এবার আসছে ফ্লাইং হোবার বোর্ড

0

হোবার বোর্ড হচ্ছে এক প্রকার রানিং বোর্ড। পায়ের নিচে রেখে আপনি ক্লান্তিহীনভাবে চলাচল করতে পারবেন। শুধু আপনাকে দেহের ব্যালান্স রক্ষা করা শিখতে হবে। এটাকে এক প্রকার মেশিনচালিত স্কেটিং বোর্ডও বলতে পারেন। ঘণ্টায় ৮০ মাইল বেগে উড়তে পারবে এমন হোভার বোর্ড বানিয়েছে জাপাতা রেইসিং। জাপাতা রেইসিংয়ের প্রতিষ্ঠাতা ফ্র্যাংকি জাপাতার বরাবরের স্বপ্ন ছিল আকাশে ওড়া। কিন্তু বর্ণান্ধতার কারণে হেলিকপ্টার পাইলট হওয়ার সুযোগ পাননি তিনি। পরবর্তী সময়ে নিজের প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সে স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্য ঠিক করেন জাপাতা।

এ পর্যন্ত তার স্বপ্নের খুব কাছাকাছি যেতে পারেনি জাপাতা রেইসিং। এবার ‘ইজি ফ্লাই’ নামের নতুন ফ্লাইং হোভার বোর্ডের মাধ্যমে তা কিছুটা বাস্তবায়ন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সম্প্রতি মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসিকে জাপাতা বলেন, ‘আমি যদি সাধারণ উপায়ে উড়তে না পারি, আমি আমার নিজের ওড়ার যন্ত্র তৈরি করব।’

বেশ কিছু এয়ারপ্লেন জেট মডেল ও একটি প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ইজি ফ্লাই তৈরি করেছে জাপাতা। ঘণ্টায় ৮০ মাইল বেগে ছুটতে পারে এ যন্ত্রটি। আর সর্বোচ্চ নয় হাজার ফুট উঁচুতে উঠতে পারে এটি। পাইলট যে দিকে যেতে চান সেদিকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন হোভার বোর্ডটি। এটি স্থির রাখতে হার্ডওয়্যারের পাশাপাশি একটি অ্যালগরিদম নকশা করেছেন ফ্র্যাংকি। এর ফলে হোভার বোর্ডে ওড়া সহজ হবে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে সিএনবিসি।

বলা হচ্ছে মার্কিন সেনাবাহিনীর কাজে লাগতে পারে ইজি ফ্লাই। এই প্রকল্পে কাজ করছেন মার্কিন সেনাবাহিনীর বিশেষ অপারেশনের সাবেক সদস্য হেনরি বেরকোউইজ এবং ড্যানিয়েল এডওর্ডাস। যেসব সৈনিকের পাইলট প্রশিক্ষণ নেই তাদের জন্য এই প্রযুক্তি প্রযোজ্য কিনা তা খতিয়ে দেখছেন তারা। ‘এটিতে চড়তে শেখা এবং ওড়া অবশ্যই সহজ। আমি দেখতে পাচ্ছি এটি কীভাবে সেনাবাহিনীতে জায়গা নিতে পারে,’ বলেন বেরকোউইজ। আপাতত হোভার বোর্ডটির প্রটোটাইপ বানিয়েছে জাপাতা রেইসিং। বাজারে এলে এর মূল্য হবে আড়াই লাখ মার্কিন ডলার।

ফেসবুক থেকে মন্তব্যঃ

Leave A Reply