নানা ফিচারের সাশ্রয়ী স্মার্টফোন ওয়ালটন Walton Primo RH

0

সম্প্রতি দেশীয় স্মার্টফোন বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের প্রিমো আর সিরিজে যুক্ত হয়েছে নতুন একটি স্মার্টফোন Walton Primo RH, অক্টাকোর প্রসেসরের এই ফোনে রয়েছে আপগ্রেডেড অপারেটিং সিস্টেম, অমনিভিসন সেন্সরসমৃদ্ধ ক্যামেরা, ওটিজি সাপোর্ট প্রভৃতি ফিচার। আর সাম্প্রতিককালে বাজারে আসা ওয়ালটনের অন্যান্য ফোনের ন্যায় এই ফোনেও রয়েছে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা, ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে। ১২,৪৯০ টাকা মূল্যের Primo RH বর্তমান বাজারের সবথেকে কমমূল্যের অক্টাকোর স্মার্টফোন।

primo rh hands-on

ডুয়েল সিম সুবিধার Primo RH ফোনটির আরেকটি উল্লেখযোগ্য দিক হলো এর উভয় সিমেই থ্রিজি সুবিধা উপভোগ করা যায়। এই ফোনের আরেকটি বিশেষ দিক হলো এতে স্পেশাল নিরাপত্তা ফিচার যুক্ত করা হয়েছে, যার সাহায্যে ব্যবহারকারী তার ফোন হারিয়ে গেলে দূর থেকেই ফোন লক, ডাটা মুছে ফেলা প্রভৃতি কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

বাজারে আসা নিত্যনতুন সব স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ পাঠকদের সামনে তুলে ধরতে প্রিয়টেক বরাবরই সচেষ্ট। এরই ধারাবাহিকতায় ওয়ালটনের নতুন স্মার্টফোন Primo RH এর ডিজাইন, ব্যাটারী ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, বেঞ্চমার্ক স্কোর, ক্যামেরা পারফরম্যান্স প্রভৃতি বিশ্লেষণধর্মী তথ্য পাঠকদের জানাতেই আজ থাকছে Walton Primo RH এর Exclusive Hands-on Review

f1

প্রিয় পাঠক, চলুন তাহলে একনজরে Primo RH এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ দেখে নেওয়া যাক –

  • অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে
  • ১.৭ গিগাহার্টজ গতির অক্টাকোর প্রসেসর
  • ১ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • মালি ৪৫০ জিপিউ
  • ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৮ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী
  • ডুয়েল সিম
  • ওটিজি সাপোর্ট
  • ২,২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন পলিমার ব্যাটারী

f2

এবারে তাহলে বিস্তারিত রিভিউয়ের দিকে যাওয়া যাক-

আনবক্সিং:
Primo RH স্মার্টফোনটির বক্সে যা যা রয়েছে –

  • হ্যান্ডসেট
  • ব্যাটারী
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ওটিজি ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
  • স্ক্রীন পেপার

primo rh unboxing

অপারেটিং সিস্টেমঃ
Primo RH ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহার করা হয়েছে।

primo rh os

primo rh os
বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইনঃ
প্রিমো আর এইচ স্মার্টফোনটি আকর্ষণীয় ও নজরকাড়া ডিজাইনের। এর উপরের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট ও ইউএসবি ২.০ পোর্ট । ফোনটির একপার্শ্বের অংশে রয়েছে ভলিউম কী আর অপর পার্শ্বে পাওয়ার কী। ১৪৭.৫ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৭২.৬ মিলিমিটার আর এর পুরুত্ব ৯.৩ মিলিমিটার। এই ফোনের ওজন ১৫৬ গ্রাম (ব্যাটারীসহ) ।

primo rh hands-on

প্রিমো আর এইচ স্মার্টফোনটির পেছনের দিকে উপরের অংশে আছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও ফ্ল্যাশলাইট আর নিচের দিকে রয়েছে স্পীকার। এছাড়া সম্মুখভাগে ফ্রন্ট ক্যামেরা, সেন্সর, স্পীকার প্রভৃতি তো রয়েছেই। এর পাশাপাশি এই ফোনে হোম/মেনু, অপশন ও ব্যাক – এই তিনটি বাটন রয়েছে ।

