্স ও প্যানাসনিক রয়েছে তৃতীয় স্থানে। এ ছাড়া চতুর্থ, পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তম স্থানে যথাক্রমে রয়েছে সনি, হিটাচি, এমারসন ইলেকট্র্রিক ও রয়েল ফিলিপস।

৮. কনজ্যুমার ক্রেডিট কার্ড ও সংশ্লিষ্ট সেবা

কনজ্যুমার ক্রেডিট কার্ড এবং এ সংশ্লিষ্ট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে এগিয়ে রয়েছে ভিসা কার্ড। এরপরের স্থান দখলে নিয়েছে মাস্টার কার্ড। ফরচুনের তালিকায় এরপর তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে পেপাল হোল্ডিংস, আমেরিকান এক্সপ্রেস ও ক্যাপিটাল ওয়ান ফিন্যান্সিয়াল। টেকশহর।

সূত্রঃ অনলাইন