সহজে পুরো ডিভিডি/দরকারী অংশ ব্যাক আপ করুন! :D :)

3

বন্ধুরা একটু নড়ে-চরে বসুন।
শুরু করা যাক-

১.  প্রথমে  এখান থেকে প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার ডিভিডি শ্রিঙ্ক ডাউনলোড করে নিন। 

ইন্সটল করুন।

এই সফটওয়্যারটির সুবিধা হচ্ছে এটি ব্যবহার করে আপনি পুরো ডিভিডি ব্যাক আপ না করে নির্দিষ্ট কিছু অংশও ব্যাক আপ করতে পারবেন, পাশাপাশি আপনি এটি দিয়ে ডিভিডিকে কম্প্রেস করেও ব্যাক আপ করতে পারবেন। অডিও রিমুভ করা, সাব পিকচার রিমুভ করা সহ নানাবিধ কাজ করতে পারবেন… আর ভালো কথা যে এটি ফ্রিওয়্যার, তাই ক্র্যাক বা কিজেন এর প্রয়োজন নেই। 

এখানে অন্য সফটওয়্যারও ব্যবহার করা যেত, তবে জানা মতে এটিই সবচেয়ে দ্রুতগতির এবং ব্যবহারবিধি সহজ ও বন্ধুসুলভ!
ইন্সটল করাটা খুব সোজা, তবুও এখনো এমেজিং আড্ডার বন্ধুদের মধ্যে যারা নিজেকে পুরোপুরিভাবে এ বিষয়ে নিজেকে পোক্ত করতে পারেন নি, তাদের জন্য Screenshots দিয়ে বিস্তারিত আকারে, নিচে ধাপ গুলো দেখানো হল… আশা করি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন…

 

২. ধন্যবাদ! আপনি সফলভাবে ইন্সটল করতে পেরেছেন। এবার আপনি যে ডিভিডিকে ব্যাক আপ করতে ইচ্ছুক সেটা ডিভিডি ড্রাইভে প্রবেশ করান এবং একে ডিভিডি শ্রিঙ্ক দিয়ে ওপেন করুন, এতে সফটওয়্যারটি ডিভিডিটির উপর অ্যানালাইস করবে যে সে ওই ডিভিডি ব্যাক আপ করতে পারবে কিনা, যদি পারে তবে সে আপনাকে দেখাবে যে ব্যাক আপ করতে মোট কতটুকু জায়গা লাগবে…

৩.আপনি যদি নির্দিষ্ট কিছু অংশ ব্যাক আপ করতে চান তবে “Re-Author” বাটনে ক্লিক করুন। এবার আপনি আপনার প্রয়োজন মত অংশ টুকু সিলেক্ট করে দিন। এখানে আমি একটি মাত্র ফাইলের ডিভিডি ব্যাক আপ করছি তাই মাত্র একটি ফাইলই দেখাচ্ছে। এক্ষেত্রে একাধিক ফাইল যেমন অনেক মুভিসহ ডিভিডি ব্যাক আপ করতে গেলে আপনি আপনার পছন্ড মত মুভিগুলো ব্যাক আপ করতে পারবেন।

৪.সিলেকশন করা হয়ে গেলে কম্প্রেশন ট্যাবে ক্লিক করুন। সেখানে ভিডিও কম্প্রেশন মুড অটোমেটিক দিয়ে দিন [আপনি চাইলে এটি চেঞ্জ ও করতে পারেন তবে অটোমেটিক দেয়াই ভালো]। আপনি যদি অডিও ছাড়া ব্যাক আপ করতে চান তাহলে অডিও এর নিচের টিক তুলে দিন।

৫.সব কিছু ঠিক ঠাক থাকলে আপনি ব্যাক আপ করার জন্য প্রস্তুত। এবার Backup বাটনে ক্লিক করুন, এতে নতুন উইন্ডো ওপেন হবে। এবার Browse… বাটনে ক্লিক করে আপনি কোথায় ডিভিডি ব্যাক আপ করতে চাচ্ছেন তা দেখিয়ে দিন। এরপর ওকে বাটনে ক্লিক করুন।

৬.আপনার ডিভিডি ব্যাক আপ শুরু হয়ে যাবে। এখানে ব্যাক আপ হতে কত সময় লাগবে, কত স্পিডে ব্যাক আপ হচ্ছে, সাইজ কত হচ্ছে ইত্যাদি ইনফরমেশন দেখাবে এবং ব্যাক আপ হতে থাকবে।

৭.ব্যাক আপ সম্পন্ন হলে আপনাকে একটি একটি বার্তা প্রদর্শন করে জানিয়ে দিবে যে ব্যাক আপ সফলভাবে শেষ
হয়েছে…
 

সতর্কতা
*আপনি যদি কোনরকম মডিফাই করা ছাড়াই পুরো ডিভিডি ব্যাক আপ করতে চান তবে তবে ২, ৩, ৪ এই ধাপ গুলো এড়িয়ে যাবেন। 

**অনেক ক্ষেত্রে আপনি নিচের মত ইরর পেতে পারেন, এতে মনে করবেন যে এটি কপি প্রটেকটেড করা তাই কপি করা যাবে না, সেক্ষত্রে আপনি অন্য সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন, তবে এ জাতীয় ইরর খুবই রেয়ার!

ফেসবুক থেকে মন্তব্যঃ

3 Comments
  1. ধন্যবাদ আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

  2. নাইস। খুব ভাল পোস্ট। ধন্যবাদ আপনাকে।

  3. সিহাব সুমন says

    Nice post thank u.

Leave A Reply