primo rh front

primo rh back

ডিসপ্লেঃ
এই ফোনে ৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে, আর এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ১২৮০x৭২০ পিক্সেলের।

primo rh display
ইউজার ইন্টারফেসঃ
ওয়ালটনের Primo RH ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহৃত হয়েছে।
নোটিফিকেশন বারঃ
Primo rh Notification Bar
হোমস্ক্রীনঃ
Primo rh Homescreen
অ্যাপ ড্রয়ারঃ
Primo rh App Drawer
এছাড়া এই ফোনে রয়েছে বিভিন্ন ধরণের থিম ব্যবহারের সুবিধাঃ
Primo rh Themes

সিপিউঃ
সিপিউ হিসেবে এই ফোনে রয়েছে ১.৭ গিগাহার্টজ গতির অক্টাকোর প্রসেসর, ফলে এই ফোনে মাল্টিটাস্কিং, এইচডি গেমিং প্রভৃতি বেশ স্মুথলি করা যায়।

primo rh cpu

চিপসেটঃ
স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোনসমূহে সাধারণত মিডিয়াটেক চিপসেট ব্যবহার করা হয়ে থাকে, ব্যতিক্রম ঘটেনি Walton Primo RH এর ক্ষেত্রেও। এই ফোনে মিডিয়াটেকের MT6592 চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে ।

জিপিউঃ
অক্টাকোর প্রসেসরের এই ফোনে মালি-৪৫০ জিপিউ ব্যবহার করেছে। ফলশ্রুতিতে এর গ্রাফিক্স কোয়ালিটি কিংবা গেমিং পারফরম্যান্স বেশ চমৎকার।

primo rh chipset gpu

মেমোরীঃ
Primo RH স্মার্টফোনটিতে ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে ৫ গিগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। এছাড়া এতে OTG সুবিধা থাকায় এতে পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডডিস্কসহ বিভিন্ন ধরণের ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

primo rh hands-on memory

র‍্যামঃ
এই ফোনে রয়েছে ১ গিগাবাইটের র‍্যাম, যার মধ্যে প্রায় ৯৫২ মেগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। এতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক অ্যাপস ইন্সটল করলেও র‍্যামের প্রায় অর্ধেক ফাঁকাই থাকে। এতে Facebook, AnTuTu, Viber সহ প্রয়োজনীয় নানা অ্যাপ্লিকেশন রানিং থাকার পরেও ৩০৮ মেগাবাইট র‍্যাম ফাঁকা ছিলো।

primo rh review ram

ক্যামেরাঃ
Primo RH স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, যদিও ওয়ালটন তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে যে, এই ফোনের রিয়ার ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেলের। কিন্তু নিচের ২টি স্ক্রীনশট লক্ষ্য করলেই আশা করি ক্যামেরার বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে-

দেখুন ক্যামেরা সেটিংস এর স্ক্রীনশট –

primo rh camera review

AnTuTu বেঞ্চমার্ক হতে প্রাপ্ত তথ্য –

primo rh camera review

উন্নতমানের ছবি তোলা নিশ্চিত করতে এর ক্যামেরায় OMNI VISION সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া ক্যামেরায় অটোফোকাস, এলইডি ফ্ল্যাশ প্রভৃতি সুবিধাতো থাকছেই।
দেখুন দিনের আলোতে এই ফোনের ক্যামেরায় তোলা ছবিঃ

primo rh camera sample

primo rh camera sample

primo rh camera sample 3

এসবের পাশাপাশি সেলফি তোলা কিংবা ভিডিও কলিংয়ের জন্য আছে ২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা।

