আইফোন X-এর ফেস আইডি বিষয়ে ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনকে মিথ্যা বলেছে অ্যাপল

0

নতুন আইফোন X-এর ফেস আইডি বিষয়ে ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনকে মিথ্যা দাবি করেছে অ্যাপল। বুধবার ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে বলা হয় আইফোনের গতি বাড়াতে ফেস আইডির ‘সঠিকতা’ কিছুটা কমিয়েছে মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি। বিষয়টির সঙ্গে জড়িত এক ব্যক্তির বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গ জানায়, ফেস আইডি ব্যবস্থার সেন্সরের প্রযুক্তিগত স্পেসিফিকেশন কিছুটা শিথিল করেছে অ্যাপল। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে সে অনুযায়ী নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।


ব্লুমবার্গের এমন প্রতিবেদনকে মিথ্যা বলেছে অ্যাপল। রয়টার্সকে এক বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ‘ব্লুমবার্গ যে দাবি করেছে অ্যাপল ফেস আইডির সঠিকতা কমিয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা।’ ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেস আইডির যাচাই প্রক্রিয়ার সময় কমাতেই সঠিকতা কমানো হয়েছে। প্রতিবেদন প্রকাশের দিন দুপুরে অ্যাপলের শেয়ারমূল্য ০.৭ শতাংশ কমে ১৫৫.৯৯ মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে।
৯৯৯ মার্কিন ডলার মূল্যের নতুন আইফোন X-এর সবচেয়ে আলোচিত ফিচার হল ফেস আইডি। এ আইফোনটির সামনে পুরোটা পর্দা রাখায় সামনে থেকে টাচ আইডি বাদ দেয়া হয়েছে। এর পরিবর্তে আইফোনটিতে ফেস আইডি যোগ করেছে অ্যাপল। এর মাধ্যমে ডিভাইসের দিকে তাকালেই তা আনলক হবে এবং গ্রাহক এটি দিয়ে অ্যাপল পে ব্যবহার করতে পারবেন।
১২ সেপ্টেম্বর আইফোন ৮ ও ৮ প্লাসের সঙ্গে আইফোন X উন্মোচন করে অ্যাপল। বলা হচ্ছে বাজারে আইফোন ৮ ও ৮ প্লাসের চাহিদা কিছুটা কম। আর কয়েকজন বাজার বিশ্লেষক মনে করছেন উৎপাদন জটিলতার কারণে আইফোন ঢ সরবরাহে ঘাটতির মুখে পড়বে অ্যাপল।
বিবৃতিতে অ্যাপল জানিয়েছে, নভেম্বরের ৩ তারিখেই বাজারে আসবে আইফোন X। আর এতে ফেস আইডি থাকবে। অ্যাপল জানায়, ‘ফেস আইডি’র মান কমানো হয়নি। দশ লাখে একজন অপরিচিত মানুষ ফেস আইডি দিয়ে এ আইফোন আনলক করতে পারবেন, এই রীতি বজায় থাকবে।’

ফেসবুক থেকে মন্তব্যঃ

Leave A Reply