হ্যান্ডস অন রিভিউঃনতুন ওয়ালটন (Primo F8) প্রিমো এফ ৮

0

আপনার বাজেট কি খুবি সর্ট? খুবি কম দামে স্মার্টফোন খুঁজছেন? তবে আজকে যে স্মার্টফোনটির রিভিউ তুলে ধরা হবে সেই স্মার্টফোনটি কেবল আপনারই জন্য। ওয়ালটন এর নতুন  প্রিমো এফ ৮(Primo F8) স্মার্টফোনটি আপনি পাচ্ছেন মাত্র ৫০৯৯ টাকায়। চলুন বিস্তারিত জেনে আসি এই স্মার্টফোনটিতে আপনি কি কি পাবেন।

এক নজরে প্রিমো এফ ৮(Primo F8)

  • ৫” ডিসপ্লে
  • অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নগাট
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রোসেসর
  • রিয়ার ৫ মেগাপিক্সেল অটোফোকাস (সাথে এলইডি ফ্ল্যাস)
  • ফ্রন্ট ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা
  • ২০০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি

ওয়ালটন প্রিমো এফ৮ ডিভাইসটির বক্স আনবক্স করলে আমরা যা যা পাবঃ

  • প্রিমো এফ ৮ (Primo F8) ডিভাইসটি
  • ওয়ারেন্টী কার্ড ও ইউজার ম্যানুয়াল
  • একটি চার্জার এডাপ্টার ও ইউএসবি ক্যাবল
  • একটি মিডিয়াম কোয়ালিটি হেডফোন

হার্ডওয়্যার

স্পেসিফিকেশন এর কথা বলতে গেলে এই বাজেট এর ডিভাইস থেকে বেশি কিছু আশা করা বোকামী ছাড়া আর কিছু নয়। এই দামের অন্যসব ওয়ালটন স্মার্টফোনের মতই এতে রয়েছে মিডিয়াটেকের MT6580 চিপসেট। যেটি চার কোর বিশিষ্ঠ একটি কোয়াড কোর সিপিইউ। গ্রাফিক্স প্রোসেসিং ইউনিট হিসেবে রয়েছে Mali 400 জিপিইউ।

সম্পূর্ণ সিস্টেমকে ব্যাকআপ দিবে একটি একটি DDR3 ১ জিবি র‍্যাম । স্বাভাবিক অবস্থায় হাল্কা কিছু অ্যাপস থাকা অবস্থায় ৯৬৪ এমবি র‍্যাম এর ভেতর ৩৪৮ এমবি এর মত ফাকা থাকবে। ডিভাইসটির ৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরীর ভেতর ৩.৭৩ জিবি ব্যবহারযোগ্য। তাছাড়াও ৩২ জিবির ওপরে মেমোরী কার্ড সাপোর্ট করবে ডিভাইসটি।গীকবেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোরে এর স্কোর এসেছে ৪২০। আর মাল্টি কোরে এর স্কোর এসেছে ১১৮৮। এর এন্টুটু স্কোর ২১৬৫৪।

ইউজার ইন্টারফেস

ডিভাইসটিতে অ্যান্ড্রয়েড এর নগাট ভার্সন ব্যবহার করা হয়েছে। আর বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এখানে ইউজার ইন্টারফেসে ব্যবহারকারী পুরোপুরি স্টক এর স্বাদ পাবেন। তবে আইকনগুলো অনেকটা কাস্টমাইজড। ভিতরে কিছু ফাংশন স্টক থেকে বিপরীত এবং কাস্টমাইজড।

 

 

ডিসপ্লে এবং বডি

৭.০ নগাট হওয়ার ফলে এই ডিসপ্লেতে মাল্টি টাস্কিং করে অনেক মজা পাওয়া যাবে। ডিসপ্লেটির রেজুলেশন ৮৫৪*৪৮০পিক্সেল এবং এটি ১৬M কালার সাপোর্টেড।  ডিভাইসটির ক্যাপাসিটিভ টাচ প্যানেল ২ ফিংগার টাচ সাপোর্টেড। এটি একটি FWVGA ডিসপ্লে ।

ডিভাইসটির উচ্চতা ১৪৬.৩ মিলিমিটার এবং প্রস্থ ৭৩.৭ মিলিমিটার। ডিভাইসটির পুরুত্ব ৯.৭ মিলিমিটার। ব্যাটারিসহ এই ডিভাইসের ওজন মাত্র ১৭০ গ্রাম। ডিভাইসটি বাজারে ২ টি কালার; ধুসর এবং সোনালী’তে পাওয়া যাবে। ডিভাইসটির আপার প্যানেলে একটি হেডফোন জ্যাক ও ইউএসবি পোর্ট রয়েছে। বটম প্যানেলে রয়েছে মাইক্রোফোন। আর ডান সাইডে রয়েছে ভলিউম কন্ট্রোলার ও পাওয়ার অন-অফ বাটন।

এখানে কেবল ২০০০ এমএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। তবে  অন্তত ২৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি দিলে ভালো হত।

ক্যামেরা

ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেলে রয়েছে একটি ৫ মেগাপিক্সেল BSI সেন্সর যুক্ত অটোফোকাস ক্যামেরা।  আর এই ক্যামেরাটিতে Face Detection, Digital Zoom, Self-timer, Touch Shot এর মতন ফিচারস রয়েছে। ক্যামেরা সেটিংস হিসেবে রয়েছে:Exposure Control, White Balance Presets, ISO Balance, Saturation, Sharpness। শুটিং মোড হিসেবে রয়েছে: Normal Mode, Face Beauty, HDR, Panorama, Professional Mode, Scene Frame Mode, Sports Mode, Night Mode

সামনে ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল BSI সেন্সরযুক্ত ক্যামেরা। এই ক্যামেরাতে যে যে ফিচার রয়েছে সেগুলি হল:  Face Detection, Digital Zoom, Self-timer, Touch Shot। শুটিং মোড হিসেবে রয়েছে: Normal Mode, Face Beauty, HDR, Scene Mode।


যারা ৫০০০ টাকার ভেতর একটা ভালো মানের স্মার্টফোন খুঁজছেন , তাদের জন্য এই স্মার্টফোনটি। এতা নিশ্চিত যে এই দামে আপনি ভালো নামিদামি কোন ব্রান্ডেড কোম্পানির এরকম স্পেসিফিকেশন পাবেন । সুতরাং ৫ হাজার টাকার ভেতর আপনার ১ জিবি র‍্যাম এর স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে এই স্মার্টফোনটি আপনার প্রথম পছন্দ হতে পারে।

ফেসবুক থেকে মন্তব্যঃ

Leave A Reply