primo rh camera sample

মাল্টিমিডিয়াঃ
Primo RH এ রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাক। এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মন্দ নয়, এর অডিও সাউন্ড কোয়ালিটিও বেশ সুন্দর। এই ফোনে আরো আছে এফএম রেডিও, সে সাথে থাকছে এফএম রেডিও রেকর্ডার। ফলে আপনি আপনার পছন্দের কোন রেডিও প্রোগ্রাম অনায়াসেই রেকর্ড করতে পারবেন।

primo rh review multimedia

আর এই ফোনের ডিসপ্লে কোয়ালিটি বেশ উন্নত হওয়ায় এতে দারুণভাবে ভিডিও উপভোগ করা যায়। এছাড়া এই ফোনে অক্টাকোর প্রসেসর ব্যবহৃত হওয়ায় ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলে।

primo rh video review

গেমিং পারফরম্যান্সঃ
তরুণ প্রজন্মের স্মার্টফোন কেনার পেছনে গেমিংয়ের উদ্দেশ্যটাই মূখ্য ভূমিকা পালন করে। সেদিক থেকে অক্টাকোর প্রসেসর ও মালি-৪৫০ জিপিউসমৃদ্ধ Primo RH এর গেমিং পারফরম্যান্স মন্দ নয়। অক্টাকোর প্রসেসর ও ১ গিগাবাইট র‍্যামবিশিষ্ট এই ফোনে বিভিন্ন ধরণের এইচডি গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়। এই ফোনে মডার্ন কমব্যাট ৪, মাইন ক্র্যাফট, কিংডম রাশ, ক্ল্যাশ অব ক্ল্যান্স, অ্যাসফাল্ট ৮, রিয়াল ক্রিকেট, টেম্পল রান ২ প্রভৃতি জনপ্রিয় গেম কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।
primo rh hands-on gaming performance

fig 1
কানেক্টিভিটিঃ
এই ফোনে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। এছাড়া জিপিএস নেভিগেশন সুবিধাতো রয়েছেই।

সিমঃ
ওয়ালটনের অধিকাংশ স্মার্টফোনের ন্যায় এই ফোনেও ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা বিদ্যমান। আর এর উভয় সিমেই থ্রিজি সুবিধা উপভোগ করা যায়।
primo rh sim

রং:
সাদা, কালো ও ধূসর – এই ৩টি রংয়ে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে Primo RH

primo rh color

ব্যাটারীঃ
৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে সংবলিত Primo RH এ ২,২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে। এর ব্যাটারী ব্যাকআপ সন্তোষজনক। একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৪- ৫ ঘন্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা ৫-৬ ঘন্টা এইচডি ভিডিও উপভোগ করা যায়।
primo rh battery

ওটিজিঃ
ওয়ালটনের নতুন এই ফোনে রয়েছে OTG (USB On The Go) সুবিধা। ফলে ব্যবহারকারী এতে মাউস, কীবোর্ড, পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডডিস্কসহ বিভিন্ন ধরণের ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

বেঞ্চমার্কঃ
কোন ডিভাইসের সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য সাধারণত বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাই করা হয়ে থাকে। Primo RH এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নেওয়া হয়েছিলো। AnTuTu তে এর স্কোর এসেছে ৩১৮৬৯, স্বল্পমূল্যের ফোনে যা অভাবনীয় !

primo rh antutu benchmark

AnTuTu স্কোরের দিক থেকে Asus Zenfone 5, Xiaomi Redmi Note, HTC One প্রভৃতি ফোনের থেকে এগিয়ে Primo RH, আর LG G3 এর পরে Primo RH এর অবস্থান।

primo rh antutu benchmark

দেখুন Primo RH ও Asus Zenfone 5 এর তূলনামূলক AnTuTu স্কোরঃ

primo rh vs Asus Zenfone 5

Primo RH ও Xiaomi Redmi Note এর তূলনামূলক AnTuTu স্কোরঃ

primo rh vs Xiaomi Redmi Note

Primo RH ও HTC One এর তূলনামূলক AnTuTu স্কোরঃ

primo rh vs HTC One

বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের আরেক অ্যাপ NenaMark এ Primo RH এর স্কোর এসেছে ৬৪.৬

primo rh hands-on nenamark score

স্পেশাল ফিচারঃ
এই ফোনে স্পেশাল ফিচার হিসেবে রয়েছে এয়ার শাফল, ইন্টেগ্রেটেড মোবাইল সিকিউরিটি প্রভৃতি। Primo RH এর একটি বিশেষ দিক হলো এতে প্রথমবারের মতো Anti Theft এর মতো নিরাপত্তা ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। এই ফিচারের সাহায্যে ব্যবহারকারী তার ফোন হারিয়ে গেলে দূর থেকেই ফোন লক, ডাটা মুছে ফেলা প্রভৃতি কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন। উল্লেখ্য, এর আগে এই ফিচার ব্যবহার করতে বিভিন্ন ধরণের অ্যাপের সাহায্য নিতে হতো।
primo rh air-shuffle

OTA আপডেট সুবিধাঃ
এই ফোনে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা রয়েছে, যার ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে।

primo s3 mini hands-on wireless update

মূল্যঃ
ক্রেতাদের সাধ্যের কথা বিবেচনা করে আকর্ষণীয় ডিজাইন ও চমৎকার সব ফিচারসংবলিত Primo RH স্মার্টফোনটির মূল্য মাত্র ১২,৪৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।এতো কমমূল্যে এই মুহূর্তে বর্তমানে বাজারে আর কোন অক্টাকোর প্রসেসরের ফোন নেই।

Primo RH এর ভালো লাগার দিকসমূহঃ

  • স্বল্পমূল্য
  • অক্টাকোর প্রসেসর
  • OTA আপডেট
  • অক্টাকোর প্রসেসর

Primo RH এর কিছু সীমাবদ্ধতাঃ
স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোন Primo RH এ মিডিয়াটেক চিপসেটের ব্যবহার ব্যতীত অন্য কোন উল্লেখযোগ্য সীমাবদ্ধতা চোখে পড়েনি। তবে এই ফোনে ২ গিগাবাইট র‍্যাম ব্যবহার করে এর মূল্য কিছুটা বাড়ালেও তা হয়তো ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণে অধিক সক্ষম হতো।

primo rh

চূড়ান্ত সিদ্ধান্তঃ
যারা স্বল্পমূল্যে প্রয়োজনীয় নানা ফিচার ও দ্রুতগতির প্রসেসরসমৃদ্ধ স্মার্টফোন কিনতে চান, অক্টাকোর প্রসেসর, দারুণ সব ফিচার, প্রয়োজনীয় নানা কনফিগারেশনের সমাহার প্রভৃতি নানাদিক মিলিয়ে Primo RH হতে পারে তাদের আদর্শ পছন্দ। অন্যকথায় বলতে গেলে বলা যায় – স্পেসিফিকেশন, মূল্য, পারফরম্যান্স প্রভৃতি দিক বিবেচনায় বর্তমানে এই প্রাইস রেঞ্জের সেরা ফোন Primo RH

দেশীয় ক্রেতাদের হাতে সুলভ মূল্যে অপেক্ষাকৃত মানসম্পন্ন স্মার্টফোন তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে যেসব প্রতিষ্ঠান কাজ করে যাচ্ছে ওয়ালটন তাদের মধ্যে অগ্রগণ্য। ভবিষ্যতে এমন উন্নত কনফিগারেশনের স্মার্টফোন সুলভমূল্যে বাজারে আনবে ওয়ালটন – এমনটাই প্রত্যাশা।

Primo RH সম্পর্কে আপনাদের মূল্যবান প্রশ্ন কিংবা মন্তব্য লিখুন কমেন্টে। নতুন কোন স্মার্টফোনের হ্যান্ডস-অন রিভিউ নিয়ে আবারও দেখা হবে আপনাদের সাথে।

রিভিউ লিখেছেনঃ এম এন নাহিদ

ফেসবুক থেকে মন্তব্যঃ

Leave A Reply